kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জেএসসি : বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

পাঠ প্রস্তুতি

শামীমা ইয়াসমিন, প্রভাষক রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ উত্তরা, ঢাকা   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



জেএসসি : বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

সৃজনশীল প্রশ্ন

বাঙালির সংস্কৃতি ও শিল্পকলা

 

উদ্দীপকটি পড়ে নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :

বাংলার গ্রামের মহিলারা গৃৎহস্থালির কাজের ফাঁকে ফাঁকে বিভিন্ন রকমের সেলাই করেন। এই সেলাইগুলো একটি বিশেষ শিল্পকর্মের প্রতিনিধিত্ব করে।

মহিলাদের পাশাপাশি পুরুষরাও অবসর সময়ে পুঁথি পাঠের আসর বসায়। এই পুঁথি রচনা আমাদের শিল্পসাহিত্য বিকাশের একটি অন্যতম ধারা।

ক. শিল্পকলা কাকে বলে?

খ. পুঁথি সাহিত্য বলতে কী বোঝায়?

গ. গ্রামের মহিলাদের সেলাইয়ের কাজ যে শিল্পকর্মের সঙ্গে সম্পর্কিত তার ব্যাখ্যা দাও।

ঘ. ‘পুঁথি সাহিত্য রচনা আমাদের শিল্পসাহিত্য বিকাশের একটি অন্যতম ধারা। ’ আলোচনা করো।

 

উত্তর :

ক. গুরুত্বপূর্ণ সংস্কৃতির কাজে জাতির চিন্তাশক্তি ও সৃজনশীল প্রতিভার যে পরিচয় পাওয়া যায়, তাই শিল্পকলা।

খ. পারস্য থেকে পাওয়া নানা কল্পকাহিনী ও রোমান্টিক আখ্যান নিয়ে পুঁথি সাহিত্য রচিত। মুসলিম সমাজে পুঁথি সাহিত্যের ব্যাপক কদর ছিল। সেকালে বাড়ি বাড়ি পুঁথি পাঠের আসর বসত, আবার পুঁথি নকল করে সংরক্ষণও করা হতো। ইউসুফ-জুলেখা, লাইলী-মজনু, সায়ফুল মুলক বদিউজ্জামান, জঙ্গনামা ইত্যাদি বিখ্যাত সব পুঁথির নাম। আলাওল রচিত ‘পদ্মাবতী’ বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে বিশেষভাবে আলোচিত।

গ. উদ্দীপকে গ্রামের মহিলাদের সেলাইয়ের সঙ্গে বাংলাদেশের হস্তশিল্পের ঐতিহ্য ফুটে উঠেছে। নিম্নে এ সম্পর্কে ব্যাখ্যা করা হলো :

স্বল্প পরিসর স্থানে অল্পসংখ্যক ব্যক্তির প্রচেষ্টায় বিক্রি করার উদ্দেশ্যে পণ্যদ্রব্য উত্পাদনের জন্য যে শিল্প গড়ে ওঠে তাকে হস্তশিল্প বলে। অতি প্রাচীনকাল থেকেই এ দেশের তাঁতি সম্প্রদায় হস্তচালিত তাঁতের সাহায্যে বস্ত্র উত্পাদন করে অভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটিয়ে আসছে। বর্তমানে আমাদের দেশের তাঁতিরা অপূর্ব দক্ষতার অধিকারী। গ্রাম বাংলার বেশির ভাগ মানুষ এখনো তাঁত বস্ত্রের ওপর বহুলাংশে নির্ভর করে। শহরাঞ্চলেও উন্নতমানের তাঁতের শাড়ির চাহিদা রয়েছে। তা ছাড়া গ্রামীণ মহিলারা ঘরে ঘরে কাঁথা সেলাই করেন। তাতে আশ্চর্য নিপুণতার গল্প কাহিনী ও ছবি ফুটিয়ে তুলছেন। এখনো সমাজের দরিদ্র নারীরা এই শিল্পকর্মটি টিকিয়ে রেখেছেন। এ ছাড়া কাঠের কাজ বা কারুশিল্প, শঙ্খের কাজ, বাঁশ-বেত ও শোলার কাজেও বাংলার মানুষ যেমন দক্ষতা দেখিয়েছে, তেমনি তাদের সৃজনশীল মনের প্রকাশ ঘটিয়েছে।

