kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণি : ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র

পাঠ প্রস্তুতি

মো. মাজেদুল হক খান, প্রভাষক, ব্যবস্থাপনা, রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



প্রথম পত্র (বহু নির্বাচনী প্রশ্ন)

১।        কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ কে নির্বাচন করেন?

            ক. কোম্পানি নিবন্ধক

            খ. শেয়ারহোল্ডাররা

            গ. প্রবর্তকরা

            ঘ. ব্যবস্থাপনা প্রতিনিধি

২।

       ABC ও XYZ দুটি কোম্পানি। XYZ কোম্পানি ABC কোম্পানির ৭৫% শেয়ার ক্রয় করে নেয়। XYZ কোম্পানি কোন ধরনের কোম্পানি?

            ক. হোল্ডিং কোম্পানি

            খ. বিধিবদ্ধ কোম্পানি

            গ. প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি

            ঘ. সাবসিডিয়ারি কোম্পানি

৩।      সর্বপ্রথম কোম্পানি আইন চালু হয় কত সালে?

            ক. ১৯১৩ সালে         খ. ১৯৯৪ সালে

            গ. ১৮৪৪ সালে         ঘ. ১৮৫০ সালে

৪।        কার জন্য স্মারকলিপি থাকা বাধ্যতামূলক?

            i. প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি

            ii. পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি

            iii. অংশীদারি ব্যবসায়

            নিচের কোনটি সঠিক?

            ক. i                  খ. ii

            গ. i ও iii       ঘ. i, ii ও iii

৫।        প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি ব্যবসায়ের কাজকর্ম শুরু করতে পারে—

            ক. নিবন্ধনের পর

            খ. বিবরণপত্র প্রচারের পর

            গ. স্মারকলিপি তৈরির পর

            ঘ. কার্যারম্ভের অনুমতিপত্র পাওয়ার পর

৬।       কোম্পানির কোন ধরনের শেয়ারের জন্য শেয়ার মালিকদের কোনো মূল্য পরিশোধ করতে হয় না?

            ক. অগ্রাধিকার শেয়ার

            খ. বোনাস শেয়ার

            গ. বিলম্বিত শেয়ার

            ঘ. সাধারণ শেয়ার

৭।        অবলেখকরা কোম্পানির শেয়ার বা ঋণপত্র বিক্রয়ের দায়িত্ব গ্রহণের জন্য পারিশ্রমিক হিসেবে কী পেয়ে থাকেন?

            ক. সুদ

            খ. লভ্যাংশ

            গ. কমিশন

            ঘ. বেতন

৮।       পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি অতিরিক্ত মূলধন বৃদ্ধির জন্য বিদ্যমান শেয়ারহোল্ডারদের নিকট কোন ধরনের শেয়ার ইস্যু করে?

            ক. রাইট শেয়ার

            খ. সাধারণ শেয়ার

            গ. বিলম্বিত শেয়ার

            ঘ. অগ্রাধিকার শেয়ার

৯।       কোম্পানি সংগঠনে মালিকরা কী নামে পরিচিত?

            ক. ব্যবস্থাপক

            খ. শেয়ারহোল্ডার

            গ. পরিচালক  

            ঘ. নির্বাহী পরিচালক

 

উত্তর :

১. খ ২. ক ৩. গ ৪. গ ৫. ক ৬. খ ৭. গ ৮. ক ৯. খ

 

দ্বিতীয় পত্র (সৃজনশীল প্রশ্ন)

১। উদ্দীপকটি পড়ে নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :

কামাল আহমেদ ও রবিন চৌধুরী একটি ১০০% রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক কারখানায় কর্মরত। তাঁদের কাজকর্মের ওপর প্রতিষ্ঠানের সফলতা নির্ভরশীল। কামাল প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে নীতিমালা পরিকল্পনা প্রণয়ন ও লক্ষ্য নির্ধারণের সঙ্গে জড়িত থাকেন। রবিন প্রতিষ্ঠানের শ্রমিক-কর্মচারীদের তত্ত্বাবধানের সঙ্গে জড়িত। প্রতিষ্ঠানের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য তিনি কর্মীদের উপদেশ-নির্দেশ দেন। তিনিও (রবিন) সময় সময় অর্পিত দায়িত্ব পালনের জন্য নিজস্ব পরিকল্পনা প্রণয়ন করেন।

ক. বৈজ্ঞানিক ব্যবস্থাপনার জনক কে?    

খ. ব্যবস্থাপনা চক্র বলতে কী বোঝায়?  

