kalerkantho

এ ঝড় থামে না কখনোই

জাহানারা আরজু

১১ জুন, ২০১৮ ০০:০০



ঈশানে লাল মেঘ জমে গর্জে ওঠে রুদ্র রোষে

চৌচির হয়ে কেটে পড়ে আকাশটা ছিন্নভিন্ন করে

খাবলে নেয় ভিটেবাড়ি, বাঁশঝাড়, ঢেঁকিঘর—

শুকনো পাতার মতো ওড়ে টিনের চালা, গাছপালা, খড়ের স্তূপ,

গুঁড়িয়ে যায় ঘরদোর, স্কুল-মাদরাসা-মসজিদ—

দানবিক ছোবল কেড়ে নেয় সুউচ্চ নারকেল সুপারির বাগান,

নিশ্চিহ্নে মুছে দেয় পূর্বপুরুষের আমানত—

অতল নদীর বুকে মুখ থুবড়ে আটকে থাকে

ডুবন্ত নৌকার মাস্তুল-পাটাতন, ছিন্ন দড়ি, ছেঁড়া পাল,

নিখোঁজ জেলে ডিঙি ফেরে না সাগর থেকে,

ক্ষুধার্ত বউয়ের চোখে কালবৈশাখীর জ্বালা—

মুহূর্তে কেড়ে নেয় কালবৈশাখী হিরের টুকরোর মতো

কত যে সাধের বসত-বাগান-বাথান!

 

আকাশের ঝড় শান্ত হয়, থেমে যায় একসময়—

আমাদের পৃথিবীর চিত্রপট রং বদলায় সহসাই—

নিত্যদিন আমাদের বুকের ঈশান কোণে যে লাল মেঘ

জমা হয়, ক্রমে ক্রমে সে মেঘ কৃষ্ণবর্ণের এক পাগলা

ঘোড়ার বিচ্ছুরিত ক্ষুরের আগুনে প্রজ্বলিত করে—

চৌদিক। বঞ্চনার সে ঝড় ওঠে রক্তের নীল শিরায় শিরায়—

প্রতিবাদী মুঠিতে বজ্রের ঝিলিক—

এ ঝড় থামে না, থামে না কখনোই!



মন্তব্য