kalerkantho


শূন্য থেকে দেড় বিলিয়ন ডলারের উদ্যোক্তা

বাণিজ্য ডেস্ক   

২০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



শূন্য থেকে দেড় বিলিয়ন ডলারের উদ্যোক্তা

ভিন্নধর্মী উদ্যোগের মাধ্যমে বিশ্বকে পাল্টে দেওয়া সম্ভব : আনিসউজ্জামান

যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে শূন্য থেকে শুরু করে ১.৫ বিলিয়ন ডলারের মূলধন জোগাড় করে সফল উদ্যোক্তা হয়েছেন ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও সিইও আনিসউজ্জামান। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই তরুণ বলেন, ভিন্নধর্মী উদ্যোগের মাধ্যমে দেশ এমনকি বিশ্বকে পাল্টে দেওয়া সম্ভব। বাংলাদেশকে সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিতে এখন উচিত তরুণ উদ্ভাবকদের উৎসাহ দিয়ে তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করা। তবেই দেশ পরিপূর্ণ ডিজিটাল হবে।

‘বাংলাদেশ : দ্য নেক্সট টেক ফ্রন্টিয়ার’ স্লোগানে রাজধানীর র‍্যাডিসন হোটেলে এসডি এশিয়া আয়োজিত ‘ইনোভেশন এক্সট্রিম-২০১৬’ সম্মেলনে আনিসউজ্জামান এসব কথা বলেন। গতকাল শনিবার এ আয়োজনে দেশের ২৫টি স্টার্টআপসহ ২৫ জন নামকরা ইন্ডাস্ট্রি ব্যক্তিত্ব অংশ নেন। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই উদ্যোক্তা বললেন, বিশ্বের প্রথম ফ্যামিলি রোবট জিবোর কথাও। কিভাবে এই ছোট্ট রোবট আপনার পরিবারের গুরুত্বপূর্ণ একজন সদস্য হয়ে উঠবে সেটিও বর্ণনা করে দিলেন। তারপর একে একে বললেন স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে অবদান রাখতে চলা রোবট দ্য ভিঞ্চি, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স সফটওয়্যার অ্যাফেক্টিভিটা ও মেটার কথাও। দেখালেন ভবিষ্যতের প্রযুক্তি কেমন হবে।

অনুষ্ঠানে ডিজিটাল বাংলাদেশের অসীম সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের প্রতিষ্ঠাতা। এ ক্ষেত্রে নতুন উদ্যোক্তাদের সহায়তার জন্য বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ও বড় বড় কম্পানিকে এগিয়ে আসতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

আনিসউজ্জামান আরো বলেন, ‘বর্তমানে প্রায় ৬০টির বেশি স্টার্টআপ কম্পানিতে আমাদের বিনিয়োগ রয়েছে। তবে বাংলাদেশেরও রয়েছে অসীম সম্ভাবনা। ’

তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য গ্রামীণফোন ‘জিপি অ্যাক্সিলেটর’ কর্মসূচি শুরু করেছে জানিয়ে গ্রামীণফোনের চিফ করপোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন বলেন, ‘আমাদের তরুণ উদ্যোক্তাদের ইনোভেশনের ক্ষেত্রে এ কর্মসূচি উৎসাহ প্রদান করবে। আমাদের প্রচুর তরুণ উদ্যোক্তা রয়েছে, তাদের নার্সিং করা প্রয়োজন। তরুণদের নার্সিং করার মাধ্যমেই আমাদের ইমপাওয়ারিং সোসাইটির দিকে যেতে হবে। ’

মাহমুদ হোসেন আরো বলেন, ‘বর্তমানে মোবাইলে ইন্টারনেট গ্রাহকসংখ্যাই বেশি। মোবাইলে ইন্টারনেট সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে আমরা প্রধান সার্ভিস প্রোভাইডার। গ্রাহকের ডায়নামিক চাহিদার ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের মাধ্যমে সেবা দেওয়াটাই আমাদের চ্যালেঞ্জ। এ জন্য আমাদের বিভিন্ন উদ্যোগ রয়েছে। ’

ডিজিটাল ইকো সিস্টেমের মধ্য দিয়ে ইন্টারনেটভিত্তিক সমাজ গঠনের ওপর জোর দিয়ে মাহমুদ হোসেন বলেন, ‘এ ক্ষেত্রে সহযোগী পার্টনার প্রয়োজন। ’

বেসিস সভাপতি ও ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের জেনারেল পার্টনার শামীম আহসান বলেন, ‘জীবনে সফল হতে হলে ভিন্নভাবে চিন্তা করতে হবে। উদ্ভাবনের সাহস থাকতে হবে। অপরিচিত পথে চলার ও নব নব জিনিস আবিষ্কারের উদ্দীপনা এবং সমস্যাকে জয় করতে হবে। এসব গুণের মাধ্যমে আমাদের তরুণরা এগিয়ে যাবে। ’

দিনব্যাপী এ আয়োজনে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের পার্টনার আবুল নুরুজ্জামান, বস্টন কনসালটিং গ্রুপের পার্টনার ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক জারিফ মুনির, সেগনেল ভেঞ্চারস প্রাইভেট লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা হিদেকি ফুজিতা প্রমুখ।


মন্তব্য