কাউন্সিলের লোগো-স্লোগান চূড়ান্ত-333473 | প্রথম পাতা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১০ আশ্বিন ১৪২৩ । ২২ জিলহজ ১৪৩৭


কাউন্সিলের লোগো-স্লোগান চূড়ান্ত করেছে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



কাউন্সিলের লোগো-স্লোগান চূড়ান্ত করেছে বিএনপি

ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের ‘লোগো’ ও ‘স্লোগান’ চূড়ান্ত করেছে বিএনপি। এবারের কাউন্সিলের প্রতিপাদ্য স্লোগান হচ্ছে—‘দুর্নীতি, দুঃশাসন হবে শেষ, গণতন্ত্রের বাংলাদেশ’। ২০০৯ সালের পঞ্চম কাউন্সিলে স্লোগান ছিল—‘নানা মানুষ নানা মত, দেশ বাঁচাতে ঐক্যমত’।

ইতিমধ্যে জাতীয় কাউন্সিলের সময়সূচিও ঠিক করা হয়েছে। ১৯ মার্চ সকাল ১০টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে কাউন্সিলের উদ্বোধন করবেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়ার বক্তব্য ছাড়াও লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য দেবেন দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য এবং জাতীয় কাউন্সিলের ব্যবস্থাপনা ও প্রচার উপকমিটির আহ্বায়ক গয়েশ্বর চন্দ্র রায় গতকাল সোমবার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘এবার আমাদের প্রচারে নতুন মাত্রা যোগ হচ্ছে। ১১টি অঙ্গসংগঠন কাউন্সিল সফল করার লক্ষ্যে জাতীয় কাউন্সিলের স্লোগানসহ তাদের নিজস্ব সংগঠনের লোগো দিয়ে আলাদা আলাদা পোস্টার করছে। দু-এক দিনের মধ্যে আমরা গণমাধ্যমকে উপস্থিত রেখে প্রচারের কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করব। প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার পাশাপাশি এবার প্রচার-প্রচারণায় ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকেও ব্যাপক গুরুত্ব দেওয়া হবে। এর কাজও আমরা প্রায় চূড়ান্ত করে ফেলেছি।’

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘নানা প্রতিকূলতার মধ্যে আমরা এবারের জাতীয় কাউন্সিল করতে যাচ্ছি। স্বল্প পরিসরের জায়গা নিয়ে আমরা দুশ্চিন্তার মধ্যেই আছি। দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল বিএনপির জাতীয় কাউন্সিলের বিশাল কর্মষজ্ঞ কেন্দ্র করে সারা দেশে নেতাকর্মীসহ জনগণের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। সব উপকমিটি রাত-দিন কাজ করে যাচ্ছে।’

বিএনপির এই শীর্ষ নেতা আরো বলেন, জাতীয় কাউন্সিল উপলক্ষে ‘থিম সং’ তৈরি করা হয়েছে। বানানো হয়েছে আলাদা ওয়েবসাইটও। রাজধানীতে কাউন্সিল উপলক্ষে বিভিন্ন সড়ক মোহনা, সড়ক দ্বীপে পোস্টারিং, লাইটিংসহ বর্ণিলভাবে সাজানো হবে। কাউন্সিলের কয়েক দিন আগে নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়েও আলোকসজ্জা করা হবে। জাতীয় কাউন্সিলে সারা দেশ থেকে ২৭ হাজার ৩৫৬ জন কাউন্সিলরকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ১৬ মার্চ নয়া পল্টনের কার্যালয়ে ‘কাউন্সিলর কার্ড’ দেওয়া শুরু হবে।

জাতীয় কাউন্সিল সামনে রেখে কয়েক দিন ধরে সকাল থেকেই মুখর হয়ে উঠছে নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়। জানা গেছে, ১৯ মার্চ সকাল ১০টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর দুপুরে মধ্যাহ্ন ভোজের ব্যবস্থা থাকবে। বিকেল ৩টা থেকে শুরু হবে রুদ্ধদ্বার কাউন্সিল। এর আলোচ্যসূচিতে রয়েছে—শোক প্রস্তাব উপস্থাপন, দলের চেয়ারম্যান ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচনে গঠিত নির্বাচন পরিচালনা কমিটির রিপোর্ট পেশ, মহাসচিবের সাংগঠনিক প্রতিবেদন পেশ, দেশের বর্তমান রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা, দলের ঘোষণাপত্র ও গঠনতন্ত্র সংশোধন এবং দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্যদের নির্বাচন।

২০০৯ সালের ৮ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিএনপির পঞ্চম জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। 

গঠনতন্ত্র সংশোধন উপকমিটির বৈঠক : কাউন্সিলকে সামনে রেখে গতকাল নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির গঠনতন্ত্র সংশোধন উপকমিটির বৈঠক হয়েছে। স্থায়ী কমিটির সদস্য এম তরিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে বৈঠকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে দলের অবস্থান স্পষ্ট করার প্রস্তাব দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। তিনি বলেছেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের বিরুদ্ধে বিএনপি চেয়ারপারসন তাঁর বক্তৃতায় জিরো টলারেন্সের কথা বলেছেন। এ বিষয়টিই এখন দলের ঘোষণাপত্রে সংযোজন করতে হবে।

এ ছাড়া ইতিপূর্বে দলের বিভিন্ন পর্যায় থেকে আসা শতাধিক প্রস্তাব নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়। পরে প্রস্তাবগুলো যাচাই-বাছাই করে সংক্ষিপ্ত আকারে আগামী বুধবারের বৈঠকে উপস্থাপনের জন্য এ-সংক্রান্ত একটি বাছাই কমিটি করা হয়। কমিটির আহ্বায়ক করা হয় ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুকে। ড. আসাদুজ্জামান রিপন, মাহবুব উদ্দিন খোকন, অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, জয়নাল আবেদীন, সানাউল্লাহ মিয়া, মাসুদ আহমেদ তালুকদার ও সৈয়দা আসফিয়া আশরাফি পাপিয়াকে কমিটির সদস্য রাখা হয়েছে।

প্রকাশনা উপকমিটি ও চিকিৎসাসেবা উপকমিটির সভা : জাতীয় সম্মেলন ও কাউন্সিল-২০১৬ উপলক্ষে প্রকাশনা উপকমিটি ও চিকিৎসাসেবা উপকমিটির প্রস্তুতি সভা হয়েছে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে। গতকাল দুপুরে পুরানা পল্টনে জামান টাওয়ার কনফারেন্স হলে আয়োজিত সভায় প্রকাশনা উপকমিটির আহ্বায়ক আবদুল্লাহ আল নোমান সভাপতিত্ব করেন। এতে কাউন্সিল উপলক্ষে প্রকাশনা বিষয়ের কার্যক্রম দ্রুত সম্পন্ন করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

বিকেলে নয়াপল্টন কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে চিকিৎসাসেবা উপকমিটির প্রস্তুতি সভা হয়। উপকমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন এতে সভাপতিত্ব করেন। জাতীয় কাউন্সিল সুচারুভাবে সম্পন্ন করার জন্য সভায় বিভিন্ন দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মন্তব্য