kalerkantho

শনিবার । ২১ জানুয়ারি ২০১৭ । ৮ মাঘ ১৪২৩। ২২ রবিউস সানি ১৪৩৮।


যৌন হেনস্তার বিস্তর অভিযোগ

তরী ডুবছে ট্রাম্পের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



তরী ডুবছে ট্রাম্পের

রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের ২০০৫ সালের ভিডিওটিকে হিমশৈলের চূড়ার সঙ্গে ধাক্কা বলে ধরে নেওয়া যায়, যা তাঁর প্রচারের তরী ফুটো করে দিয়েছে। আর গত বুধবার থেকে যৌন হেনস্তার যত অভিযোগ আসছে তাতে নিশ্চিতভাবেই বলা যায়, ট্রাম্পের নৌকায় পানি ঢুকতে শুরু করেছে। বুধবার দুই নারী অভিযোগ করেছেন, ট্রাম্প অসম্মানজনকভাবে তাঁদের স্পর্শ করেছেন। এ ধরনের অভিযোগকারীর সংখ্যা প্রতিনিয়তই বাড়ছে।

আর একই সঙ্গে জনমত জরিপগুলো বলছে, ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের সঙ্গেও তাঁর ব্যবধান বাড়ছে। ট্রাম্প প্রসঙ্গে উদ্বেগ বাড়ছে শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই নয় বরং বাইরের দেশগুলোতেও। জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক প্রধান জেইদ রাদ আল হুসেইন মন্তব্য বরেছেন, ট্রাম্প নির্বাচিত হলে গোটা বিশ্ব বিপদে পড়বে। তিনি হবেন একজন বিপজ্জনক প্রেসিডেন্ট। অস্ট্রেলিয়ার এক প্রাদেশিক পার্লামেন্ট ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট পদের যোগ্য নন বলে নিন্দা প্রস্তাব এনেছে।  

নতুন অভিযোগ : মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে কয়েকটি পত্রিকায় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অন্তত চার নারী যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন। নিউ ইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে দুজনের অভিযোগ। দুজনেরই দাবি, ট্রাম্প বহুদিন আগে অত্যন্ত কুরুচিকর ব্যবহার করেছিলেন তাঁদের সঙ্গে। দুজনেরই অভিযোগ, ট্রাম্প ওই সময় তাঁদের সঙ্গে এমন ব্যবহার করেছিলেন, যা থেকে তাঁদের মনে হয়েছে, শুধু ভুলবশত অমন আচরণ করেননি। বরং ওই স্বভাব ট্রাম্পের মজ্জাগত। দ্বিতীয় বিতর্কে নারীর সঙ্গে অসংগত আচরণের বিষয়টি উঠছিল। ট্রাম্প তখন পুরো বিষয় পুরোপুরি বাতিল করে দেন।

