kalerkantho

বিমানের প্রশাসন প্রধানকে সরিয়ে দেওয়া হলো

মাসুদ রুমী   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিমানের প্রশাসন প্রধানকে সরিয়ে দেওয়া হলো

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসে দুর্নীতি দমনে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সরকার। বিমানের উচ্চপর্যায়ে বড় ধরনের সংস্কার আসছে। এরই মধ্যে গতকাল সোমবার রাষ্ট্রায়ত্ত এয়ারলাইনসটির প্রশাসন বিভাগের প্রধানকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সরকারের উচ্চপর্যায়ের নির্দেশে আরো পরিবর্তন আসবে বলে জানা গেছে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বিমান বাংলাদেশের ভেতরের দুর্নীতি বের করতে গঠিত তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছে। অভিযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গতিবিধি নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে। রবিবার বিকেলে সচিবালয়ে

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দেক আহমেদসহ বিপণন ও তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের প্রধানকে ডেকে পাঠানো হয়। সেখানে বিমানের টিকিট চুরি, কালোবাজারির অভিযোগ নিয়ে জানতে চাওয়া হয়।

বৈঠক সূত্র জানায়, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী এবং সচিব মো. মহিবুল হক বিমানের সিট খালি যাওয়া নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এক-তৃতীয়াংশ আসন খালি থাকা নিয়ে আলোচনা হয়। অনটাইম প্রতিযোগিতায় লন্ডনসহ অন্য রুটে অন্য এয়ারলাইনসের তুলনায় বিমানের পারফরম্যান্স নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। এ ছাড়া দুর্বল মার্কেটিং পলিসি, সফল এয়ারলাইনসের বিজনেস পলিসি বিমান কেন ফলো করে না সে বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়। এই পরিপ্রেক্ষিতে বিমানের পক্ষ থেকে টিকিট বিক্রি ও বিপণন ব্যবস্থা নিয়ে একটি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করা হয়।

জানতে চাইলে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মহিবুল হক গতকাল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বিমানে সিট খালি যাচ্ছে, টিকিট নেই—এমন অভিযোগ আর চলবে না। সে ব্যবস্থা আমরা করেছি। রবিবার আমরা তাদের (বিমান) সঙ্গে বসেছিলাম। সেখানে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এখন থেকে টিকিট বিক্রির পদ্ধতি পুরোপুরি অটোমেটেড হবে। ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে আর কেউ টিকিট বিক্রি করতে পারবে না।’

সচিব আরো বলেন, ‘আমরা বিমানের দুর্নীতির অভিযোগ গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখছি। সরকারের পক্ষ থেকে বিমানের নতুন পরিচালক (প্রশাসন) নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আগামীতে আরো পরিবর্তন আসবে। এ ছাড়া বিমানের দুর্নীতি নিয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি কাজ করছে। কমিটির প্রতিবেদন পেলে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।’         

গতকাল বিমানের পরিচালক (প্রশাসন) পদে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদকে প্রেষণে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এত দিন ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্বে থাকা বাংলাদেশ এয়ারলাইনস ট্রেনিং সেন্টারের (বিএটিসি) প্রিন্সিপাল পার্থ কুমার পণ্ডিতকে আগের দায়িত্বে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

বিমানের একটি সূত্র জানায়, এর আগে মন্ত্রণালয়ের তদন্ত প্রতিবেদনে টিকিট বিক্রি এবং কার্গোতে অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রমাণের পর এই রদবদলের সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রণালয়। কালের কণ্ঠে রাষ্ট্রায়ত্ত এয়ারলাইনসটির দুর্নীতি ও অনিয়ম নিয়ে ‘দুর্নীতির ডানায় বিমান’ শীর্ষক সিরিজ প্রতিবেদনের দুটি পর্ব প্রকাশিত হয়েছে।

মন্তব্য