kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হাইকোর্টের রায়

আয়কর আদায় অবৈধ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে

টাকা ফেরতের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



আয়কর আদায় অবৈধ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৫ শতাংশ হারে আয়কর আদায়-সংক্রান্ত দুটি প্রজ্ঞাপন বেআইনি ও অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ওই দুটি প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ১৫ শতাংশ হারে এ পর্যন্ত যত টাকা (আয়কর) আদায় করা হয়েছে তা রিট আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে ফেরত দিতে সরকার ও এনবিআরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি শেখ  হাসান আরিফ ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল সোমবার এ রায় দেন।

বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও একজন শিক্ষার্থীর করা ৪৬টি রিট আবেদনের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে এ রায় দেওয়া হয়েছে।

আদালতে রিট আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ এফ হাসান আরিফ, ব্যারিস্টার ওমর সা’দাত, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন, অ্যাডভোকেট শাহ মোহাম্মদ আশিকুল মোরশেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীর।

রিট আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো হলো নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়; ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক; ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস, অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলোজি; আহসানউল্লাহ ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি; ইউনিভার্সিটি অব

 সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, চট্টগ্রাম; ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস; ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ; এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ; ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি; সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি; ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি। এ ছাড়া সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটির পক্ষে একজন শিক্ষার্থী আলাদা একটি রিট আবেদন করেছিলেন।

দুটি প্রজ্ঞাপনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ২০০৭ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময় এসব রিট আবেদন করা হয়েছিল। হাইকোর্ট আলাদা আদেশে রুল জারি করেছিলেন। এসব রুলের ওপর একসঙ্গে শুনানি শেষে গতকাল রায় দেওয়া হয়।

রায়ের পর ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, আদালত দুটি প্রজ্ঞাপনকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন। এ ছাড়া ওই দুই প্রজ্ঞাপনে দেওয়া ক্ষমতাবলে ২০০৭ সাল থেকে এ পর্যন্ত যে অর্থ আদায় করা হয়েছে, তা ফেরত দিতে বলেছেন আদালত।

বেসরকারি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ১৫ শতাংশ হারে আয়কর আদায়ের জন্য ২০০৭ সালের ২৮ জুন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছিল, ‘বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের অনুমোদিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়, যারা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নয়, তাদের আয়ের ওপর ১৫ শতাংশ হারে আয়কর পুনর্নির্ধারণ করা হলো। মেডিক্যাল, ডেন্টাল, ইঞ্জিনিয়ারিং ও তথ্য শিক্ষাদানে নিয়োজিত প্রাইভেট কলেজগুলোর আয় করমুক্ত হবে। কিন্তু ওই সব প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রতিবছর যথারীতি নিরীক্ষিত হিসাব বিবরণীসহ আয়কর বিবরণী দাখিল করতে হবে। ১ জুলাই থেকে এটা কার্যকর হবে। ’

২০১০ সালের ১ জুলাই এনবিআর থেকে জারি করা আরেক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ, বেসরকারি ডেন্টাল কলেজ, বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ এবং কেবল তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে শিক্ষাদানে নিয়োজিত বেসরকারি কলেজের আয়ের ওপর প্রদেয় আয়করের পরিমাণ হ্রাস করে ১৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হলো। ’


মন্তব্য