অভিযোগকারীদের একজন, ম্যানহাটানের বাসিন্দা জেসিকা লিডস ই-মেইলে তাঁর অভিযোগ জানিয়েছেন, ‘ট্রাম্প মিথ্যা বলছে দেখে (দ্বিতীয় প্রেসিডেনশিয়াল বিতর্কে) আমার  তো টেলিভিশনের স্ক্রিনেই ঘুষি মারতে ইচ্ছা করছিল। ’ এই ম্যানহাটান বাসিন্দার এখন বয়স ৭৪। জেসিকা বলেছেন, ‘সেটা তিন দশকেরও বেশি আগেকার কথা। আমার বয়স তখন ৩৮। থাকি কানেকটিকাটে। তখন একটি কাগজ সংস্থার বাণিজ্যিক প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করি। একবার একটি কাজে বিমানে নিউ ইয়র্ক যাচ্ছিলাম। বিমানে উঠে প্রথম শ্রেণির একটি সিটে বসি। কিন্তু কোনো এক কারণে এক বিমানসেবিকা আমাকে ওই সিটটি ছেড়ে দিয়ে একটি দুই সিটের কেবিন গিয়ে বসতে বলেন। সেখানে গিয়েই দেখি, আমার পাশের সিটে বসে রয়েছেন ট্রাম্প। এর আগে ট্রাম্পের সঙ্গে আমার পরিচয় ছিল না। সিটে বসার মিনিট পঁয়তাল্লিশের মধ্যেই ট্রাম্প আমার সঙ্গে যেচে আলাপ করেন। জানতে চান আমি বিবাহিত কি না। আমি যখন বলি সদ্য আমার বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে, তখনই ট্রাম্প আমার গা ঘেঁষে বসার চেষ্টা করতে থাকেন। হঠাৎই আমার মুখের ওপর ঝুঁকে পড়ে চুমু খান। অক্টোপাসের মতো আমাকে জাড়িয়ে ধরলে আমি চেঁচিয়ে উঠি। উঠে গিয়ে বিমানের পেছনের দিকের একটি সিটে চলে যাই। ’ জেসিকা অবশ্য তখন লিখিতভাবে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ করেননি বলে জানিয়েছেন।

এত বছরের পুরনো ঘটনা প্রকাশ করা প্রসঙ্গে জেসিকা বলেন, ‘টেলিভিশনে ট্রাম্পকে মিথ্যা কথা বলতে দেখেই মেজাজ গরম হয়ে গিয়েছে আমার। এই মিথ্যাবাদী লোকটা আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হতে চাইছে? তখনই ঠিক করি কথাগুলো জানাব। ’

আরেক অভিযোগকারী ওহাইয়োর বাসিন্দা র‌্যাচেল কুক্সও দ্বিতীয় বিতর্ক দেখেই খেপে ওঠেন। তিনি বলেন, “সেটা ২০০৫ সাল। তখন আমার ২২ বছর। ম্যানহাটানের ‘ট্রাম্প টাওয়ারে’ একটি রিয়েল এস্টেট লগ্নি সংস্থায় কাজ করতাম। একদিন সকালে অফিসে এলিভেটরে উঠতে গিয়ে ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা। ট্রাম্পের সংস্থার সঙ্গে আমার অফিসের ব্যবসায়িক সম্পর্ক রয়েছে বলে আমিই প্রথম কথা বলি। তাতে ট্রাম্প নিজেই হাত বাড়িয়ে আমার সঙ্গে করমর্দন করেন। এর পরই আমাকে জড়িয়ে ধরে চুমু খান। আমার মনে হয়নি সেটা উনি হঠাৎ করেই আবেগের বশে করে ফেলেছেন। বরং বেশ ভালো করেই বুঝেছিলাম, তিনি ইচ্ছা করেই আমার সঙ্গে ওই অভব্য আচরণ করেছিলেন। আমার মনে হয়েছিল, ট্রাম্পের কাছে মেয়েদের কোনো দামই নেই। কোনো সম্মানই নেই। ”

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নারীদের সম্মানহানির অভিযোগ অবশ্য এবারই প্রথম নয়। এর আগ গত সোমবার অভিযোগ করেন ১৯৯৭ সালে মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী মিস উটাহ টেম্পল টাগার্ট ম্যাকডোয়েল। তিনি জানান, ট্রাম্পেরই এক কর্মচারী তাঁকে একা কোনো কক্ষে ট্রাম্পের সঙ্গে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন।

