kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জাতিসংঘে বিদায়ী ভাষণ

শরণার্থীদের পাশে দাঁড়াতে ঐক্যের ডাক ওবামার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



শরণার্থীদের পাশে দাঁড়াতে ঐক্যের ডাক ওবামার

শরণার্থীদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। নিরাপত্তাহীন বিশ্ববাস্তবতায় বিভিন্ন দেশের মধ্যে সমন্বয় ও ঐক্যের ওপরও গুরুত্বারোপ করেছেন তিনি।

বলেছেন, ‘একটুখানি ঠাঁইয়ের জন্য মাথা কুটে মরছে শরাণার্থীরা। তাদের সাহায্যের জন্য আমাদের আরো উদার হতে হবে। শরণার্থীদের সহায়তায় যে অঙ্গীকারের ডাক দেওয়া হয়েছে তার পাশে দাঁড়ানো উচিত সবার। আমরা বিপদে পড়া লোকগুলোর সাহায্যে এগিয়ে আসলে বিশ্ব আরো নিরাপদ হয়ে উঠবে। ’

গতকাল মঙ্গলবার সকালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনের বার্ষিক বিতর্কে দেওয়া বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। জাতিসংঘে ওবামার এটাই বিদায়ী ভাষণ। প্রেসিডেন্ট হিসেবে বর্তমান মেয়াদের শেষ প্রান্তে রয়েছেন তিনি। আগামী নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে।  

ভাষণে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক শরণার্থী সংকট এবং বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসবাদের হুমকি মোকাবিলায় একটি নতুন কর্মপদ্ধতি গ্রহণের ওপরও জোর দেন ওবামা। জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় অগ্রগতি এবং এ-সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টার ওপরও জোর দেন তিনি।

ওবামা বলেন, ‘স্নায়ুযুদ্ধের অবসানের পর আমরা একটি শতাব্দীর এক-চতুর্থাংশ সময় পেরিয়ে এসেছি। নানা দিক থেকে পৃথিবী এখন আগের তুলনায় কম সহিংস। আগের চেয়ে বেশি সমৃদ্ধ। যুক্তরাষ্ট্র নিজের সংকীর্ণ স্বার্থের বাইরে চিন্তা করতে সক্ষম হয়েছে। ভালো কিছুর জন্য বলপ্রয়োগ করেছে। ’

এ মুহৃর্তে বিশ্ব শান্তির হুমকি হিসেবে পারমাণবিক অস্ত্রের বিস্তার এবং জিকা ভাইরাসের প্রতি বিশ্ব সম্প্রদায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি। দক্ষিণ চীন সাগরের বিরোধপূর্ণ অঞ্চল নিয়েও কথা বলেন ওবামা। বিতর্কের চেয়ে এ বিষয়ে শান্তিপূর্ণ সমাধানের ওপর জোর দেন তিনি। এ ছাড়া রুশ জাতীয়তাবাদ এবং রাশিয়ার প্রতিবেশীদের বিষয়ে মস্কোর হস্তক্ষেপের সমালোচনা করেন তিনি। বলেন, ‘এর ফলে রাশিয়ার মর্যাদা খর্ব হবে।   তার সীমানা কম নিরাপদ হবে। ’ সূত্র : এএফপি, বিবিসি, টেলিগ্রাফ।


মন্তব্য