kalerkantho


পিউ রিসার্চের জরিপ

আমেরিকায় ফেসবুকের চেয়ে জনপ্রিয় ইউটিউব

বাণিজ্য ডেস্ক   

৪ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



আমেরিকায় ফেসবুকের চেয়ে জনপ্রিয় ইউটিউব

আমেরিকার বেশির ভাগ মানুষই ফেসুবক এবং ইউটিউব ব্যবহার করে। তবে তরুণরা বেশি ব্যবহার করে স্ন্যাপচ্যাট এবং ইনস্টাগ্রাম। যুক্তরাষ্ট্রে পিউ রিসার্চ সেন্টারের একটি জরিপে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রে বয়সীদের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষ হয় ফেসবুক না হয় ইউটিউব ব্যবহার করে। একই সময়ে তরুণরা (যাদের বয়স ১৮-২৪ বছর) একাধিক প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে এবং এগুলোতে পুন প্রবেশ করে। এ তরুণদের ৭৮ শতাংশ স্ন্যাপচ্যাট ব্যবহার করে। এর মধ্যে ৭১ শতাংশই দিনে কয়েকবার প্রবেশ করে এ সাইটে। একইভাবে এ বয়সের ৭১ শতাংশই ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার এবং ৪৫ শতাংশ টুইটার ব্যবহারকারী।

অথচ ২০১২ সালে যখন পিউ রিসার্চ জরিপ শুরু করে তখন আমেরিকার সব শ্রেণির মানুষের কাছে অগ্রাধিকার প্ল্যাটফর্ম ছিল ফেসবুক। বর্তমানে আমেরিকার বয়সী ৬৮ শতাংশ জানিয়েছে, তারা ফেসবুক ব্যবহারকারী। তবে সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার এখন ফেসবুক ছাড়িয়ে অন্য কিছুতে গেছে। ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউবে গতানুগতিক সামাজিক মাধ্যম না হলেও যুক্তরাষ্ট্রের তিন-চতুর্থাংশ বয়স্ক মানুষ এটি ব্যবহার করে আর তরুণদের মধ্যে ৯৪ শতাংশ ইউটিউব ব্যবহার করে নিয়মিত। জরিপে দেখা যায়, আমেরিকানরা আটটি বড় প্ল্যাটফর্মের মধ্যে তিনটি বেশি প্রবেশ করে।

জরিপে দেখা যায়, তরুণদের মধ্যে ৮৮ শতাংশ জানিয়েছে, তারা কোনো না কোনো সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করে; কিন্তু ৩০ থেকে ৪৯ বছর বয়সীদের মধ্যে ৭৮ শতাংশ জানালেন তাঁরা কোনো না কোনো প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে, আর এই হার ৩৭ শতাংশ ৫০ থেকে ৬৪ বছর বয়সীদের মধ্যে। লিংকডইন ব্যবহারের ক্ষেত্রে দেখা যায়, আমেরিকার কলেজ গ্র্যাজুয়েট বা উচ্চ আয়ের মানুষদের ৫০ শতাংশ লিংকডইন ব্যবহার করে, আর হাই স্কুল ডিপ্লোমা আছে এমন মানুষের মধ্যে মাত্র ৯ শতাংশ লিংকডইন ব্যবহার করে।

জরিপে পিউ রিসার্চ পাঁচটি প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার সম্পর্কে জানতে চায়। এগুলো হলো ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম, লিংকডইন এবং পিনটারেস্ট।



মন্তব্য