kalerkantho


দেশে ছয় মাসে অপহরণ গুমের শিকার ৫২ জন

সিজার, উৎপলসহ নিখোঁজ ৯ জনের হদিস মেলেনি, ফিরেছেন চারজন

রেজোয়ান বিশ্বাস   

১১ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



দেশে ছয় মাসে অপহরণ গুমের শিকার ৫২ জন

রাজধানীর বাদামতলীর ফল ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন গত রবিবার থেকে নিখোঁজ ছিলেন। গত বৃহস্পতিবার তিনি উত্তর শাজাহানপুরের ভাড়া বাসায় ফিরে এসেছেন।

তবে এর আগেই বুধবার তাঁর বৃদ্ধ বাবা আব্দুল মজিদ সরকার ছেলের শোকে হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

ওই ঘটনায় হওয়া সাধারণ ডায়েরির (জিডি) তদন্ত কর্মকর্তা শাজাহানপুর থানার এসআই সঞ্জয় কুমার বলেন, ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন কোথায় ছিলেন সে বিষয়ে পুলিশকে কিছুই বলেননি।

এ ছাড়া দক্ষিণ বনশ্রীর বাড়ি থেকে বেরিয়ে গত মঙ্গলবার থেকে নিখোঁজ ছিলেন ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান এভেনটিস স্যানোফির ফার্মাসিস্ট জামাল রহমান। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে তিনি বাসায় ফিরেছেন।

জামালের ফিরে আসার তথ্য জানিয়ে খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান বলেন, ‘জামাল জানিয়েছেন, তিনি অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছিলেন। একটি হাসপাতালে চিকিত্সাধীন ছিলেন। কিন্তু কোন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন সে বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে পারেননি। ’

এছাড়া গত মঙ্গলবার খিলগাঁও এলাকা থেকে আসাদুজ্জামান ও ফয়সাল রহমান নামের দুই ভাই নিখোঁজ হয়েছিলেন। তাঁরা ফিরে এসেছেন বলে গতকাল কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন আসাদুজ্জামানের স্ত্রী তানজিনা।

ওসি মশিউর রহমান জানান, সম্প্রতি তাঁর থানা এলাকা থেকে চারজনের নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় জিডি হয়। এর মধ্যে তিনজন ফিরে এসেছেন। কেবল নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ও জঙ্গি গবেষক ড. মুবাশ্বার হাসান সিজারের সন্ধান পাওয়া যায়নি।

এদিকে আগস্টের শেষ সপ্তাহ থেকে বুধবার পর্যন্ত রাজধানীতে নিখোঁজ ব্যক্তিদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ড. মুবাশ্বার হাসান সিজার ও সাংবাদিক উৎপল দাসসহ ৯ জনের হদিস মেলেনি গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত।

এ অবস্থায় পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) শহীদুল হক গতকাল বলেছেন, ‘দেশে গুম-অপহরণ নতুন কিছু নয়। ব্রিটিশ আমল থেকেই হয়ে আসছে। ’

এদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের ভিত্তিতে গতকাল জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা ফারহানা সাঈদ এক লিখিত বক্তব্যে জানান, চলতি বছর জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ছয় মাসে দেশে গুম বা অপহরণ হয়েছেন ৫২ জন। এর মধ্যে গত আড়াই মাসে রাজনীতিক, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, ব্যাংক কর্মকর্তা, ছাত্রসহ ৯ জন রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়েছেন।

নিখোঁজ অন্যজন প্রকাশনা সংস্থা করিম ইন্টারন্যাশনালের কর্ণধার তানভীর ইয়াসিন করিম গোয়েন্দা হেফাজতে রয়েছেন বলে জানা গেছে। জড়িত-সংশ্লিষ্টতার অভিযোগের ভিত্তিতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কোনো একটি সংস্থা তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। শীর্ষ এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা গতকাল কালের কণ্ঠকে এমন তথ্য দিয়েছেন।

তানভীর ইয়াসিন করিমকে গত বুধবার ভোরে গুলশানের বাসা থেকে সাদা পোশাকের লোকজন তুলে নিয়ে যায় বলে পারিবারিক সূত্র জানায়। তিনি করিম ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রকাশনা সংস্থার কর্ণধার। গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত তাঁকে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় করিমের চাচাতো ভাই বাদী হয়ে গুলশান থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন বলে জানান গুলশান থানার ওসি আবু বক্কর সিদ্দিক।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে নিখোঁজ ড. সিজারের কোনো সন্ধান গতকাল পর্যন্ত মেলেনি। তাঁর বাবা মোতাহার হোসেন বলেন, ‘আমার ছেলেকে কেউ তুলে নিয়ে গেছে। কিন্তু কে বা কারা কেন নিয়ে গেছে তা আমাদের জানা নেই। আমার ছেলের সঙ্গে কারো কোনো শত্রুতা ছিল না। স্ত্রীর সঙ্গে ডিভোর্স হলেও ওকে অপহরণ করার মতো কোনো শত্রুতা ছিল না। ’