ট্রাম্প শিবিরের অস্বীকার : এই অভিযোগুলো অবশ্য ট্রাম্প বা তাঁর শিবির স্বীকার করেনি। উল্টো তারা নিউ ইয়র্ক টাইমসের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে, পত্রিকাটি ‘সমন্বয় করে ট্রাম্পের চরিত্রহননে উঠেপড়ে লেগেছে’। পত্রিকাটির অনুমোদিত প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের পক্ষে সমর্থন টানতেই কাজটি করছে তারা। এরই মধ্যে ট্রাম্পের উকিল পত্রিকাটিতে একটি চিঠিও পাঠিয়েছেন, যেখানে বলা  হয়েছে, অভিযোগ আনতে এই নারীরা এত বছর অপেক্ষা করলেন কেন? যদিও সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের বহু আগের চার সাবেক বান্ধবীকে ট্রাম্প দ্বিতীয় বিতর্কের দিন গণমাধ্যমের সামনে হাজির করেন এবং এমন আরো বেশ কয়েকজন নারীকে আগামী দিনগুলোতে ভোটারদের সামনে আনা হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে তাঁর শিবির থেকে।

জরিপে হিলারি আরো এগিয়ে : রয়টার্স/ইপসোস পরিচালিত নতুন জরিপে হিলারির চেয়ে আরো পিছিয়ে পড়েছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। হিলারির চেয়ে এখন ৮ পয়েন্ট পিছিয়ে আছেন ট্রাম্প।

নারীদের নিয়ে অশ্লীল মন্তব্য করা ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার যোগ্যই নন—প্রতি পাঁচজনে একজন রিপাবলিকানের এখন এমনটিই মত। গত রবিবারের দ্বিতীয় বিতর্কের পর রয়টার্স/ইপসোস যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যে জরিপ চালায়। মঙ্গলবার জরিপের ফল প্রকাশ করা হয়। এই মতামত জরিপে মোট দুই হাজার ৩৮৬ জন অংশ নিয়েছে, যাদের মধ্যে এক হাজার ৮৩৯ জন হিলারি-ট্রাম্পের দ্বিতীয় বিতর্ক অনুষ্ঠান টেলিভিশনে দেখেছে।

আগাম ভোটে এগিয়ে হিলারি : নির্বাচনের আর মাত্র ২৬ দিন বাকি। এর মধ্যে প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ ‘আগাম ভোট’ দিয়েছে। তাদের মধ্যে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও আছেন। কেন্দ্রফেরত ভোটারদের মতামতের ভিত্তিতে একাধিক জরিপ সংস্থা জানিয়েছে, আগাম ভোটে হিলারি এগিয়ে আছেন। ‘আর্লি ভোটিং’ নামে পরিচিত এই আগাম ভোটের ব্যবস্থা গত চারটি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

২০০৮ ও ২০১২ সালে আগাম ভোট দেওয়া লোকের সংখ্যা ছিল মোট ভোটারের ৩০ শতাংশের বেশি। বারাক ওবামার জয়ের পেছনে এই ভোটারদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চলতি বছরের নির্বাচনে সম্ভবত ৪০ শতাংশের বেশি মানুষ আগাম ভোটের সুযোগ নেবে।

নিউ ইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, আগাম ভোটের বর্তমান ধারা যদি বজায় থাকে, তাহলে আগামী ৮ নভেম্বর ভোটগ্রহণের আগেই সম্ভবত হিলারি প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হবেন।

‘ট্রাম্প হবেন বিপজ্জনক প্রেসিডেন্ট’ : প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে ট্রাম্প হবেন একজন বিপজ্জনক প্রেসিডেন্ট এবং গোটা বিশ্ব বিপদে পড়বে বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক প্রধান জেইদ রাদ আল হুসেইন। সংখ্যালঘুসহ অসহায় জনগোষ্ঠী নিয়ে ট্রাম্পের দৃষ্টিভঙ্গি এবং জিজ্ঞাসাবাদে নির্যাতনের অনুমতির (আন্তর্জাতিক আইনে যা নিষিদ্ধ) যে কথা ট্রাম্প বলেছেন তা ‘খুবই গোলমেলে ও বিরক্তিকর’ বলে মনে করেন তিনি। বুধবার জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। সূত্র : বিবিসি, দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস, এনবিসি, দ্য পলিটিকো।


মন্তব্য