kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মাত্র ২ মিনিটেই ইস্কাটন থেকে ওয়্যারলেস

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



মাত্র ২ মিনিটেই ইস্কাটন থেকে ওয়্যারলেস

মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের ইস্কাটন-ওয়্যারলেস অংশ গতকাল উদ্বোধন করা হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর ইস্কাটন থেকে মগবাজারের ওয়্যারলেস পর্যন্ত এক কিলোমিটার সড়ক চলাচলে কখনো আধাঘণ্টা বা এর চেয়েও বেশি সময় লেগে যেত। সড়কে নির্মাণসামগ্রী ও কাদাপানি ভেঙে এ পথে চলাচল ছিল বেশ দুর্ভোগের।

তবে এই এক কিলোমিটার অংশ চলাচল করতে এখন লাগছে মাত্র দুই মিনিট। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ‘মগবাজার-মৌচাক সমন্বিত উড়াল সেতু’ প্রকল্পের আওতায় ইস্কাটন থেকে ওয়্যারলেস পর্যন্ত অংশ যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন দুপুরে উড়াল সেতুর এক কিলোমিটার অংশের উদ্বোধন করেন। এর আগে গত মার্চ মাসে প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর এই ফ্লাইওভারের রমনা থেকে তেজগাঁও সাতরাস্তা পর্যন্ত দুই কিলোমিটার অংশ যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছিল।

ইস্কাটন-মৌচাক অংশের উদ্বোধন শেষে মন্ত্রী মোশাররফ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী অলরেডি এই ফ্লাইওভার উদ্বোধন করে দিয়েছেন। আমরা এর সাইডগুলো উদ্বোধন করছি। আমি যে অংশটার উদ্বোধন করলাম সেটার দৈর্ঘ্য এক কিলোমিটার। অন্য অংশগুলো আগামী বছর জুন-জুলাইয়ের মধ্যে উদ্বোধন করতে সক্ষম হব ইনশা আল্লাহ। ’

নতুন এ অংশ উদ্বোধন হওয়ার পর গতকাল দুপুর থেকে পথচারী-দর্শনার্থীদের ভিড় জমে তা দেখতে। উদ্বোধনের পর এই উড়াল সেতুর ওপর দিয়ে চলাচলকারী অটোরিকশাচালক মো. আশরাফ উদ্দিন কালের কণ্ঠকে বলেন, নিচের রাস্তায় আর আটকে থাকতে হবে না। উড়ে উড়ে চলা যাবে। মোটরসাইকেলচালক রেজানুর রহমান বললেন, নিচে চলতে গেলেই ভয় হতো। এখন আটকে থাকার ভয় দূর হলো।

প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, তিনটি অংশে সব মিলিয়ে আট কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের চার লেনের ফ্লাইওভারে ওঠা-নামার জন্য তেজগাঁওয়ের সাতরাস্তা, সোনারগাঁও হোটেল, মগবাজার, রমনা (হলি ফ্যামিলি হাসপাতালসংলগ্ন রাস্তা), বাংলামোটর, মালিবাগ, রাজারবাগ পুলিশ লাইনস ও শান্তিনগর মোড়ে লুপ বা র‍্যাম্প রাখা হয়েছে। ভারতের সিমপ্লেক্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেড ও নাভানার যৌথ উদ্যোগের প্রতিষ্ঠান ‘সিমপ্লেক্স নাভানা জেভি’, চীনা প্রতিষ্ঠান দ্য নাম্বার ফোর মেটালার্জিক্যাল কনস্ট্রাকশন ওভারসিজ কম্পানি (এমসিসিসি) ও তমা কনস্ট্রাকশন লিমিটেড প্রকল্পের কাজ করছে।

প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, তিন দফায়  প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। প্রকল্পের কাজ আগামী জুনের মধ্যে শেষ করতে হবে। ব্যয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ২১৯ কোটি টাকা। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে ২০১৩ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। ২০১৫ সালের মধ্যে শেষ করার কথা ছিল পুরো কাজ। ব্যয় ধরা হয়েছিল ৭৭২ কোটি ৭০ লাখ টাকা। শান্তিনগর থেকে মালিবাগ, রাজারবাগ, মৌচাক হয়ে রামপুরা পর্যন্ত নির্মাণকাজ এখন চলছে।


মন্তব্য