সিজারের বোন তামান্না তাসমিন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা ভাইয়ের অপেক্ষায় আছি। জানি না সে কী করছে, কোথায় আছে। আমরা তাকে সম্পূর্ণ সুস্থ অবস্থায় ফেরত চাই। ভাইয়ের চিন্তায় মা-বাবা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি অনুরোধ, আমার ভাইকে এনে দিন। ’

তানভীর ইয়াসিন করিম ও ড. সিজার ছাড়াও গত আগস্টের শেষ সপ্তাহ থেকে এ পর্যন্ত আট ব্যক্তি নিখোঁজ হয়েছেন। এঁদের মধ্যে গত ২৭ আগস্ট গুলশান থেকে নিখোঁজ হন বেলারুশের অনারারি কনস্যুলার ও ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ কুমার রায়। যদিও খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ৩০ অক্টোবর অর্থাৎ নিখোঁজ হওয়ার ৬৫ দিন পর তিনি গোপনে নিজ বাড়িতে ফিরেছেন। তবে তাঁর পরিবার বিষয়টি নিয়ে কিছু বলতে চাচ্ছে না। আবার রাজধানীর হাজারীবাগে অনিরুদ্ধর মালিকানাধীন এলআইবি ট্যানারির নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলেন, গত ৩০ অক্টোবর অনিরুদ্ধ ফেরার পর চিকিত্সার জন্য ভারতে গেছেন। বর্তমানে তিনি সেখানেই আছেন। এ বিষয়ে তিনি কাউকে কিছু জানাতে নিষেধ করে গেছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে গুলশান থানার ওসি বলেন, ‘অনিরুদ্ধর ফেরা প্রসঙ্গে পরিবার থেকে পুলিশকে কিছু জানানো হয়নি। ’   

পূর্বপশ্চিমবিডিডটনিউজের সিনিয়র রিপোর্টার উৎপল দাস মতিঝিল এলাকা থেকে নিখোঁজ হন ১০ অক্টোবর। গতকাল পর্যন্ত তাঁর কোনো খোঁজ মেলেনি। উৎপল প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বুধবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান সাংবাদিকদের জানান, নিখোঁজ সাংবাদিকের সন্ধান পেতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করছে।

উৎপল দাসের সন্ধান চেয়ে গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সামনে মানববন্ধন করেছে সাংবাদিকদের সন্তানরা।

এ ছাড়া ২৬ আগস্ট ধানমণ্ডি থেকে নিখোঁজ হন কানাডার এক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইশরাক আহম্মেদ (২০)। বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের শরিক দল বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান নিখোঁজ হন ২৭ আগস্ট। ওই দিন রাত ১০টার দিকে নয়াপল্টন থেকে সাভারের আমিনবাজারে বাসার উদ্দেশে যাওয়ার পথে আমিনুর নিখোঁজ হন জানিয়ে পল্টন থানায় জিডি করা হয়। গত ২২ আগস্ট বিকেলে বিমানবন্দর সড়কে বনানী ফ্লাইওভারের নিচ থেকে অপহরণের শিকার হন বিএনপি নেতা ও এবিএন গ্রুপের কর্ণধার সৈয়দ সাদাত আহমেদ। ২৭ অক্টোবর রাত ১২টা ১০ মিনিটে মিঠুন চৌধুরী ও আশিক ঘোষকে সূত্রাপুরের ফরাশগঞ্জ লেবুপট্টি মার্কেটের সামনে থেকে একটি কালো গাড়িতে করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে তুলে নেওয়া হয়। এ দুজন নিখোঁজ হওয়ার বিষয়ে সূত্রাপুর থানায় জিডি করতে গেলে পুলিশ তা গ্রহণ না করে জানায়, কাউন্টার  টেররিজম ইউনিটের সদস্যরা তাঁদের তুলে নিয়ে গেছেন। গত ৭ নভেম্বর স্বজনরা সূত্রাপুর থানার ওসির সঙ্গে দেখা করে জিডি করতে চাইলেও তা নেওয়া হয়নি বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এভাবে ১০ অক্টোবর থেকে গতকাল পর্যন্ত রাজধানীতে সাংবাদিক, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, রাজনীতিকসহ অন্তত ৯ জন নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল পর্যন্ত তাঁদের কেউই ফেরেননি বলে পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।  

দেশে গুম-অপহরণ নতুন কিছু নয় : আইজিপি এদিকে শিক্ষক, সাংবাদিকসহ অনেকের নিখোঁজ হওয়ার খবরে দেশজুড়ে আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) শহিদুল হক বলেছেন, ‘দেশে গুম অপহরণ নতুন কিছু নয়। ব্রিটিশ আমল থেকেই হয়ে আসছে। এর জন্য পেনাল কোড তৈরি হয়েছে। ’

