kalerkantho


গার্মেন্ট অ্যাক্সেসরিজের প্রদর্শনী শুরু বুধবার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৫ ০০:০০



গার্মেন্ট অ্যাক্সেসরিজের প্রদর্শনী শুরু বুধবার

পোশাক প্রস্তুতে ব্যবহৃত আনুষঙ্গিক পণ্য এবং এর মোড়কে ব্যবহৃত প্যাকেজিং পণ্য নিয়ে আয়োজন করা হচ্ছে 'ষষ্ঠ আন্তর্জাতিক গার্মেন্ট অ্যাক্সেসরিজ অ্যান্ড প্যাকেজিং এক্সপো-২০১৫'। আগামী ১৪ থেকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। প্রদর্শনীর উদ্বোধন করবেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

গার্মেন্টস অ্যাক্সেসরিজ অ্যান্ড প্যাকেজিং ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিজিএপিএমইএ), এএসকে ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশন লি. ইন্ডিয়া এবং জাকারিয়া ট্রেড অ্যান্ড ফেয়ার ইন্টারন্যাশনাল যৌথভাবে এ মেলার আয়োজন করছে।

গতকাল সোমবার প্রদর্শনীর প্রস্তুতির তথ্য তুলে ধরে এক সংবাদ সম্মেলন করেন বিজিএপিএমইএ নেতারা। রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে ওই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে জানানো হয়, প্রদর্শনীতে ৩০টি দেশের ৬৩২টি স্টল অংশ নিচ্ছে। স্টলগুলোতে পোশাকের আনুষঙ্গিক পণ্য এবং এর মোড়কে ব্যবহৃত পণ্যের যন্ত্রপাতি, কাঁচামাল এবং গার্মেন্টের অ্যাক্সেসরিজ এবং প্যাকেজিং শিল্পপ্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত পণ্য প্রদর্শিত হবে। সকাল ১১টা থেকে রাত ৭টা পর্যন্ত প্রদশর্নী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

সম্মেলনে বক্তারা বলেন, গার্মেন্ট অ্যাক্সেসরিজ রপ্তানি করে গত বছরে রপ্তানি আয় হয়েছে ৪৭৫ কোটি ডলার। আগামী ২০১৮ সালের মধ্যে গার্মেন্ট অ্যাক্সেসরিজ এবং প্যাকেজিং পণ্য রপ্তানি করে এক হাজার ২০০ কোটি ডলার আয় হবে বলে আশা করেন তাঁরা। তবে সে জন্য রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার পাশাপাশি সরকারের নীতি সহায়তা প্রয়োজন হবে বলেও তাঁরা মনে করেন।

সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিজিএপিএমইএ সভাপতি রাফেজ আল চৌধুরী, এসকে ট্রেডের পরিচালক নন্দগোপাল কে, জাকারিয়া ইন্টারন্যাশনালের প্রধান নির্বাহী টিপু সুলতান ভুঁইয়া, বিজিএপিএমইএ সহসভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন মতি ও আবদুল কাদের খান, সহসভাপতি (অর্থ) মাজহারুল হক শহীদ, মেলা আয়োজন স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান হাসানুল করিম তমিজ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এবার প্রদর্শনীর পাশাপাশি এ খাতের সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে সেমিনারের আয়োজন করা হচ্ছে বলেও জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

 



মন্তব্য