kalerkantho


খাগড়াছড়ি বিএনপির অভিযোগ

ওয়াদুদকে এলাকা ছাড়ার চাপ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি   

২৫ ডিসেম্বর, ২০১৫ ০০:০০



জেলা বিএনপির সভাপতি ওয়াদুদ ভূঁইয়াকে খাগড়াছড়ি পৌর এলাকা ত্যাগ করতে প্রশাসন চাপ দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে স্থানীয় বিএনপি। দলটির এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ওয়াদুদ ভূঁইয়া খাগড়াছড়ির দুইবারের নির্বাচিত সাবেক সংসদ সদস্য।

সেটি তাঁর নির্বাচনী এলাকা। তিনি খাগড়াছড়ি পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটার। ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালানো এবং ভোট দেওয়া তাঁর সাংবিধানিক অধিকার। অথচ পুলিশ বাহিনী ওয়াদুদ ভূঁইয়াকে এলাকা ত্যাগ করতে চাপ দিচ্ছে। বিবৃতিতে আরো অভিযোগ করা হয়, সাধারণ ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে না যেতে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন জেলা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি জাহেদুল আলমের ভাই স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী রফিকুল আলম ও মাটিরাঙার আওয়ামী লীগ প্রার্থী শামসুল হকের ক্যাডার বাহিনী।

এ ছাড়া নির্বাচনী প্রচারণার শুরু থেকেই খাগড়াছড়ি পৌরসভায় রফিকুল আলম এবং মাটিরাঙায় শামসুল হক আচরণবিধি লঙ্ঘন করলেও সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসাররা তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেন না।

খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান মিল্লাত স্বাক্ষরিত ওই বিবৃতিতে সেনা মোতায়েনের মাধ্যমে নির্বাচনী লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করারও আহ্বান জানানো হয়। এ ছাড়া ওয়াদুদ ভূঁইয়াকে নিজ এলাকায় থাকতে দেওয়া না হলে জেলা বিএনপি কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবে বলেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করা হয়।

এ ব্যাপারে ওয়াদুদ ভূঁইয়া জানান, ৩০ ডিসেম্বর ভোট দিয়েই তিনি সিদ্ধান্ত নেবেন—থাকবেন, নাকি কোথাও যাবেন।

তিনি আরো জানান, ২৩ ডিসেম্বর খাগড়াছড়ি আদালতে মামলার হাজিরা দিয়েছেন। আগামী ২৮ ও ৩১ ডিসেম্বর আরো দুটি মামলায় তিনি হাজিরা দেবেন।

খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মো. মজিদ আলী জানান, এলাকা ছাড়তে কাউকেই চাপ দেওয়া হচ্ছে না।


মন্তব্য