kalerkantho


আনসার-ভিডিপি সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী

সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক রোধে সজাগ থাকুন

শরীফ আহমেদ শামীম, গাজীপুর ও মাহবুব হাসান মেহেদী, কালিয়াকৈর   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক রোধে সজাগ থাকুন

জাতীয় সংকটে ও জরুরি মুহূর্তে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর (ভিডিপি) ভূমিকার প্রশংসা করে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে তাদের সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে তাদের কঠোর পরিশ্রম, সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

গাজীপুরের কালিয়াকৈরের সফিপুরে আনসার-ভিডিপি একাডেমিতে গতকাল মঙ্গলবার এ বাহিনীর ৩৯তম জাতীয় সমাবেশ ও কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সম্প্রতি আমাদের যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলো, সেই নির্বাচনে ৪০ হাজার ১৮৩টি ভোটকেন্দ্রে প্রায় পাঁচ লাখ আনসার ভিডিপি সদস্য জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে ভোটকেন্দ্র, ভোটের নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্ব পালন করেছেন। একটি সুষ্ঠু নির্বাচন বাংলাদেশের জনগণকে উপহার দিয়েছেন।’ এই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে পাঁচজন আনসার সদস্যকে জীবন দিতে হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা আজ তাঁদের মরণোত্তর সাহসিকতা পদক দিয়েছি।’

২০১৪-১৫ সালে বিএনপির সরকারবিরোধী আন্দোলনের সময় আনসার বাহিনীর ভূমিকার কথাও প্রধানমন্ত্রী তাঁর বক্তৃতায় স্মরণ করেন। তিনি বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত জোট কর্তৃক যখন অগ্নিসন্ত্রাস এবং মানুষকে ককটেল বোমা মেরে রেলগাড়ি লঞ্চসহ সাধারণ মানুষের চলাচলে বাধা তৈরি করেছিল; আগুন দিয়ে পুড়িয়ে পুড়িয়ে যখন মানুষ হত্যা করেছিল; সেই অগ্নিসন্ত্রাস প্রতিরোধ করবার ক্ষেত্রে এবং বিশেষ করে রেলের নিরাপত্তায় এই আনসার বাহিনী বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাদের এই অনবদ্য ভূমিকার জন্য আমি তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

জাতীয় সমাবেশে আনসার-ভিডিপি সদস্যদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতীয় সংকটকালে ও জরুরি মুহূর্তে আপনারা দক্ষতা ও সফলতার পরিচয় দিয়েছেন। মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আমাদের সবাইকে সব সময় সজাগ থাকতে হবে।’

এ বাহিনীর উন্নয়নে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন শেখ হাসিনা। আনসার সদস্যদের জন্য ঝুঁকি ভাতা চালু এবং আনসার-ভিডিপি ব্যাংক চালুর কথাও তিনি বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা-নিরাপত্তা ও মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নতি—এটাই আমাদের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবার উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আসুন সকলে মিলে আমাদের মাতৃভূমিকে আমরা উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে যেন গড়ে তুলতে পারি সে জন্য কাজ করি। দেশ-বিদেশে সব ক্ষেত্রে বাংলাদেশ, বাঙালি জাতি মাথা উঁচু করে মর্যাদার সঙ্গে যেন চলতে পারে, সেজন্য কাজ করি।’

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন সবুজ, গাজীপুর সিটির মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি, কালিয়াকৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুরাদ কবীর, কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আব্দুল ওহাব মিয়া প্রমুখ। এ ছাড়া তিন বাহিনীর প্রধানরা, পদস্ত সরকারি কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

 



মন্তব্য