kalerkantho


প্রতিক্রিয়া

কারলাইলকে দিল্লির ফেরতে বিস্মিত বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



কারলাইলকে দিল্লির ফেরতে বিস্মিত বিএনপি

দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আইনি পরামর্শক ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড আলেকজান্ডার কার্লাইলকে ভারতে প্রবেশ করতে না দেওয়ার ঘটনায় বিস্মিত হয়েছে বিএনপি। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপির পক্ষে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা জানান।

দলের সহদপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদ স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে ফখরুল বলেন, “গত রাতে (বুধবার) বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্রিটিশ ‘হাউস অব লর্ডস’-এর সদস্য লর্ড কার্লাইলকে দিল্লি বিমানবন্দর থেকে ফিরিয়ে দেওয়ার খবর জেনে আমরা বিস্মিত হয়েছি। বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশ ভারতে মুক্ত চিন্তা অনুশীলনের সঙ্গে এই ঘটনা সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলে আমরা মনে করি।”

তিনি বলেন, ‘আমরা আরো মনে করি, বাংলাদেশের অনির্বাচিত সরকার খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য অন্যায়ভাবে কারারুদ্ধ করে দেশে গণতন্ত্র অনুশীলনে যে বাধা সৃষ্টি করেছে তার প্রতিবাদ জানানোর জন্য বিশ্বখ্যাত আইনজীবী লর্ড কার্লাইল দিল্লিতে সংবাদ সম্মেলন করতে চেয়েছিলেন। বাংলাদেশ সরকার তাঁকে ভিসা না দেওয়ায় লর্ড কার্লাইল ভারতে আসতে চেয়েছিলেন। তাঁকে ভারতে প্রবেশ করতে না দেওয়ায় আমরা মর্মাহত। আমরা বিশ্বাস করি, বাংলাদেশে চলমান স্বৈরতান্ত্রিক দুঃশাসনের বিরুদ্ধে জনগণের অব্যাহত আন্দোলনের প্রতি মুক্ত বিশ্বের সমর্থন থাকবে।’

এদিকে দলের মহাসচিবের এমন বক্তব্যের পর দলের আর কোনো নেতা এ বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলতে চাননি। কালের কণ্ঠ’র পক্ষ থেকে দলটির কূটনৈতিক বিষয়াদি দেখভাল করেন এমন কয়েকজনের সঙ্গে কথা হলে তাঁরা বলেন, ‘মহাসচিবের বক্তব্যই শেষ কথা। এ বিষয়ে আমাদের আর কোনো বক্তব্য না দেওয়াই উচিত।’

স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার বলেন, ‘বিষয়টি তাঁর জানা ছিল এবং দলের কয়েকজনের ভারত যাওয়ার কথা। ম্যাডামের মামলার বিষয়ে তাঁর (কার্লাইলের) কথা বলার ছিল। পুরো বিষয়টি না জেনে বিস্তারিত বলতে পারব না।’

দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেন, ‘লর্ড কার্লাইলকে ভারতে কেন প্রবেশ করতে দেওয়া হলো না সে বিষয়ে আমি মন্তব্য করতে চাচ্ছি না। এটা ভারত সরকারের ব্যাপার। কিন্তু তিনি কেন বাংলাদেশে আসতে পারেন না? বাংলাদেশ কেন তাঁকে ভিসা দিচ্ছে না? আমরা তো তাঁকে খালেদা জিয়ার আইনজীবী হিসেবে নিয়োগ দিয়েছি। কেন আজ পর্যন্ত তাঁকে বাংলাদেশের ভিসা দেওয়া হলো না?’

বিএনপির আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ বলেন, ‘এ বিষয়টি মর্মান্তিক। যেহেতু মহাসচিব বক্তব্য দিয়েছেন, আমাদের কিছু না বলাই শ্রেয়।’

খালেদার দণ্ড নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার নয়া দিল্লিতে লে মেরিডিয়ান হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করার কথা ছিল কার্লাইলের। কিন্তু বুধবার দিল্লি বিমানবন্দরে নামার পর ‘উপযুক্ত ভিসা নিয়ে না আসার’ কারণ দেখিয়ে তাঁকে ফেরত পাঠানো হয় বলে ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়।



মন্তব্য