kalerkantho


দুর্নীতিবিরোধী মানববন্ধন দেশজুড়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



দুর্নীতিবিরোধী মানববন্ধন দেশজুড়ে

দুর্নীতির বিরুদ্ধে গতকাল রাজধানীর বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীরাও রাজপথে দুদক আয়োজিত মানববন্ধনে অংশ নেয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

দুর্নীতির বিরুদ্ধে পথে নেমে এসে সরব প্রতিবাদ জানাল শিক্ষক-শিক্ষার্থী, অভিভাবকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার আড়াই লক্ষাধিক মানুষ। গতকাল শুক্রবার দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উদ্যোগে দেশজুড়ে আয়োজিত মানববন্ধনে অংশ নিয়ে তারা এই প্রতিবাদ জানায়।

সারা দেশের ৬৪ জেলার পাশাপাশি রাজধানীতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনের সড়কে আয়োজিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। মানববন্ধনে আরো অংশ নেন দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ, কমিশনার ড. নাসিরউদ্দীন আহমেদ ও এ এফ এম আমিনুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ঢাকার জেলা প্রশাসক মো. সালাহ্উদ্দীনও এতে যোগ দেন।

শিক্ষামন্ত্রী মানববন্ধনে বলেন, ‘দুদকের সব কার্যক্রমে আমাদের অকুণ্ঠ সমর্থন রয়েছে। দুদকের পক্ষ থেকে কার্যকর পদক্ষেপের কারণে দেশে দুর্নীতির পরিমাণ আগের চেয়ে কমেছে। স্কুলগুলোতে শিক্ষার্থী ভর্তিতে আগে যে পরিমাণ দুর্নীতি হতো, গত তিন বছরে তা অনেকটাই কমে এসেছে। দুদকের অগ্রিম সতর্কতামূলক পদক্ষেপের কারণে চলতি বছর ঢাকার নামিদামি স্কুলগুলোতে ভর্তি বাণিজ্যের নামে দুর্নীতি হয়নি। আমরা এবার দুদকের কার্যক্রমের প্রত্যক্ষ ফল পেয়েছি। ’

প্রশ্নপত্র ফাঁস প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘প্রশ্নপত্র রাখা হয় উপজেলা পর্যায়ে।

এর নিচে রাখার সুযোগ নেই। আর সে জন্য পরীক্ষা শুরুর দুই ঘণ্টা আগে প্রশ্নপত্র দিতে আমরা বাধ্য। কারণ এই প্রশ্নপত্র গ্রাম পর্যন্ত নিয়ে যেতে হয়। তাহলে কে প্রশ্ন বের করে দিচ্ছে? আমরা এমন একটি পরিবেশের মধ্যে আছি যে সব খুলেও বলতে পারি না, আবার সহ্যও করতে পারি না। কিন্তু আর সহ্য করব না। সত্যিকার অর্থে আমাদের মূল্যবোধসম্পন্ন শিক্ষক বেশি দরকার। ’ তিনি আরো বলেন, ‘শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে দুর্নীতি হচ্ছে না বলছি না। তবে এটুকু বলতে পারি, মন্ত্রণালয়ের যে পরিধি আছে সেখানে সরাসরি দুর্নীতি হয় না। ’

দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘দুর্নীতি নামের এই সমস্যার সমাধানে আমাদের সবার মানসিকতার পরিবর্তন প্রয়োজন। তবে কাজটি সহজ নয়। ’ তিনি বলেন, প্রবীণদের চেয়ে নবীনদের মানসিকতায় পরিবর্তন আনা সহজ। তাই কমিশন তরুণ প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের নিয়ে দুর্নীতি প্রতিরোধে রাজপথে নেমেছে। তিনি বলেন, মহান স্বাধীনতার এই মাসে দেশব্যাপী সততা সংঘের সদস্যদের স্বতঃস্ফূর্ত আহ্বানে আড়াই লক্ষাধিক শিক্ষার্থী (নবম ও দশম শ্রেণি), অভিভাবক, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি, সাধারণ মানুষ দুর্নীতিবিরোধী মানববন্ধনে রাজপথে নেমে এসেছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের মামলায় সাজার হার একপর্যায়ে ২০ শতাংশে নেমে এসেছিল। বিগত ২০১৬ সালে এই হার ৫৪ শতাংশে উন্নীত হয়েছে।


মন্তব্য