kalerkantho


প্র তি ক্রি য়া

বিচারহীনতার সংস্কৃতি বন্ধ হবে

অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, শিক্ষাবিদ

১১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



বিচারহীনতার সংস্কৃতি বন্ধ হবে

আমাদের দেশে নানা সময় ঘৃণ্য ও নারকীয় অনেক রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে। এতে অনেক মানুষ হতাহত হয়েছে। লজ্জাজনক বিষয় হলো, অতীতে রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু ছিল। আমার মনে হয়, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায়ে বিচারহীনতার সংস্কৃতি অনেকখানি হলেও বন্ধ হবে। এতে মানুষের মনে স্বস্তি আসবে, আস্থা ফিরে আসবে।

অনেক দিন পরে হলেও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচার হয়েছে। বিচারে অপরাধীদের শাস্তি হয়েছে। আমার মনে হয়, এ রায়ের ফলে মানুষের মনে বিশ্বাস ফিরে আসবে যে হত্যাকারী কিংবা অন্যায়কারী যত শক্তিশালী হোক না কেন, অপরাধীকে একদিন বিচারের সম্মুখীন হতেই হবে। অন্যায়ের শাস্তি পেতে হবে।

২১ আগস্ট ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা চালানোর মূল উদ্দেশ্যই ছিল তত্কালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনাকে হত্যা করা। ষড়যন্ত্রকারীরা ও অপরাধীরা আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতে চেয়েছিল, ক্ষতিগ্রস্ত করতে চেয়েছিল। অপরাধীদের হীন উদ্দেশ্য সফল হয়নি, আওয়ামী লীগকে ক্ষতিগ্রস্ত করা সম্ভবপর হয়নি।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় যাঁরা নিহত হয়েছেন তাঁদের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করি। আশা করি, আমাদের দেশে যেন আর কোনো দিন এ ধরনের হত্যাকাণ্ড সংঘটিত না হয়।



মন্তব্য