kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


প্রধানমন্ত্রীর গণসংবর্ধনা

বিমানবন্দরে অস্ত্রসহ যুবলীগ নেতা আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



বিমানবন্দরে অস্ত্রসহ যুবলীগ নেতা আটক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গণ-অভ্যর্থনা দেওয়ার কর্মসূচি থেকে সরকার সমর্থক সংগঠন যুবলীগের এক নেতাকে পিস্তলসহ আটক করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার বিকেল সোয়া ৫টার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের অদূরে বলাকা ভবনের সামনে থেকে সেলিম খান নামের ওই নেতাকে আটক করা হয়।

বিমানবন্দর থানার ওসি নুর ই আজম কালের কণ্ঠকে বলেন, সেলিম খানকে বলাকা ভবনের সামনের রাস্তা থেকে পিস্তলসহ আটক করা হয়। তিনি ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তরের তথ্যবিষয়ক সম্পাদক। আগ্নেয়াস্ত্রটি তাঁর নামে লাইসেন্স করা।

ওসি বলেন, অস্ত্রটি লাইসেন্স করা  হলেও প্রধানমন্ত্রীর কোনো কর্মসূচিতে কেউ আগ্নেয়াস্ত্র আনতে পারেন না বলেই তাঁকে আটক করা হয়েছে। আগ্নেয়াস্ত্রটিতে দুই রাউন্ড গুলিও ছিল। রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সেলিমকে বিমানবন্দর থানায় আটকে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ চলছিল।

যুবলীগ নেতা সেলিম খান পুলিশকে জানিয়েছেন, অস্ত্রটি তিনি ভুল করে সঙ্গে রেখেছিলেন। তবে পুলিশ বলছে, আগে থেকেই যেখানে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে সেখানে অস্ত্র নিয়ে ঢোকার উদ্দেশ্য ভিন্ন হতে পারে। তাঁকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তাঁর সঙ্গে সন্ত্রাসীদের কোনো সম্পর্ক আছে কি না, কারো প্ররোচনায় তিনি অস্ত্রটি সঙ্গে রেখেছিলেন কি না, কোনো ধরনের অঘটনের পরিকল্পনা করেছিলেন কি না সেসব বিষয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

সেলিম খান সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিমানবন্দরের চোরাকারবারিদের সঙ্গে তাঁর ভালো সম্পর্ক রয়েছে। বিমানবন্দরকেন্দ্রিক যেসব অপরাধীর দাপট রয়েছে তাদের তিনি কৌশলে নিয়ন্ত্রণ করেন। এ কারণে প্রতিপক্ষের অপরাধীচক্রকে মোকাবিলা করতেই তিনি লাইসেন্স করা অস্ত্র সব সময় সঙ্গে রাখেন।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরা উপলক্ষে কয়েক দিন ধরেই আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে গণ-অভ্যর্থনার প্রস্তুতি চলছিল। গত বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের কর্মসূচিতে সুশৃঙ্খলভাবে এবং প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার স্বার্থে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এ অবস্থায় গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী এমিরেটস এয়ারলাইনসের বিমানটি অবতরণ করে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। প্রধানমন্ত্রীকে গণ-অভ্যর্থনা দিতে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো বিমানবন্দরের সামনের সড়কগুলোতে অপেক্ষায় থাকে। এ সময় বিমানবন্দর ও আশপাশের সড়কগুলোতে কড়া নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়। সন্দেহভাজনদের তল্লাশি করার একপর্যায়ে যুবলীগের ওই নেতার কাছে পিস্তল পাওয়া যায়।


মন্তব্য