kalerkantho

জানা-অজানা

পর্তুগিজ

[পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বইয়ে পর্তুগিজদের কথা উল্লেখ আছে]

আব্দুর রাজ্জাক   

৬ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



পর্তুগিজ

১৫১৬ খ্রিস্টাব্দের দিকে বাংলায় প্রথম আসে পর্তুগিজরা। সম্রাট শের শাহ (১৫৪০-১৫৪৫) তাদের বিতাড়িত করেন। মোগল শাসন পুনঃপ্রতিষ্ঠার পর তারা আবার ফিরে আসে। প্রতিষ্ঠা করে হুগলী বন্দর। ১৬শ শতাব্দীর দ্ব্বিতীয়ার্ধ থেকে ১৭শ শতাব্দীর প্রথমার্ধ পর্যন্ত পর্তুগিজরা বাংলায় ব্যবসা-বাণিজ্য, ধর্মপ্রচার, কৃষিকাজ, দাস-ব্যবসা প্রভৃতিতে সক্রিয় ছিল। পরে তারা রাষ্ট্রদোহী কার্যকলাপে জড়িয়ে পড়ে। মোগল সম্রাট শাহজাহান ক্ষমতায় আসার পর তাঁর আদেশে কাসিম খান ১৬৩২ খ্রিস্টাব্দে পর্তুগিজদের আক্রমণ করে। দখল করে হুগলী শহর। একপর্যায় পর্তুগিজরা এ দেশ ছেড়ে চলে যায়। পর্তুগিজেরা এদেশে বহু নতুন জিনিস আমদানি করে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে চীনের রেশমি কাপড়, মালাক্কার মসলা, সিংহলের চিনাবাদাম। এ ছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন স্থান থেকে নতুন নতুন শস্যের আমদানি করে সেগুলো চাষাবাদ করে তারা।

পর্তুগিজরা বাংলা গদ্যের প্রথম বই লেখে। অবশ্য বাংলা অক্ষরে বাংলা লিখেনি। লিখেছে রোমান অক্ষরে, পর্তুগিজ উচ্চারণে। বই ছাপিয়েছে পর্তুগালের রাজধানী লিসবন শহর থেকে। বাংলা ভাষার প্রথম ব্যাকরণ ও অভিধানও তাদেরই রচনা। মোগল আমলে পর্তুগিজ ছাড়াও ডাচ, ইংরেজ, ফরাসি বিভিন্ন ইউরোপীয় বণিকগোষ্ঠী ব্যবসায় করতে ভারতীয় উপমহাদেশে এসেছে। ব্যবসায়িক প্রতিযোগিতায় শেষ পর্যন্ত টিকে ছিল ইংরেজরা।

     


মন্তব্য