kalerkantho


মোদিকে ট্রাম্পের ফোন

রোহিঙ্গাদের দুর্দশা লাঘবের উপায় নিয়ে আলোচনা

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



রোহিঙ্গাদের দুর্দশা লাঘবের উপায় নিয়ে আলোচনা

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ফোন করে রোহিঙ্গা সংকটসহ মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত বৃহস্পতিবার ওই ফোনালাপের পর মার্কিন প্রেসিডেন্টের দপ্তর হোয়াইট হাউস এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, রোহিঙ্গাদের দুর্দশা লাঘবের উপায় নিয়ে দুই নেতা ভাবনা বিনিময় করেছেন। এ ছাড়া তাঁরা আলোচনা করেছেন মালদ্বীপ, আফগানিস্তান ও উত্তর কোরিয়া পরিস্থিতি নিয়েও।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প ও নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশে সাম্প্রতিক সময়ে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের ছয় লাখ ৮০ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গার দুর্দশার বিষয়ে কথা বলেছেন। ওই রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে নিরাপত্তা বাহিনীর দমন-পীড়নের শিকার হয়েছে এবং হত্যা, লুটপাট, ধর্ষণের ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, এশিয়াজুড়ে চীনের প্রভাব মোকাবেলায় ট্রাম্প প্রশাসন ভারতের সঙ্গে সামরিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করার উদ্যোগ নিয়েছে। চীন ও ভারতের প্রতিযোগিতার আরেকটি ক্ষেত্র হয়ে উঠেছে বিলাসী পর্যটন রিসোর্টের জন্য সুপরিচিত মালদ্বীপ। মালদ্বীপ চীনের ‘এক বলয়, এক পথ’ বাণিজ্য ও যোগাযোগ মহাপরিকল্পনায় যুক্ত হওয়ার পর প্রতিযোগিতা আরো তীব্র হয়েছে। মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন আবদুল্লা তাঁর দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি জানাতে চীন, পাকিস্তান ও সৌদি আরবের মতো মিত্র দেশগুলোতে বিশেষ দূত পাঠিয়েছেন। অন্যদিকে মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদ দেশের পরিস্থিতি উন্নয়নের লক্ষ্যে ভারতসহ তাঁর বন্ধু রাষ্ট্রগুলোর হস্তক্ষেপ চেয়েছেন।

হোয়াইট হাউস বলেছে, ট্রাম্প ও মোদি মালদ্বীপে রাজনৈতিক সংকট নিয়ে উদ্বেগ জানান। তাঁরা গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ও আইনের শাসনের প্রতি সম্মান জানানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট আফগানিস্তানের নিরাপত্তার বিষয়ে তাঁর দেশের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন বলে হোয়াইট হাউস জানায়। জঙ্গি নির্মূল করতে ব্যর্থতার জন্য পাকিস্তানে সহযোগিতা কাটছাঁট করেছে যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে আফগানিস্তানে সহযোগিতা বাড়িয়েছে ভারত। ট্রাম্প ও মোদি উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার উপায় নিয়েও আলোচনা করেন।

যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের মধ্যে সামরিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরো জোরদার করার লক্ষ্যে আগামী এপ্রিলে ‘২+২ মন্ত্রী পর্যায়ের আলোচনা’ অনুষ্ঠানেও সম্মত হয়েছেন ট্রাম্প ও মোদি। দুই দেশের কূটনৈতিক ও প্রতিরক্ষা খাতের প্রতিনিধিরা এতে অংশ নেবেন।


মন্তব্য