kalerkantho


৯ জেলায় সড়কে প্রাণ গেল আরো ১৩ জনের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



৯ জেলায় সড়কে প্রাণ গেল আরো ১৩ জনের

দেশের আটটি জেলায় গতকাল শনিবার সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে আরো ১৩ জনের। তাদের মধ্যে কক্সবাজারের চকরিয়ায় চার পর্যটক, ঝিনাইদহে কলেজ শিক্ষক, রাজবাড়ী ও মাদারীপুরে দুজন শিক্ষার্থী রয়েছে।

টাঙ্গাইলে নিহত হয়েছে মা ও ছেলে। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে আরো অন্তত ২৮ জন। আগের দিন শুক্রবার রাতে চুয়াডাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন এক বই ব্যবসায়ী।

সম্প্রতি সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ে গেছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত বিভিন্ন জেলায় ৯ জন নিহত হয়। সড়ক দুর্ঘটনায় গত ১৫ দিনে দেড় শতাধিক লোক প্রাণ হারিয়েছে।

আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর: চকরিয়া (কক্সবাজার) : গতকাল সকাল সাড়ে ৮টার দিকে চকরিয়ার হারবাং ইউনিয়নের উত্তর হারবাংয়ের গয়ালমারা স্টেশনের কাছে একটি মাইক্রোবাস সড়কের পাশের গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে দুমড়েমুচড়ে যায়। এতে নিহত হন চারজন। আহত হয় শিশুসহ আরো আটজন।

রাজধানীর বাজার এলাকা থেকে মাইক্রোবাস নিয়ে তারা কক্সবাজার বেড়াতে যাচ্ছিল।

নিহতরা হলেন বগুড়ার মান্দা উপজেলার মো. স্বপন মিয়া ওরফে জিকুর স্ত্রী আয়েশা আক্তার শিল্পী (২০), তাঁর বোন মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার বিক্রমপুর কাহেরপাড়ার আসাদুজ্জামান বাপ্পীর স্ত্রী কুলসুমা আক্তার সুমি (২৫), মাইক্রোবাসের চালক রাজধানীর বাসাবো এলাকার আয়েত আলীর ছেলে আমির হোসেন (৩৫) ও গোলাম কিবরিয়া (৪০) নামের অন্য একজন।

আহতদের মধ্যে ছয়জনকে চকরিয়া পৌর শহরের বেসরকারি হাসপাতাল জমজম ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এক নারী ও এক শিশুকে পাঠানো হয়েছে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। মহাসড়কের চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হাসেম মজুমদার বলেন, চারজনের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

ঝিনাইদহ : সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার আঠারোমাইল এলাকায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক এহেতাশামুল হক নুতন (৫৩)। আহত হয়েছেন তাঁর সঙ্গী একই কলেজের সহযোগী অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম।

এহেতাশামুল হক ঝিনাইদহ শহরের বাঘা যতীন সড়কের বাসিন্দা। তিনি চুয়াডাঙ্গা কলেজের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক ছিলেন।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার জানান, সহকর্মী রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলমসহ মোটরসাইকেলে করে চুয়াডাঙ্গায় কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন এহেতাশামুল হক। ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা সড়কের আঠারোমাইল এলাকায় তিনি মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। মোটরসাইকেলটি সড়কের পাশের একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে দুই শিক্ষক গুরুতর আহত হন। ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর সকাল ১১টার দিকে এহেতাশামুল হক মারা যান। জাহাঙ্গীর ওই হাসপাতালে চিকিত্সাধীন।

নিহত এহেতাশামুল হক নুতন শিক্ষকতার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত ছিলেন। তিনি কালের কণ্ঠ’র পাঠক ফোরাম শুভসংঘের ঝিনাইদহ জেলা শাখার সহসভাপতি ছিলেন। সদালাপী ও সর্বজনশ্রদ্ধেয় এই শিক্ষকের অকালমৃত্যুতে তাঁর সহকর্মী, শিক্ষার্থীসহ সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

খবর পেয়ে ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু হাসপাতালে ছুটে যান এবং এহেতাশামুল হকের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। ঝিনাইদহ শুভসংঘের সভাপতি সাবেক অধ্যক্ষ তোবারক হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন জুলিয়াস এক বিবৃতিতে মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেছেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

রাজবাড়ী : রাজবাড়ীতে উচ্চ মাধ্যমিকের (এইচএসসি) প্রস্তুতি পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় অবৈধ নছিমনের চাপায় নিহত হয়েছেন কলেজ ছাত্রী নাছিমা খাতুন (১৮)। আহত হয়েছে আরো দুজন। নাছিমা জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের বকশিয়াবাড়ী গ্রামের অলেমান শেখের মেয়ে এবং একই ইউনিয়নের মীর মশাররফ হোসেন কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী। নাছিমার ভাই লোকমান শেখ জানান, তাঁর বোন তিন মাসের গর্ভবতী ছিলেন। পরীক্ষা শেষে তাঁদের বাড়ি যাওয়ার জন্য রিকশাভ্যানে ওঠেন। দুপুর ১২টার দিকে বালিয়াকান্দি-সোনাপুর সড়কের বেরুলী বাজার এলাকায় একটি নছিমন রিকশাভ্যানটিকে চাপা দেয়।

