kalerkantho


টাস্কফোর্স হচ্ছে বিমানের জন্য

৫ সদস্যের কমিটি

সরোয়ার আলম   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



টাস্কফোর্স হচ্ছে বিমানের জন্য

বিমানের সুনাম ফিরিয়ে আনতে টাস্কফোর্স গঠন করা হচ্ছে। এটি হলে বিমান পরিচালনা পর্ষদের হাতে তেমন কোনো ক্ষমতা থাকবে না।

বিমানের বিষয়ে কার্যকরী ক্ষমতার অধিকারী হবেন স্বয়ং মন্ত্রী।

গতকাল বৃহস্পতিবার পাঁচ সদস্যের একটি পর্যালোচনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। তবে সদস্যদের নাম চূড়ান্ত করা হয়নি এখনো। এ কমিটি সার্বিক পর্যালোচনার পর টাস্কফোর্স গঠনের বিষয়ে সুপারিশ করবে।

কমিটি গঠনের এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসে উৎকণ্ঠা দেখা দেয়। কে চাকরি হারাবেন, কে পদোন্নতি পাবেন, কে চাকরি পাবেন—এসব ছিল আলোচনার বিষয়। আগামী সপ্তাহে নিয়োগ করা হবে চারজন পরিচালক।

এ নিয়ে এখনই শুরু হয়ে গেছে লবিং।

বিমান সূত্র জানায়, পাঁচ সদস্যের কমিটিতে মন্ত্রণালয়ের দুজন, বিমানের একজন, কাস্টমসের একজন ও সিভিল এভিয়েশন অথরিটির একজন কর্মকর্তা থাকবেন।

তাঁদের নাম রবিবার চূড়ান্ত করা হবে। পদাধিকারবলে মন্ত্রী ও সচিব টাস্কফোর্সের উপদেষ্টা হবেন।

গতকাল সকালে টাস্কফোর্স গঠনের ফাইলে সই করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। তবে বিকেল পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো চিঠি বা নির্দেশনা যায়নি বিমানে।

টাস্কফোর্স গঠন বিমান পরিচালনা পর্ষদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হবে কি না—জানতে চাইলে এমডি বলেন, চিঠি বা নির্দেশনার কাগজ না দেখে বলা যাবে না।

পর্যালোচনা কমিটি কিভাবে কাজ করবে—জানতে চাইলে মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, আগে বিমানের সব সেক্টরের প্রধান প্রধান সমস্যা চিহ্নিত করা হবে। গত চার দশকে বিমানের খাতওয়ারি লাভ-লোকসানের হিসাব বিশ্লেষণ করা হবে। ফাইল ওয়ার্কিংয়ের পাশাপাশি অপারেশনাল কাজের বিবরণ নেওয়া হবে। তারপর সুপারিশ করা হবে। তিনি বলেন, আসলে টাস্কফোর্সের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়কে অতিরিক্ত ক্ষমতা দেওয়া হলো।

উল্লেখ্য, ১৯৭২ সালের ৪ জানুয়ারি বিমান করপোরেশন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব ছিল মন্ত্রীর কাঁধে। ২০০৭ সালে বিমানকে প্রাইভেট লিমিটেড কম্পানি করা হয়। তখন পরিচালনার সব ক্ষমতা ন্যস্ত হয় বিমান পর্ষদের হাতে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানের যান্ত্রিক ত্রুটির ঘটনাকে কেন্দ্র করে গঠিত তিনটি তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের সুপারিশের ভিত্তিতে টাস্কফোর্স গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হয়। মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে সম্মতি নেন এবং গতকাল পর্যালোচনা কমিটি গঠনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেন।

বিমানমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ঘটনার পর গঠিত তিনটি তদন্ত কমিটির সুপারিশের সারসংক্ষেপ অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছিল। গত সপ্তাহে অনুমোদিত হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে টাস্কফোর্স গঠনের উদ্যোগ নেওয়া হলো।


মন্তব্য