kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নিখোঁজ শিশুর গলাকাটা লাশ

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নিখোঁজ শিশুর গলাকাটা লাশ

নিখোঁজ হওয়ার তিন দিন পর মুন্সীগঞ্জের লৌহজং থেকে সায়মন নামে চার বছরের একটি শিশুর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার দুপুরে কুমারভোগ গ্রামের একটি জমি থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি শিশুটি এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়েছিল। শিশুটিকে নির্মমভাবে হত্যা করে ফেলে রাখা হয়েছিল বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

শিশুটির বাবা আতাউর রহমানের অভিযোগ, ‘নিখোঁজ হওয়ার দিনই লৌহজং থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। কিন্তু পুলিশ ওয়্যারলেসে কয়েকটি মেসেজ দেওয়া ছাড়া আর খোঁজাখুঁজি করেনি। ’

পারিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের পূর্ব কুমারভোগ গ্রামের বাসিন্দা ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আতাউর রহমানের চার বছরের ছেলে সায়মন। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি শিশুটি ওই এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়। এই নিয়ে অনেক খোঁজাখুঁজির পর ওই দিনই লৌহজং থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। এর মধ্যে গতকাল দুপুরে গ্রামের উত্তর পাশে একটি জমিতে শিশুটির লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হলে লাশ উদ্ধার করে তারা। লাশের শরীরে ডান হাত ছিল না। গলার নিচ থেকে পেট পর্যন্ত কাটা ছিল। এরপর খবর পেয়ে ছুটে এসে লাশ শনাক্ত করে পরিবারের সদস্যরা।   নিহত শিশুর বড় ভাই কলেজ ছাত্র মাসুদ রানা বলেন, ‘আমাদের কোনো শত্রু নাই। আমরা মাওয়ার স্থায়ী বাসিন্দা। কিন্তু গত ১২ বছর চট্টগ্রামে বসবাস করছিলাম। গত বছর থেকে পদ্মা সেতু পুনর্বাসন কেন্দ্রে চাচার প্লটে বাস করছি। এ হত্যাকাণ্ড কে ঘটাল, কেন করল তা আমরা বুঝতে পারছি না। ’

স্থানীয় কুমারভোগ ইউপি চেয়ারম্যান লুত্ফর রহমান তালুকদার বলেন, ‘এটি হত্যাকাণ্ড, এতে কোনো সন্দেহ নেই। এই নিয়ে স্থানীয় জনগণের মাঝে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। তারা এখন তাদের সন্তানদের নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছে। ’ এ ব্যাপারে লৌহজং থানার ওসি মোল্লা জাকির হোসেন জানান, শিশুটিকে নির্মমভাবে হত্যা করে ওই জমিতে ফেলে রাখা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারে অভিযানে নেমেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (শ্রীনগর সার্কেল) মো. সামসুজ্জামান বাবু বলেন, ‘এটি একটি হত্যাকাণ্ড বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। আমরা বিভিন্ন দিকে আমাদের সোর্স লাগিয়েছি। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে এ ব্যাপারে পরিষ্কার হওয়া যাবে। ’ 


মন্তব্য