kalerkantho


পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যানের ছেলে রুবেলকে দুদকে তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যানের ছেলে রুবেলকে দুদকে তলব

রাজধানীর পূর্বাচলে অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে প্লট বরাদ্দের মামলা তদন্তের অংশ হিসেবে পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি এম এ হাশেমের ছেল আশফাক আজিজ রুবেলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। একই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া এম এ হাশেমের আরেক ছেলে শওকত আজিজ রাসেলকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিনবহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট রাসেলকে তিন মাসের জামিন দেন।

গতকাল রবিবার আশফাক আজিজ রুবেলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করে তাঁকে নোটিশ দেয় দুদক প্রধান কার্যালয়। আগামী ১৫ মার্চ সশরীরে দুদকে হাজির হয়ে জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হওয়ার জন্য আশফাক আজিজ রুবেলকে বলেছে দুদক। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন দুদকের উপপরিচালক মির্জা জাহিদুল আলম।

শওকত আজিজ রাসেল ও আশফাক আজিজের নামে রাজধানীর পূর্বাচলে ১০ কাঠা করে দুটি প্লট বরাদ্দ নেওয়ার অভিযোগে গত ৮ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর মতিঝিল থানায় মামলা করে দুদক। মামলায় রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যান ও সাবেক সচিব ইকবাল উদ্দিন চৌধুরী, শওকত আজিজ রাসেল ও আশফাক আজিজ রুবেলসহ ছয়জনকে আসামি করা হয়। এর পরদিনই অর্থাৎ ৯ ফেব্রুয়ারি ভোরে শওকত আজিজ রাসেলকে গুলশান থেকে ও ইকবাল উদ্দিন চৌধুরীকে পরীবাগ থেকে গ্রেপ্তার করে দুদক। ওই দিনই রাসেল ও ইকবাল চৌধুরীর জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়ে তাঁদের কারাগারে পাঠান ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত। এ অবস্থায় হাইকোর্টে আবেদন করেন রাসেল।

মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়, তাঁরা অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে রাজউকের ২০ কাঠা প্লট বরাদ্দ দেওয়া ও নেওয়ার কাজে জড়িত ছিলেন। ২০০৪ সালে রাজধানীর পূর্বাচলে শওকত আজিজ রাসেলের নামে ১০ কাঠা ও আশফাক আজিজ রুবেলের নামে ১০ কাঠা করে প্লট বরাদ্দ দেওয়া হয়। ইকবাল উদ্দিন চৌধুরী ২০০১ থেকে ২০০৪ পর্যন্ত সময়ে রাজউকের চেয়ারম্যান ছিলেন। ২০০৪ সালে পূর্বাচলে এই ২০ কাঠা প্লট বরাদ্দ দেওয়া হয় বলে মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।


মন্তব্য