উদ্দীপকে উল্লিখিত গ্রামের মহিলারা কাজের ফাঁকে ফাঁকে সুই-সুতা দিয়ে হাতে নানা নকশা তৈরি করেন এবং এগুলো বিভিন্ন দোকানে সরবরাহ করেন। গ্রামের মহিলাদের এ কাজটি হস্তশিল্পের অন্তর্ভুক্ত।

ঘ. পুঁথি সাহিত্য রচনা আমাদের শিল্পসাহিত্য বিকাশের একটি অন্যতম ধারা। নিচে এ বিষয়ে আলোচনা করা হলো :

বাঙালি সমৃদ্ধ সংস্কৃতির অধিকারী একটি প্রাচীন জাতি। মানুষ যেভাবে জীবনযাপন করে, যেসব জিনিস ব্যবহার করে, যেসব আচার-অনুষ্ঠান পালন করে, যা কিছু সৃষ্টি করে—সব নিয়েই তার সংস্কৃতি। খাদ্য, বাসস্থান, তৈজসপত্র, যানবাহন, পোশাক, অলংকার, উৎসব, গীতবাদ্য, ভাষা-সাহিত্য—সবই তার সংস্কৃতির অংশ। বাঙালির সংস্কৃতি ও শিল্পকলার বিকাশে যেসব দৃশ্য শিল্পের অবদান অনস্বীকার্য এর মধ্যে পুঁথি সাহিত্য অন্যতম।

মুসলমান সমাজে পুঁথি সাহিত্যেরও ব্যাপক কদর ছিল। পারস্য থেকে পাওয়া নানা কল্পকাহিনী ও রোমান্টিক আখ্যান নিয়ে পুঁথি সাহিত্য রচিত। মুসলিম সমাজে পুঁথি সাহিত্যের ব্যাপক কদর ছিল। সেকালে বাড়ি বাড়ি পুঁথি পাঠের আসর বসত, আবার পুঁথি নকল করে সংরক্ষণও করা হতো। ইউসুফ-জুলেখা, লাইলী-মজনু, সায়ফুল মুলক বদিউজ্জামাল, জঙ্গনামা ইত্যাদি বিখ্যাত সব পুঁথির নাম। আলাওল রচিত ‘পদ্মাবতী’ বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে বিশেষভাবে আলোচিত। এগুলো বাংলা সাহিত্য ভাণ্ডারের সমৃদ্ধ রত্ন।

অতএব আলোচনা শেষে এ কথা জোরালোভাবে বলা যায় যে আধুনিক বাংলা সাহিত্য বিকাশে পুঁথি সাহিত্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

 

বহু নির্বাচনী প্রশ্ন

১।    ‘ক’ রাষ্ট্রের সরকার জনগণকে রাষ্ট্রের সব কাজে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করানোর চেষ্টা করে। এর উদ্দেশ্য হলো—

     i. জনগণের সার্বভৌমত্ব প্রতিষ্ঠা করা

     ii. গণতন্ত্রকে রাষ্ট্রীয় মূলনীতি করা

     iii. ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র গঠন করা

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i ও ii     

     খ. i ও iii       

     গ. ii ও iii       

     ঘ. i, ii ও iii

২।    ‘ক’ একজন সংসদ সদস্য, কিন্তু সে কোনো আসনে নির্বাচন করেনি। ‘ক’ এর ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো সমর্থনযোগ্য—

     i. ‘ক’ একজন নারী

     ii. প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত

     iii. সংরক্ষিত আসনে নির্বাচিত

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i ও ii    

     খ. i ও iii       

     গ. ii ও iii    

     ঘ. i, ii ও iii

৩।    রাতুল, ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌরসভার মধ্যে সাদৃশ্য হিসেবে নিচের কোন বিষয়টি মনে করবে—

