kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হত্যার দায়ে সৌদি প্রিন্সের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



হত্যার দায়ে সৌদি প্রিন্সের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

নিজের দেশের এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যার দায়ে সৌদি আরবে এক প্রিন্সের (যুবরাজ) মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্ত প্রিন্সের নাম তুর্কি বিন সৌদ আল কবির।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, তিন বছর আগে রাজধানী রিয়াদে কথাকাটাকাটির জের ধরে আদেল বিন সোলাইমান আল-মোহাইমিন নামের এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করেন প্রিন্স তুর্কি বিন সৌদ আল কবির। এই অপরাধে রিয়াদেই প্রিন্সের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

তবে প্রিন্সের মৃত্যুদণ্ড রিয়াদের কোথায়, কখন, কী পদ্ধতিতে কার্যকর করা হয়েছে, তা বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়নি। অবশ্য সৌদি আরবে সাধারণত শিরশ্ছেদের মাধ্যমে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়ে থাকে।

চলতি বছর সৌদিতে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ১৩৪তম ব্যক্তিটি হলেন প্রিন্স তুর্কি বিন সৌদ আল কবির। সৌদি রাজপরিবারের কোনো সদস্যের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা একটি বিরল ঘটনা। এর আগে আরেক প্রিন্স ফয়সাল বিন মুসাইদ আল সৌদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছিল, যিনি ১৯৭৫ সালে তাঁর চাচা বাদশাহ ফয়সালকে গুলি করে হত্যা করেছিলেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, নিজ দেশের নাগরিককে গুলি করে হত্যার কথা স্বীকার করেছিলেন প্রিন্স তুর্কি বিন সৌদ আল কবির। তাঁর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঘটনা দেশের প্রত্যেক নাগরিককে এই নিশ্চয়তা দেবে যে নিরাপত্তা রক্ষা ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় সরকার তৎপর।

সৌদির গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, আদেল বিন সোলাইমান আল-মোহাইমিনকে গুলি করে হত্যার দায়ে প্রিন্স তুর্কিকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য রাজপরিবারের পক্ষ থেকে নিহত মোহাইমিনের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু মোহাইমিনের পরিবার ব্লাড মানি (রক্তের বদলে ক্ষতিপূরণ) নিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে খুনির (প্রিন্স) মৃত্যুদণ্ডের আরজি জানায়।

সৌদি আরবে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তদের বেশির ভাগই খুনের বা মাদকপাচারের দায়ে দণ্ডিত হয়ে থাকে। তবে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ‘সন্ত্রাসবাদের’ অভিযোগে এক দিনে প্রায় ৫০ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল, যাদের মধ্যে শিয়া সম্প্রদায়ের প্রখ্যাত ধর্মীয় নেতা নিমর আল নিমরও ছিলেন।

প্রিন্সের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের পর সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ এক রাজকীয় ডিক্রিতে বলেছেন, দেশে অন্যায়ভাবে সাধারণ মানুষের রক্তপাতকারী ব্যক্তি যেই হোক না কেন আল্লাহর আইন অনুযায়ী তাদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। সূত্র : বিবিসি, এএফপি, সিএনএন।


মন্তব্য