kalerkantho


মন্ত্রিসভা বৈঠকে আদালত অবমাননাকারী দুই মন্ত্রী

আইনমন্ত্রী বললেন তাঁদের শপথ ভঙ্গ হয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



আইনমন্ত্রী বললেন তাঁদের শপথ ভঙ্গ হয়নি

ফাইল ছবি

আদালত অবমাননার দায়ে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের রায়ে দণ্ডিত খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক গতকাল সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে অংশ নিয়েছেন।  

সড়কমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, বৈঠকে দুই মন্ত্রী স্বাভাবিক ছিলেন। মন্ত্রিসভার বৈঠকে তাঁদের বিষয়ে একটা শব্দও আলোচনা হয়নি। আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক এমপি বলেন, আদালত অবমাননার দায়ে শাস্তি হলেও ওই দুই মন্ত্রীর শপথ ভঙ্গ হয়নি। তবে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি সাংবাদিকদের বলেন, পূর্ণাঙ্গ রায় হাতে পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

আদালত অবমাননার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে এ দুই মন্ত্রীকে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এই সাজার পর এ দুজন মন্ত্রী পদে থাকতে পারেন কি না তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। তবে আইনজীবীরা বলেন, মন্ত্রী থাকতে পারবেন না এমন কিছু দেশের আইন বা সংবিধানে নেই। তবে বিষয়টি নৈতিকতার। সংবিধান লঙ্ঘনের দায়ে সাজা হওয়ার পর নিজেদেরই মন্ত্রিত্ব থেকে সরে যাওয়া উচিত বলে কেউ কেউ মন্তব্য করেন। এ আলোচনার মধ্যেই গতকাল মন্ত্রিসভার বৈঠকে অংশ নেন দুই মন্ত্রী। বৈঠক শেষে বের হওয়ার পর এ বিষয়ে সড়কমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হককে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন।

সড়কমন্ত্রী

মন্ত্রিসভা বৈঠকের পর দুই মন্ত্রীর পদত্যাগ বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখানে আইনগত ব্যাপার আছে, আরেকটা আছে নৈতিকতার প্রশ্ন। নৈতিকতার ব্যাপারটা যার যার নিজের ব্যাপার। সেটাতে আমাদের কিছু বলার নেই। মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ নিয়ে একটা শব্দও আলোচনা হয়নি। সংবিধান লঙ্ঘন হয়েছে, এটা কি হুট করে বলা যায়?’ বৈঠকে দুই মন্ত্রীকে কেমন দেখেছেন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ওনারা আগের মতোই ছিলেন, আমি ওনাদের মধ্যে ব্যতিক্রম কিছু দেখিনি। ’

আইনমন্ত্রী

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে দুই মন্ত্রীকে যে জরিমানা করা হয়েছে, তাতে সংবিধানের কোনো ধারা লঙ্ঘিত হয়নি। এখানে এটা একদমই পরিষ্কার, এখানে কিন্তু সংবিধান ক্ষুণ্ন হওয়ার কোনো ব্যাপার নেই। তাই তাঁদের পদত্যাগ করার কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। তবে তাঁরা পদত্যাগ করবেন কি না সেটা তাঁদের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের বিষয়। ’ শপথ ভঙ্গ হয়েছে কি না প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘না, শপথ ভঙ্গ হয়নি। ’

প্রধানমন্ত্রীকে মন্ত্রিসভার অভিনন্দন

বিশ্বনেতাদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দশম স্থানে থাকায় অভিনন্দন প্রস্তাব গ্রহণ করেছে মন্ত্রিসভা। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদসচিব জানান, বৈঠকের শুরুতে মন্ত্রিসভা একটি অভিনন্দন প্রস্তাব গ্রহণ করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কভিত্তিক আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সাময়িকী ‘ফরচুন’ প্রকাশিত বিশ্বের ৫০ জন মহান নেতার তালিকায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দশম স্থানে থাকায় তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছে মন্ত্রিসভা। গত ২৪ মার্চ ‘ফরচুন’ রাজনীতি, ব্যবসা, সাংস্কৃতিক অঙ্গনে তাদের চোখে শীর্ষ ৫০ জনের তালিকা প্রকাশ করে।

এদিকে গতকালের মন্ত্রিসভা বৈঠক ‘বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ আইন, ২০১৬’-এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে। বৈঠকে বাংলাদেশ রেলওয়ে কনটেইনার পরিবহন সার্ভিসকে স্বতন্ত্র কম্পানির মাধ্যমে পরিচালনার লক্ষ্যে কনটেইনার কম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড গঠনের প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়।


মন্তব্য