kalerkantho

বড় ভাই সমাচার

লেখা : মুহসিন ইরম

৬ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



বড় ভাই সমাচার

মহল্লার বড় ভাই

 

প্রতিটি মহল্লায় একজন স্বঘোষিত বড় ভাই গজিয়ে উঠতে দেখা যায়। এলাকার যাবতীয় কাজে এরা নাক গলায়। এরা নিজেদের মনে করে মহল্লার প্রাণ এবং সব সমস্যার সমাধানকারী। যদিও সে যে মহল্লার জন্য একটা জলজ্যান্ত সমস্যা, তা বেমালুম ভুলে বসে থাকে। বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে এরা যেচে এসে উপকার করে।

ভার্সিটির বড় ভাই

ভার্সিটির প্রতিটি হলে একজন করে বড় ভাই থাকে। এই বড় ভাই সঙ্গে তিন থেকে চারজন সহকারী রাখেন। জুনিয়র স্টুডেন্টদের প্রতিটি পদক্ষেপে ভুল খুঁজে বেড়ান। রাজনৈতিক দলের সঙ্গে তাঁদের যোগাযোগ থাকে। জুনিয়রদের দিয়ে এটাসেটা নানা ফুটফরমায়েশ করিয়ে বেশ আয়েশে তাঁদের দিনকাল কেটে যায়।

রাজনৈতিক বড় ভাই

রাজনীতির মাঠে বড় ভাই এক জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। তবে এ অঙ্গনে বড় ভাই পরিবর্তন হয় খুব দ্রুত। বড় ভাইয়ের আসন চিরস্থায়ী করে রাখতে পারেন না কেউ। রাজনৈতিক বড় ভাইকে যত বেশি তেল মারা যায়, তত বেশি ফায়দা। দেখা যায়, অনেকের যোগ্যতা শূন্যের কোঠায় হলেও তেলকোটায় মনোনয়ন পেয়ে ছোটখাটো নেতা হয়ে যান।

প্রেমিকার বড় ভাই

আফসোসের বিষয় হলো, বেশির ভাগ প্রেমিকারই একজন বড় ভাই থাকে। ক্ষেত্রবিশেষে আপন বড় ভাই না থাকলেও পরবর্তী সময়ে দূরসম্পর্কের বড় ভাইয়ের আবির্ভাব হয়। প্রেমিকার সর্বপ্রকার বড় ভাইয়েরা হয়ে থাকে প্রেমের এক নম্বর শত্রু। প্রেমের বিভিন্ন পর্যায়ে প্রেমিককে এদের হাতে চড়-থাপ্পড়, এমনকি গণধোলাইও খেতে হয়।

আপন বড় ভাই

বড় ভাইদের মধ্যে সবচেয়ে কাছের হচ্ছে আপন বড় ভাই। যদিও এরা কারণে-অকারণে ধোলাই দেয়, এটাসেটা নানা ফুটফরমায়েশ খাটায়; কিন্তু তার পরও এদেরই সবচেয়ে ভালো লাগে। এদের পকেট থেকে জরুরি প্রয়োজনে টাকা সরানো যায়। অনেক ক্ষেত্রে বড় ভাই সেটা বুঝতে পারলেও কিছু বলে না। অযোগ্য বেকার ছোট ভাইকে এরা প্রভাব খাটিয়ে বিভিন্ন অফিসে ঢুকিয়েও দেয়। অসুস্থ ছোট ভাইকে প্রয়োজনে কিডনি-লিভার দান করতেও এরা পিছপা হয় না। তাই এককথায় বলতে হয়, ‘আপন বড় ভাই—জিন্দাবাদ।’


মন্তব্য