kalerkantho


আরো কিছু প্রশ্ন ফাঁস

প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকানো যাচ্ছে না কোনোভাবেই। এই পর্যন্ত এসএসসি পরীক্ষায় হওয়া সব বিষয়ের প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে। আচ্ছা, বাদ দেন। আদার ব্যাপারীর পরমাণু শক্তি চালিত বিমানবাহী রণতরীর খবর নিয়ে লাভ কী। আসেন দেখি আর কোন কোন ক্ষেত্রে প্রশ্ন ফাঁস করলে লাভ হতো আমাদের। লিখেছেন মো. শাখাওয়াত হোসেন, এঁকেছেন মানব

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আরো কিছু প্রশ্ন ফাঁস

বউয়ের কাজে দেরি হওয়ার ক্ষেত্রে প্রশ্ন

কথায় আছে, অফিসে দেরি হলে বেঁচে যাবেন; কিন্তু বউয়ের সঙ্গে কোথাও যাওয়ার কথা থাকলে, সেখানে যেতে না পারলে মারা যাবেন। একবার না, তিনবার। আসুন আগেভাগে প্রস্তুতি নিয়ে নিই। পড়ালেখার শেষ নাই আর মাইর খাওয়ার বয়স নাই—

 

ক.      আজকে কী বার যেন? (এত সহজ প্রশ্ন শুনে খুশি হবেন না। মনে রাখবেন, প্রচণ্ড ঝড়ের আগে হালকা একটা বাতাস বয়। সেটাই শুরু হয়েছে এখানে।)

খ.      আচ্ছা, শেষবার তোমার কোন আত্মীয়ের যে একটা অনুষ্ঠান ছিল, ওখানে তো আমরা গিয়েছিলাম না?

গ.      অফিসে মিটিং ছিল না, তবুও আজকেই পড়েছে মিটিং, তাই না?

ঘ.      আচ্ছা, তুমি আমার সঙ্গে ফাইজলামি করো কী বুঝে? (আসল প্রশ্ন শুরু হইছে। সাবধানে উত্তর দিন।)

 

দেরিতে অফিসে এলে বসের প্রশ্ন

অফিসে দেরি হতেই পারে। সেই জীবনানন্দ দাশের যুগ থেকে এটা হয়ে আসছে। বসের রুমে ডাক পড়লে আমাদের অনেক উত্তর রেডি রাখতে হয়। আমরা ফাঁস করে দিচ্ছি কোন কোন প্রশ্ন হতে পারে—

ক.      আপনার বাসায় ঘড়ি আছে নাকি রাশেদ সাহেব?

খ.      ট্রাফিক জ্যাম ছাড়া আর কী লজিক আছে দেরি হওয়ার? বলুন।

গ.      কচ্ছপ আর খরগোশের গল্পটা জানেন নাকি?

ঘ.      বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট দুপুর ১২টায়। আপনাকে বিমান ধরতেই হবে। বাসা থেকে কয়টায় বের হবেন?

 

পাত্র দেখা অনুষ্ঠানে প্রশ্ন

আগে ছিল কনে দেখা অনুষ্ঠান। এখন যুগ পাল্টে গেছে। এই ফোরজির যুগে হয় পাত্র দেখা অনুষ্ঠান। পাত্র দেখা অনুষ্ঠানে কী কী প্রশ্ন হতে পারে, সেটা আমরা ফাঁস করে দিচ্ছি। অবিবাহিত পুরুষরা খেয়াল করুন—

ক.      কত টাকা বেতন পাও? (ছেলেদের বেতন জিজ্ঞেস করতে হয় না, এই উত্তর দিয়েন না। সৃজনশীল প্রশ্নের যুগে এই উত্তর ধোপে টিকবে না।)

খ.      আমার মেয়েকে সুখী রাখতে পারবে তো? (ভাববোধক প্রশ্ন। আগে সময় নিয়ে ভাবুন, তারপর উত্তর দিন।)

গ.      আমার মেয়ের কোন দিকটি তোমার খুব ভালো লেগেছে? (এটা সৃজনশীল। প্রশ্নটা বুঝে উত্তর দেবেন। প্রশ্নকর্তা কী বুঝিয়েছেন তা আগে বুঝুন, তারপর মুখ খুলুন।)

ঘ.      সারা জীবন আমার মেয়ের পাশে থাকবে তো?

 

লেখার ডেডলাইন মিস করলে সম্পাদকের প্রশ্ন

ইমরুল কায়েস স্লিপে ক্যাচ মিস করে আর কন্ট্রিবিউটররা মিস করে ডেডলাইন। লেখা দিতে দু এক মিনিট এদিক ওদিক হলে সম্পাদক অন্য রকম হয়ে যান। সেই কঠিন মুহূর্তে কন্ট্রিবিউটরদের জন্য সম্পাদকের প্রশ্ন—

ক.      সাখাওয়াত সাহেব, অন্য কোনো ম্যাগাজিনে কাজ পাইছেন নাকি?

খ.      রিডার্স ডাইজেস্টে নাকি কাজ পেয়েছেন শুনলাম?

গ.      বিখ্যাত সব লেখকের নাকি রাইটার্স ব্লক ধরে। আপনার কী অবস্থা?

ঘ.      দুটি চেক হইছে আপনার, জমা দিয়ে দেব? (এটা কিন্তু স্পিনারদের ফ্লাইট বলের মতো। রাউন্ড দ্য উইকেট খেলতে না গিয়ে ছেড়ে দিন। অথবা আগে জেনে নিন দুটি চেকে কত পাচ্ছেন।)

ঙ.      আপনাকে কি বাসায় চিঠি পাঠাতে হবে লেখার জন্য? (প্রশ্ন কঠিন হচ্ছে। সাবধান!)


মন্তব্য