     i. উভয়ই স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা

     ii. উভয়ই জনগণের ভোটে নির্বাচিত

     iii. উভয়ই শহরাঞ্চলের নাগরিকের জন্য

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i ও ii    

     খ. i ও iii       

     গ. ii ও iii   

     ঘ. i, ii ও iii

৪।    গণতন্ত্রে সার্বভৌম ক্ষমতা জনগণের হাতে ন্যস্ত থাকে। এ থেকে বোঝা যায়—

     i. জনগণ দ্বারা সরকার নির্বাচিত হয়

     ii. জনগণ ইচ্ছা করলে সরকার পরিবর্তন করতে পারে

     iii. সরকার ইচ্ছামতো যা খুশি তা-ই করতে পারে

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i ও ii    

     খ. i ও iii      

     গ. ii ও iii    

     ঘ. i, ii ও iii

৫।    ধর্মনিরপেক্ষতা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অন্যতম ভিত্তি। এর যথার্থ কারণ হলো—

     i. ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালনে স্বাধীনতা

     ii. বিভিন্ন ধর্মের মানুষের সহাবস্থান

     iii. সবাই একই ধর্মগ্রন্থ পাঠ করে

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i ও ii    

     খ. i ও iii      

     গ. ii ও iii        

     ঘ. i, ii ও iii

৬।    ‘সরকার রাষ্ট্রের মূল চালিকাশক্তি। ’ কথাটির যথার্থ কারণ হলো—

     i. সরকার রাষ্ট্র পরিচালনা করে

     ii. সংবিধান প্রণয়ন ও সংশোধন করে

     iii. রাষ্ট্রের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা করে

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i ও ii    

     খ. i ও iii       

     গ. ii ও iii        

     ঘ. i, ii ও iii

৭।    সংবিধানে কতটি অনুচ্ছেদ আছে?

     ক. ১৫২টি        

     খ. ১৫৩টি        

     গ. ১৫৪টি        

     ঘ. ১৫৫টি

৮।    বাংলাদেশ সরকারের বিচার বিভাগের সর্বোচ্চ কেন্দ্র কোনটি?

     ক. সচিবালয়       

     খ. সুপ্রিম কোর্ট     

     গ. হাইকোর্ট       

     ঘ. জাতীয় সংসদ

৯।    বাংলাদেশের সংবিধান প্রণয়ন কমিটির সভাপতি কে ছিলেন?

     ক. তোফায়েল আহমেদ      

     খ. ড. কামাল হোসেন

     গ. তাজউদ্দীন আহমদ      

     ঘ. নজরুল ইসলাম

১০।   বাংলাদেশের শাসন বিভাগের প্রধান কে?

     ক. রাষ্ট্রপতি       

     খ. স্পিকার       

     গ. প্রধানমন্ত্রী      

     ঘ. আইনমন্ত্রী

১১।   বাংলাদেশের সংবিধানে কতটি প্রস্তাবনা আছে?

     ক. ১টি খ. ২টি     

     গ. ৩টি      ঘ. ৪টি

১২।   বাংলাদেশের সরকার ব্যবস্থার বৈশিষ্ট্য কী?

     ক. রাষ্ট্রপতি শাসিত সরকার         

     খ. নিয়মতান্ত্রিক রাজতন্ত্র

     গ. যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার       

     ঘ. মন্ত্রিপরিষদ শাসিত সরকার ব্যবস্থা

১৩।   বাংলাদেশের শাসনকাজ পরিচালিত হয় কোথা থেকে?

     ক. সংসদ ভবন     

     খ. গণভবন       

     গ. সচিবালয়       

     ঘ. সুপ্রিম কোর্ট

১৪।   কোন বিভাগ সরকারের আয়-ব্যয় নিয়ন্ত্রণ করে?

     ক. আইন বিভাগ          

     খ. শাসন বিভাগ          

     গ. বিচার বিভাগ          

     ঘ. রাষ্ট্রপতির দপ্তর

১৫। বাংলাদেশ সরকারের কাজগুলো সম্পাদনের জন্য তিনটি বিভাগ রয়েছে। বিভাগের ক্ষেত্রে যেটি প্রযোজ্য—

     i. আইন বিভাগ

     ii. শাসন বিভাগ

     iii. বিচার বিভাগ

     নিচের কোনটি সঠিক?

     ক. i ও ii      

     খ. i ও iii       

     গ. ii ও iii       

     ঘ. i, ii ও iii

 

বহু নির্বাচনীর উত্তরগুলো

১. গ ২. গ ৩. ক ৪. ক ৫. গ ৬. ঘ

৭. খ ৮. খ ৯. খ ১০. ক ১১. ক ১২. ঘ ১৩. গ ১৪. ক ১৫. ঘ


মন্তব্য