kalerkantho


প্রতিক্রিয়া
আওয়ামী লীগ

ভোট স্থগিতে সরকারের ভূমিকা নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ভোট স্থগিতে সরকারের ভূমিকা নেই

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন উপনির্বাচন স্থগিতের যে আদেশ হাইকোর্ট দিয়েছেন, এর পেছনে সরকারের কোনো ভূমিকা নেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল বুধবার হাইকোর্টের আদেশের পর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘এখানে সরকারের যোগসাজশের কোনো বিষয় নেই। আমরা এই নোংরা পলিটিকস করি না, এতে বিশ্বাসও করি না।’ 

মঙ্গলবার রাতে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ডের সভায় ডিএনসিসি উপনির্বাচনে মেয়র পদে ব্যবসায়ী আতিকুল ইসলামকে প্রার্থী ঘোষণা করে আওয়ামী লীগ। এরপর গতকাল সকালে আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন থেকে ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলরদের মনোনয়ন ঘোষণার কথা ছিল। তার আগেই ডিএনসিসি নির্বাচনে স্থগিতাদেশ দেন আদালত।

নির্বাচনে স্থগিতাদেশ চেয়ে দুই রিটকারীর একজন বেরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম। এ প্রসঙ্গ তুলে ধরে নির্বাচন স্থগিতের পেছনে সরকারের ভূমিকার বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আদালতের রায়কে আমরা সম্মান করি বলেই আজ কাউন্সিল প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করতে এসেও করিনি। যতক্ষণ সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে, ততক্ষণ আমাদের তা মানতে হবে। এর বাইরে কিছু করা আদালত অবমাননার শামিল।’ তিন মাস পর নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন হবে কি না জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এটা সময় বলে দেবে।’

ডিএনসিসিতে দ্রুত ভোট করতে ইসিকে সহায়তা দেওয়া হবে : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

আদালতের আদেশে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র ও সম্প্রসারিত অংশের কাউন্সিলর পদের ভোট স্থগিত হলেও সেখানে দ্রুত যাতে নির্বাচন হতে পারে, সে জন্য নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা করা হবে বলে জানিয়েছেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র ও সম্প্রসারিত অংশের কাউন্সিলর পদের ভোট গতকাল তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে ওই নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়েও রুল জারি করা হয়। এতে মেয়র নির্বাচন বিলম্ব হলে কী করেবন, এমন প্রশ্নে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, ‘আইনে সেটা তো খুবই পরিষ্কার, প্যানেল মেয়র আছে, প্যানেল মেয়রটা করা হয় সেই জন্যই।’

মন্ত্রী বলেন, ‘উপনির্বাচন স্থগিত হলেও কোনো অচলাবস্থা সৃষ্টি হবে না। সিটি কপোরেশনের মেয়র অসুস্থ এবং মারা যাওয়ার প্রায় মাস হতে চলেছে, সিটি করপোরেশন ভালোভাবেই চলছে, ওখানে প্যানেল মেয়র আছেন, কমিশনারদের নিয়ে তিনি ভালোই চালাচ্ছেন।

মেয়র পদে উপনির্বাচন স্থগিত হওয়ায় ‘আজ-কালের’ মধ্যে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বসবেন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, যে কারণে নির্বাচন স্থগিত হয়েছে, সেটা দূর করতে মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টতা কি তা জানতে পারলে আমরা আমাদের তরফ থেকে যা করার তা করব।



মন্তব্য