গতকাল সকালে চাঁদপুর পুলিশ লাইনসে নবনির্মিত ফটক উদ্বোধন, পুলিশ লাইনস জামে মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘আমরা তৎপর রয়েছি। গুম-অপহরণ ও নিখোঁজের এ ধরনের ঘটনায় আমরা ৭৫ ভাগই সফলতা পাই; ২৫ ভাগ পাওয়া যায় না। তবে সেই ২৫ ভাগ সাফল্য পেতেও আমরা তৎপর থাকি। ’

সম্প্রতি নিখোঁজ হওয়া ব্যক্তিদের সম্পর্কে জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, ‘প্রতিটি ঘটনার মোটিভ উদ্ধারে পুলিশ বাহিনী তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। এতে আমরা অবশ্যই সাফল্য পাব। আমাদের ওপর ভরসা রাখুন। ’ অতীতের চেয়ে বর্তমানে দেশের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনেক উন্নত দাবি করে আইজিপি বলেন, ‘আইন-শৃঙ্খলা ভালো বলেই কমনওয়েলথসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক অনুষ্ঠান ও খেলাধুলার পরিবেশ ভালো ছিল। ’

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের উদ্বেগ : নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. মুবাশ্বার হাসান সিজারসহ অন্যদের নিখোঁজের ঘটনায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। এ বিষয়ে গতকাল কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, নিখোঁজ ব্যক্তিদের দ্রুত খুঁজে বের করে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া এবং ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করার আহ্বান জানিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে চিঠি পাঠানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।    

কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেন, অপহরণ ও গুম মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। যেহেতু প্রত্যেক নাগরিকের নিরাপত্তা দেওয়া রাষ্ট্রের দায়িত্ব এবং স্বাধীনভাবে চলাফেরা করা প্রত্যেক নাগরিকের সাংবিধানিক অধিকার। তাই, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক মোবাশ্বারকে দ্রুত খুঁজে বের করে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া এবং ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করার আহ্বান জানাচ্ছি। মোবাশ্বারকে খুঁজে বের করতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যে তৎপরতা চালাচ্ছে তা আরো বাড়াতে হবে।

পাথরঘাটায় র‌্যাব পরিচয়ে তুলে নেওয়া হয়েছে নৈশপ্রহরীকে : পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি জানান, র‌্যাব পরিচয়ে বরগুনার পাথরঘাটা কলেজ চত্বর থেকে কর্তব্যরত এক নৈশপ্রহরীকে তুলে নিয়ে গেছে। তাঁর নাম মো. জাহাঙ্গীর হোসেন (৪৪)। গত বৃহস্পতিবার রাত দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। জাহাঙ্গীর হোসেন পাথরঘাটা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত ফকর উদ্দিন আকনের ছেলে।

পাথরঘাটা কলেজ সূত্রে জানা যায়, কলেজের নৈশপ্রহরী জাহাঙ্গীর ও জয়নাল রাতের মতো দায়িত্ব পালন করছিলেন। তাঁরা কলেজ ক্যাম্পাসের মধ্যে একটি টিনশেড ঘরে বসে ছিলেন। এর মধ্যে বৃহস্পতিবার রাত দেড়টার দিকে বাইরে গাড়ি ও মানুষের শব্দ শুনে জাহাঙ্গীর হোসেন ও জয়নাল বাইরে বের হলে আকস্মিকভাবে জাহাঙ্গীর হোসেনকে চার যুবক মোটরসাইকেলে তুলে নেয়। এ সময় সহকর্মী জয়নাল জানতে চাইলে তারা বলে, ‘আমরা র‌্যাবের লোক। ’ পরে বিষয়টি জয়নাল তাত্ক্ষণিক কলেজ কর্তৃপক্ষকে জানান।

পাথরঘাটা কলেজের অধ্যক্ষ মো. জাহাঙ্গীর আলম মল্লিক বলেন, ‘রাতে কলেজে কর্তব্য পালনের সময় র‌্যাব পরিচয়ে জাহাঙ্গীরকে তুলে নিয়ে যায়।

অপহূত জাহাঙ্গীরের ছোট ভাই আলতাফ হোসেন বলেন, ‘আমাদের ভাই অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে না। রাতে কলেজে প্রহরার কাজ করে দিনে পার্টটাইম চা বিক্রি করে। ’

পাথরঘাটা থানার ওসি এস এম জিয়াউল হক বলেন, ‘আমরা এ ব্যাপারে অবগত হয়েছি এবং প্রশাসনের একাধিক দপ্তরে জানানো হয়েছে। র‌্যাব পরিচয়কারী অজ্ঞাতপরিচয় চার যুবক র‌্যাব কি না এখন পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ’

 


মন্তব্য