kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সরকারি চিনি কেজিতে বাড়ল ১২ টাকা

ফারজানা লাবনী   

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সরকারি চিনি কেজিতে বাড়ল ১২ টাকা

সরকারি চিনির দর বাড়ানো হলো কেজিতে ১২ টাকা। এ সিদ্ধান্ত দিল শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন (বিএসএফআইসি)।

গত মঙ্গলবার নেওয়া এ সিদ্ধান্ত আজ শনিবার থেকে কার্যকরী হওয়ায় সরকারি ১৫টি চিনিকলের উৎপাদিত প্রতি কেজি চিনি সাধারণ ক্রেতাকে ৫৪ টাকার পরিবর্তে ৬৬ টাকায় কিনতে হবে। এতে করে বেসরকারি খাতের চিনির মতোই সরকারি চিনি কিনতেও ভোক্তাদের বাড়তি অর্থ গুনতে হবে।

সরকারি চিনিকলের চিনি পাইকারি দরে মিলগেট থেকে বিএসএফআইসির নির্ধারিত চার হাজার ডিলারের মাধ্যমে দেশব্যাপী সরবরাহ করা হয়। মিলগেটে আজ থেকে প্রতি কেজি চিনি ডিলারদের ৪৮ টাকার পরিবর্তে ৬০ টাকায় কিনতে হবে। এ দরের সঙ্গে পরিবহন খরচ দুই টাকা এবং মুনাফা দুই টাকা যোগ করে খুচরা বিক্রেতাদের কাছে ৬৪ টাকায় চিনি বিক্রি করতে হবে। শিল্প মন্ত্রণালয় থেকে এসব চিনি সাধারণ ক্রেতার কাছে ৬৬ টাকায় বিক্রির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ চিনি ডিলার সমিতির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বেসরকারি চিনি ব্যবসায়ীরা যখন সিন্ডিকেট করে বেশি দরে ভোক্তাকে চিনি কিনতে বাধ্য করে, সেই সময়ে সরকারি চিনি বাজারে ছেড়ে বাজার নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এবার হঠাৎ চিনির দর বাড়ানোয় ভোক্তাকে বাধ্য হয়ে বেশি দামে চিনি কিনতে হবে। এ ছাড়া  কোনো নেটিশ ছাড়া মিলগেটে চিনির পাইকারি দর বাড়ানোয় আমরা চিনি সংগ্রহ করতে পুঁজি সংকটে পড়েছি। এতে বাড়তি দরের সরকারি চিনি দেরিতে বাজারে সরবরাহ হবে। তা ছাড়া সরকারি এ সিদ্ধান্তে বেসরকারি চিনি ব্যবসায়ীরা চিনির বাজার নিয়ন্ত্রণের সুযোগ পেল। ’

বাবুল আরো বলেন, বেসরকারি খাতের চিনির দর কমানোর কৌশল না নিয়ে সরকারি চিনির দর বাড়ানোয় সাধারণ ভোক্তারা কম দামে চিনি কেনার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হলো।


মন্তব্য