মাদারীপুর প্রতিনিধি : সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দরের হ্যামিলটন ব্রিজের কাছে রাস্তা পার হওয়ার সময় বাসের ধাক্কায় এক মাদরাসা ছাত্র নিহত হয়েছে। তার নাম ওবায়দুর মোল্যা (১০)। সে গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার মুনিরকান্দি গ্রামের রবিউল মোল্যার ছেলে। স্থানীয় মোল্যাদি মাদরাসার শিশু শ্রেণির ছাত্র ছিল সে।

টাঙ্গাইল : এক বছরের ছোট্ট ছেলে সাখাওয়াত (১) কয়েক দিন ধরেই অসুস্থ ছিল। তাকে ডাক্তার দেখাতে টাঙ্গাইল শহরে নিয়েছিলেন তার বাবা রাজীব হোসেন ও মা সাথী আক্তার (২১)। ডাক্তার দেখিয়ে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার করটিয়া গ্রামে নিজ বাড়ির উদ্দেশে রওনা হয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু বাড়ি আর ফেরা হয়নি তাঁদের। দ্রুতগতির একটি ট্রাক রাজীবের স্ত্রী ও শিশুপুত্রের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। দুর্ঘটনায় তিনিসহ আহত হয়েছেন আরো চারজন। গতকাল দুপুরের দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের টাঙ্গাইল সদর উপজেলার আশেকপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এলেঙ্গা হাইওয়ে ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) শাহআলম জানান, অটোরিকশাটি টাঙ্গাইল শহর থেকে যাত্রী নিয়ে করটিয়া যাচ্ছিল। আশেকপুর এলাকায় ঢাকা থেকে দিনাজপুরগামী তেলভর্তি একটি ট্রাক অটোরিকশাটিকে চাপা দেয়।

নিহত সাথী আক্তারের বড় ভাই আশরাফুল ইসলাম সবুজ জানান, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার সোনালিয়া দক্ষিণপাড়ায় তাঁদের বাড়ি। ভাই-বোনদের মধ্যে সবার ছোট সাথীর বিয়ে হয় দুই বছর আগে। ভগ্নিপতি রাজীব তাঁদের পরিবারের সবার বড়+। তিনি করটিয়ায় ব্যবসা করেন।

মাগুরা : মাগুরা শহরের পারনান্দুয়ালী এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় শুকুর আলী (৩২) নামের এক নছিমনচালক নিহত হয়েছেন। তিনি মাগুরা সদর উপজেলার বাড়িয়ালা গ্রামের শামসুজ্জামানের ছেলে। মাগুরা ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক মো. সালাউদ্দিন জানান, ইট নিয়ে সদর উপজেলার রামনগর এলাকা থেকে শহরের দিকে পথে ঢাকা থেকে মাগুরামুখী একটি কাভার্ড ভ্যান পেছন থেকে শুকুর আলীর নছিমনকে ধাক্কা দেয়। এতে ছিটকে পড়ে প্রাণ হারান তিনি।

দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত এবং ছয়জন আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে চারজনের অবস্থা গুরুতর। গতকাল সকাল সাড়ে ৮টার দিকে দিনাজপুর-পঞ্চগড়-রংপুর মহাসড়কের পাটবীজ গবেষণা কেন্দ্রের সামনে বাসচাপায় নিহত হয়েছেন নশিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের অফিস সহকারী রফিকুল ইসলাম (৪০)। আহত হয়েছেন স্কুলটির শিক্ষক মজিবর রহমান। এ ছাড়া সকাল ১১টার দিকে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের আমবাড়ী এলাকায় ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের বাসের ধাক্কায় আহত হয়েছে ইজিবাইক আরোহী পাঁচজন।

পঞ্চগড় : গতকাল ভোর ৫টার দিকে বোদা উপজেলার সাকোয়া এলাকায় মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা লেগে মারা গেছেন একজন। তাঁর নাম মনোয়ার হোসেন (৩৫)। আহত হয়েছে চালকসহ আরো চারজন। নিহত মনোয়ার হোসেন নীলফামারীর বেংহারী শাহাপাড়া এলাকার ছবির উদ্দীনের ছেলে।

চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার বন্ডবিল রেলগেটের অদূরে ব্যাটারিচালিত ভ্যানের সঙ্গে ধাক্কা লেগে নিহত হয়েছেন মোটরসাইকেলচালক সানোয়ার হোসেন (২৮)। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সানোয়ার আলমডাঙ্গার কালীদাসপুর গ্রামের সুন্নত আলীর ছেলে এবং আলমডাঙ্গা শহরের বইয়ের দোকান আদর্শ লাইব্রেরির স্বত্বাধিকারী। এ ঘটনায় ভ্যানচালকসহ তিনজন আহত হয়।


মন্তব্য