kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


এমপিকে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে জামায়াত নেতারা

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি   

২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



এমপিকে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে জামায়াত নেতারা

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুল ওদুদের হাতে ফুল দিয়ে গতকাল আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগ দেন হত্যা, নাশকতাসহ একাধিক মামলার আসামি সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা মাওলানা সোহরাব আলী। ছবি : কালের কণ্ঠ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে দলীয় সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদের হাতে ফুলের তোড়া তুলে দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগ দিল জামায়াত ও বিএনপির পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী। এসব নেতাকর্মীর মধ্যে কারো কারো বিরুদ্ধে নাশকতার একাধিক মামলা রয়েছে।

গতকাল শনিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে জামায়াত-বিএনপির এসব নেতাকর্মী আওয়ামী লীগে যোগ দেয়। তাদের বরণ করে নেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ।

এর আগেও চাঁপাইনবাবগঞ্জে জামায়াত-বিএনপি আরো বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছে।

গত ২১ সেপ্টেম্বর কালের কণ্ঠে চাঁপাইনবাবগঞ্জে আওয়ামী লীগের কর্মকাণ্ড নিয়ে একটি সংবাদ ছাপা হয়েছে। এ সংবাদে বলা হয়েছে, বিএনপি ও জামায়াত থেকে যোগ দেওয়া নেতাকর্মীদের ওপরই সংসদ সদস্য ওদুদের আস্থা। অন্যদিকে দলের ত্যাগী নেতাকর্মীরা এখন কোণঠাসা হয়ে পড়েছে।

গতকাল যোগদান অনুষ্ঠানে জেলা, পৌরসভা ও সদর উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়ন শাখা আওয়ামী লীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। তবে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মইনুদ্দীন মণ্ডল, দলটির পৌর শাখার সভাপতি শরিফুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন না।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইকবাল মাহমুদ খান খান্না। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘জামায়াতের চারজন নেতা যোগদান করেছেন। বাকিদের অধিকাংশই সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বিএনপির নেতাকর্মী। তাদের সংখ্যাই প্রায় ৫০০। ’

এসব নেতাকর্মীর মধ্যে রয়েছে সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান জেলা জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য মাওলানা সোহরাব আলী, জামায়াতের শ্রমিক সংগঠন শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো. আফরোজ জুলমাত আলী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহিলা মাদ্রাসার অধ্যক্ষ জামায়াত নেতা আব্দুল্লা-হেল-কাফী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মসিদুল হক মাসুদ, বিএনপি নেতা মোতাহার আলী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর শওকত আলী, আলাতুলী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খোয়াজ আলী। অসুস্থতার কারণে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর জামায়াত নেতা মিজানুর রহমান অনুষ্ঠানে উপস্থিত না হতে পারলেও চিঠি দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন। জামায়াত-বিএনপির এসব নেতার নেতৃত্বে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা, আলাতুলি, চর অনুপনগর ও শাহজাহানপুর ইউনিয়নের অন্য নেতাকর্মীরা যোগদান করে।

তাদের মধ্যে জামায়াত নেতা সোহরাব আলী, মিজানুর রহমান ও আফরোজ জুলমাত আলীর বিরুদ্ধে হত্যা, পুলিশের ওপর হামলাসহ নাশকতার একাধিক মামলা রয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায়।

যোগদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, সোহরাব আলী, আফরোজ জুলমাত আলী ও মাসিদুল হক মাসুদ।

সংসদ সদস্য ওদুদ সাংবাদিকদের বলেন, “তারা (বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মী) এখন ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগান দিচ্ছে, এটা আমাদের কৃতিত্ব। আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে যদি তারা সংশোধন হয় তাহলে ক্ষতি কী?”

জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মইনুদ্দীন মণ্ডল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘গতকাল (শুক্রবার) ফোনে আমাকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছিল। আমি বিশেষ কাজে ব্যস্ত ছিলাম। কারা কারা যোগদান করেছেন এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। ’

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়ানো দলের আদর্শবিরোধী কাজ। এটা সংগঠনের জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে না। ’


মন্তব্য