গ. উদ্দীপকে জনাব কামাল আহমেদ ব্যবস্থাপনার          কোন স্তরে কর্মরত রয়েছেন? বর্ণনা করো।      

ঘ. ‘সাংগঠনিক স্তর বিবেচনায় জনাব রবিন চৌধুরী সিদ্ধান্ত গ্রহণের চেয়ে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের সঙ্গে অধিক মাত্রায় সম্পৃক্ত’ তুমি কী এর সঙ্গে একমত? যুক্তিসহ বিশ্লেষণ করো।    

ক) বৈজ্ঞানিক ব্যবস্থাপনার জনক হলেন ফ্রেডারিক উইনসেলা টেইলর।

খ) সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত মানবীয় ও বস্তুগত উপাদানগুলো দক্ষতার সঙ্গে পরিচালনা করাকে ব্যবস্থাপনা বলে। অর্থাৎ ব্যবস্থাপনা হলো প্রতিষ্ঠানের পূর্বনির্ধারিত লক্ষ্য অর্জনের জন্য পরিকল্পনা, সংগঠন কর্মীসংস্থান, নির্দেশনা প্রেষণা, সমন্বয় সাধন ও নিয়ন্ত্রণ প্রভৃতি ধারাবাহিক কাজের সমষ্টি। এ কাজগুলো পরস্পর পরস্পরের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত এবং একে অপরের পরিপূরক। ব্যবস্থাপনা কার্যাবলির এভাবে পর্যায়ক্রমে বা চক্রাকারে আবর্তিত হওয়াকে ব্যবস্থাপনা চক্র বলে। ব্যবস্থাপনা চক্রে পরিকল্পনার কাজ দিয়ে শুরু হয়ে নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে শেষ হয়।

গ) উদ্দীপকে জনাব কামাল আহমেদ ব্যবস্থাপনার উচ্চস্তরে কর্মরত। প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপকদের পদমর্যাদা অনুযায়ী সংগঠন কাঠামোকে যে স্তরে বিন্যাস করা হয়, তাকে ব্যবস্থাপনা স্তর বলে। ব্যবস্থাপনার স্তরগুলো হলো—উচ্চস্তর, মধ্যমস্তর ও নিম্নস্তর। সংগঠন কাঠামোর যে স্তরে লক্ষ্য নির্ধারণ, পরিকল্পনা প্রণয়ন, পলিসি প্রণয়ন প্রভৃতি গুরুত্বপূর্ণ কার্যাদি সম্পাদন করা হয় তাকে উচ্চস্তরীয় ব্যবস্থাপনা বলে। উদ্দীপকে দেখা যায়, কামাল প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে লক্ষ্য নির্ধারণ ও পরিকল্পনা প্রণয়নের সঙ্গে জড়িত, যা ব্যবস্থাপনার উচ্চস্তরের কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত। সুতরাং বলা যায়, জনাব আকাশ আহমেদ ব্যবস্থাপনার উচ্চস্তরে কর্মরত একজন ব্যবস্থাপক।

ঘ) রবিন সংগঠনে নিম্নস্তরে কর্মরত একজন ব্যবস্থাপক। সংগঠন কাঠামোর সর্বনিম্ন স্তরকে নিম্নস্তরীয় ব্যবস্থাপনা বলে। এ স্তরের ব্যবস্থাপকরা সরাসরি মাঠপর্যায়ে কর্মরত কর্মীদের সঙ্গে সম্পর্কিত। এটি উচ্চস্তরীয় ব্যবস্থাপনা কর্তৃক গৃহীত সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়নে শ্রমিক-কর্মীদের কার্যাবলি তদারক করে থাকে। উদ্দীপকের তথ্যানুযায়ী রবিন প্রতিষ্ঠানের সামগ্রিক পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য অধীনস্থ কর্মচারীদের উপদেশ ও নির্দেশ দিয়ে থাকেন। তাই তিনি সংগঠনের নিম্নস্তরের ব্যবস্থাপক। নিম্নস্তরের ব্যবস্থাপকরা সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত গ্রহণসহ নিজস্ব সহায়ক পরিকল্পনা প্রণয়ন করেন।   রবিনের কাজ হচ্ছে কর্মচারীদের উপদেশ, নির্দেশ প্রদান ও সুষ্ঠু তদারকির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের সামগ্রিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন। তিনি মাঝেমধ্যে অর্পিত দায়িত্ব পালনের জন্য নিজস্ব পরিকল্পনা প্রণয়ন করে সিদ্ধান্ত নেন।

সুতরাং বলা যায়, যেহেতু রবিন একজন নিম্নস্তরের ব্যবস্থাপক, তাই তিনি সিদ্ধান্ত গ্রহণের চেয়ে ব্যবস্থাপনার উচ্চ ও মধ্যমস্তর কর্তৃক গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের সঙ্গে অধিক মাত্রায় সম্পৃক্ত।

 


মন্তব্য