kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জঙ্গি সন্দেহে অভিযানের পর জানা গেল চোর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



জঙ্গি সন্দেহে অভিযানের পর জানা গেল চোর

গতকাল রাজধানীর গুলশান ১-এর ৫১ নম্বর ভবনে জঙ্গি সন্দেহে অভিযান চালানো হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

গুলশানের একটি ভবনে সকালে ঢুকেছে কয়েকজন যুবক। তাদের কাঁধে আছে ব্যাগ।

গতকাল মঙ্গলবার এমনই খবর যায় পুলিশের কাছে। সম্প্রতি গুলশানে জঙ্গি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে মুহূর্তেই এ সংবাদে সতর্ক অবস্থানে যায় পুলিশ। বড় ধরনের অভিযানের প্রস্তুতি নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে র‌্যাব ও পুলিশের বিশেষ ইউনিট সোয়াত। শ্বাসরুদ্ধ অবস্থা চলে টানা সাড়ে তিন ঘণ্টা। এরপর পুলিশ নিশ্চিত করে, চোরের দল ঢুকেছিল ভবনটিতে, তারা পেছনের গ্রিল কেটে পালিয়েছে। তাদের ফেলে যাওয়া দুটি ব্যাগ মিলেছে। তাতে রয়েছে মোবাইল ফোন।

গুলশান-১ নম্বর গোল চত্বর এলাকায় অবস্থিত উদয় টাওয়ার ঘিরে এ ঘটনায় গতকাল রাজধানীসহ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছিল উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। সকাল ৯টা থেকে দুপুর  সাড়ে ১২টা পর্যন্ত তল্লাশি অভিযানের পর পুলিশ ‘চুরি প্রচেষ্টার’ তথ্য জানালে স্বস্তি পায় সবাই। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুটি ব্যাগে থাকা ১৭টি মোবাইল ফোনসেট উদ্ধার করেছে। চোরেরা ওই ভবনের এলজি-বাটারফ্লাই শোরুম এবং ইউনিরয়্যাল সিকিউরিটিজ লিমিটেড কার্যালয়ের কাগজপত্র তছনছ করেছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ভারপ্রাপ্ত কমিশনার শাহাব উদ্দীন কোরেশী বলেন, কয়েকজন দুর্বৃত্ত উদয় টাওয়ারে প্রবেশ করেছে জেনে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। পুরো ভবন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে তল্লাশি চলে। কিন্তু ভবনের ভেতরে সন্দেহভাজন কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে পরিত্যক্ত অবস্থায় দুটি ব্যাগ পাওয়া গেছে। এটা চুরির ঘটনা বলে মনে হচ্ছে। পুলিশ পৌঁছার আগেই দুর্বৃত্তরা পেছনের জানালা দিয়ে পালিয়ে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

র‌্যাব-১-এর উপ-অধিনায়ক মেজর শফিউল আজম সিদ্দিকী জানান, ভবনের পঞ্চম তলায় একটি সিকিউরিটি অফিসের ভেতর পরিত্যক্ত অবস্থায় দুটি ব্যাগ পাওয়া গেছে। তাতে ১৭টি মোবাইল ফোনসেট পাওয়া গেছে। বোম্ব ডিস্পোজাল ইউনিট ও সিআইডির ক্রাইমসিন ইউনিট ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে।

উদয় টাওয়ারের নিচে ব্র্যাক ব্যাংকের বুথের নিরাপত্তাকর্মী সবুর মোল্লা জানান, সকাল আনুমানিক পৌনে ৭টার দিকে তিনি শোরুমের ভেতর থেকে গেট কাটার শব্দ শোনেন। কাছে যেতেই এক দুর্বৃত্ত হুমকি দিয়ে বলে, ‘ওপরে আসবি না। আসলে গুলি করব। ’ এরপর তিনি পুলিশে খবর দেন।

গুলশান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সালাউদ্দিন মিয়া জানান, কাঁধে ব্যাগ নিয়ে কয়েকজন যুবক ভবনে ঢুকেছে, তাদের মুখ ঢাকা। এমন তথ্য পেয়ে যৌথ অভিযানের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পাঁচতলা ভবনটিতে ব্র্যাক ব্যাংকের এটিএম বুথ, এলজি-বাটারফ্লাইয়ের শোরুম, লি লিহুদ চায়নিজ ড্রাই ক্লিনার্স নামের একটি লন্ড্রির দোকান, এনসিসি ব্যাংকের কার্যালয়, লি ছয় শিয়ং হাউস এবং ইউনিরয়্যাল সিকিউরিটিজ নামের বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে গত ১ জুলাই জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে। এরপর কূটনৈতিক জোনসংলগ্ন এলাকাটিতে নিরাপত্তাব্যবস্থা আগের চেয়ে জোরদার করা হয়েছে। এ পরিস্থিতিতেই গতকাল উদয় টাওয়ারে চুরি চেষ্টার ঘটনা চাঞ্চল্য তৈরি করেছিল।


মন্তব্য