kalerkantho


আবদুল হামিদই রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন

বিশেষ প্রতিনিধি   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আবদুল হামিদই রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন

রাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচনে বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকেই মনোনয়ন দিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় দ্বিতীয় মেয়াদে তাঁর রাষ্ট্রপতি হওয়ার ব্যাপারে সংশয় নেই। ফলে তিনিই দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন।

গতকাল বুধবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায় আবদুল হামিদকে মনোনয়ন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

সভা শেষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের জানান, জাতির বৃহত্তর স্বার্থে বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকে সর্বসম্মতিক্রমে পরবর্তী রাষ্ট্রপতি হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সভায় আবদুল হামিদের নাম প্রস্তাব করেন ওবায়দুল কাদের। এই প্রস্তাব সমর্থন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ। রাষ্ট্রপতি পদে আর কারো নাম নিয়ে আলোচনা হয়নি। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাসহ বোর্ডের সদস্যরা নাম প্রস্তাবের আগে ও পরে দীর্ঘ সময় আবদুল হামিদের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন ও ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করেন।

নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিল ৫ ফেব্রুয়ারি। ওই দিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র দাখিল করা যাবে। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ৭ ফেব্রুয়ারি। আর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি। নির্বাচন (ভোট গ্রহণ) অনুষ্ঠিত হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি। সংসদীয় শাসনব্যবস্থায় সংসদ সদস্যরা রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটার।

মো. আবদুল হামিদ ২০১৩ সালের ২২ এপ্রিল বাংলাদেশের ২০তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। ওই বছরের ২৪ এপ্রিল তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেন। আগামী ২৩ এপ্রিল তাঁর পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হবে। তিনি রাষ্ট্রপতি হওয়ার আগে কিশোরগঞ্জের হাওরাঞ্চল থেকে সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং দুইবার জাতীয় সংসদে স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি রাষ্ট্রপতি থাকার সময় ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি বিএনপির অনুপস্থিতিতে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

তফসিল বাতিল চেয়ে আইনি নোটিশ : রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য ঘোষিত তফসিল বাতিল ও প্রত্যাহার চেয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, জাতীয় সংসদের স্পিকার এবং পাঁচজন সচিবকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. ইউনুছ আলী আকন্দ। গতকাল পাঠানো এ নোটিশ পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তফসিল বাতিল চাওয়া হয়েছে। অন্যথায় রিট আবেদন করা হবে বলে নোটিশে বলা হয়েছে। যে পাঁচ সচিবকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে তাঁরা হলেন মন্ত্রীপরিষদসচিব, রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়ের সচিব, আইনসচিব ও ইসি সচিব।

 

 

 



মন্তব্য