kalerkantho


দ্বিগুণ হচ্ছে গ্রিন লাইনের ডাবল ডেকার

বছর শেষে গাড়ির সংখ্যা হবে ৫০ নিয়মিত রুটগুলোতে এই বাসগুলো চালু করা হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



দ্বিগুণ হচ্ছে গ্রিন লাইনের ডাবল ডেকার

গত আগস্ট থেকে পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু হয় গ্রিন লাইন পরিবহনের ডাবল ডেকার বাসের

গত বছরের ২৬ আগস্ট থেকে পরীক্ষামূলকভাবেই যাত্রা শুরু হয়েছিল গ্রিন লাইন পরিবহনের ডাবল ডেকার। যাত্রীদের কাছ থেকে ভালো সাড়া পাওয়ায় এই ডাবল ডেকার বাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করছে প্রতিষ্ঠানটি। সেখানকার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য মতে, প্রথমে জার্মানির ‘ম্যান’ ব্র্যান্ডের ১০টি ডাবল ডেকার চালু করা হয়। যাত্রীদের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় আরো ১০টি বাস যুক্ত করা হচ্ছে। তবে এই বাসগুলো নিয়ে আসা হচ্ছে মালয়েশিয়া থেকে। এগুলো ফ্রান্সের নিউ প্ল্যান ব্র্যান্ডের বলে জানা গেছে। তবে চলতি বছরের মধ্যে এই গাড়ির সংখ্যা ৫০টিতে নেওয়া হবে বলেও জানান সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

ঢাকা সিলেট ও ঢাকা চট্টগ্রাম রুটে বাসগুলো চলাচল করছে। নতুন বাসগুলোও একই রুটে চলবে। পরবর্তী ধাপে ঢাকা-কক্সবাজার রুটে বাসগুলো চলবে বলে জানা গেছে।

গ্রিন লাইন পরিবহনসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, বিশ্বমানের এই বাসগুলো গাড়ির ব্রেকিং সিস্টেম ও সেফটিনেট থাকায় এখানে দুর্ঘটনা ঘটে না না বললেই চলে। এ ছাড়া বাসগুলোতে যাতায়াতের জন্য ভাড়ার পরিমাণ আগের মতোই প্রতি টিকিটে এক হাজার ৩০০ টাকাই নেওয়া হবে। আর এই টাকার মধ্য থেকেই যাত্রীদের মধ্যে সৌজন্যমূলক খাবার বিতরণ করা হচ্ছে। সকাল ও বিকেলের নাশতা এবং দুপুর ও রাতের খাবারের ব্যবস্থা রয়েছে। যাতায়াতের সময় অনুযায়ী খাবারগুলো যাত্রীদের দেওয়া হয়। এ কারণে বাইরে থেকে আলাদা করে খাবার কেনার প্রয়োজন পড়ে না।

এ বিষয়ে গ্রিন লাইন পরিবহনের জেনারেল ম্যানেজার আব্দুস ছাত্তার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা পরীক্ষামূলকভাবেই ১০টি গাড়ি দিয়ে শুরু করেছি। যাত্রীদের চাহিদা অনুযায়ী আরো ১০টি গাড়ি যুক্ত করা হচ্ছে। এ বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে ডাবল ডেকারের সংখ্যা হবে ৫০টিতে। নিয়মিত রুটগুলোতে এই বাসগুলো চালু করা হবে।’

জানা গেছে, ১৯৯০ সাল থেকে এ দেশের বিভিন্ন রুটে বাস সার্ভিস পরিচালনা করে আসছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গ্রিন লাইন পরিবহন। ২৮ বছরে প্রতিষ্ঠানটির গাড়ির সংখ্যা ১০০টি ছাড়িয়েছে। তবে প্রতিদিন বিভিন্ন রুটে ৭০টির মতো বাস চলাচল করে। প্রতিষ্ঠানটির বাস সার্ভিসে নতুন মাত্রা যোগ করেছে ডাবল ডেকার। প্রতিষ্ঠানসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, ২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠানটি প্রথম এ দেশে ভলবো বাস নিয়ে আসে। এর দুই বছর পরই আরো আধুনিক সংস্করণ স্কেনিয়া যুক্ত হয়। এর প্রায় চার বছর পর ম্যান ব্র্যান্ডের সিঙ্গেল বাস নিয়ে আসা হয়। আরো প্রায় আট বছর পর নতুন এই ডাবল ডেকার বাসগুলো যুক্ত হয়।



মন্তব্য