kalerkantho


গুরুত্বপূর্ণ টপিক ও প্রশ্ন

এইচএসসি প্রস্তুতি : জীববিজ্ঞান দ্বিতীয় পত্র

মো. সুজাউদ্দৌলা, সাবেক প্রভাষক, ন্যাশনাল আইডিয়াল কলেজ, খিলগাঁও, ঢাকা   

২০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



এইচএসসি প্রস্তুতি :  জীববিজ্ঞান দ্বিতীয় পত্র

প্রাণীর বিভিন্নতা ও শ্রেণিবিন্যাস

 

জ্ঞানমূলক :

শ্রেণিবিন্যাস, ট্যাক্সন, প্রতিসাম্যতা, কর্ডাটা, প্রাণীবৈচিত্র্য, জীববৈচিত্র্য, জার্মস্তর/ভ্রূণস্তর, নটোকর্ড, ভার্টিব্রাটা, প্রজাতি, ডিপ্লোব্লাস্ট বা দ্বিভ্রূণস্তরী প্রাণী, ডাইফিসার্কাল, খণ্ডকায়ন বা মেটামেরিজম, অস্টিয়া, ট্যাগমাটাইজেশন, প্যারাপোডিয়া, পলিপ, মায়োটোম, শিখাকোষ, সিটি, সিস্টেম্যাটিক্স, ন্যাথোস্টোমাটা, সরীসৃপ, শ্রেণিবিন্যাসবিদ্যা, নেফ্রিডিয়া, ত্রিপদ নামকরণ।

অনুধাবনমূলক :

১। দ্বিপদ নামকরণ বলতে কী বোঝায়?

২। ভার্টিব্রাটার বৈশিষ্ট্যসমূহ লেখো।

৩। অপ্রকৃত সিলোমযুক্ত প্রাণী বলতে কী বোঝায়?

৪। প্রাণীর বিভিন্নতার কারণ কী?

৫। কর্ডাটা পর্বের ৩টি শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য লেখো।

৬। প্রাণীজগতের সবচেয়ে বড় পর্বের শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য লেখো।

৭। ভ্রূণস্তরের সংখ্যার ভিত্তিতে প্রাণীজগতের শ্রেণিবিন্যাস করো।

৮। তিমি কেন মাছ নয়?

৯। চিংড়ি কেন মাছ নয়?

১০। জীববৈচিত্র্য বলতে কী বোঝো?

প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক :

১। প্রতিসাম্যতার ভিত্তিতে প্রাণীর শ্রেণিবিন্যাস করো।

২। সিলোমের ভিত্তিতে প্রাণীর শ্রেণিবিন্যাস করো।

৩। দ্বিপদ নামকরণের নিয়মাবলি লেখো।

৪। প্রাণীজগতের মেজর পর্বসমূহের উদাহরণসহ শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য লেখো।

৫। কর্ডাটা ও নন-কর্ডাটার মধ্যে পার্থক্য লেখো।

৬। সব মেরুদণ্ডী কর্ডেট কিন্তু সব কর্ডেট মেরুদণ্ডী নয়।

৭। ভার্টিব্রাটার অন্তর্ভুক্ত শ্রেণিসমূহের উদাহরণসহ শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য লেখো।

 

প্রাণীর পরিচিতি

প্রতীক প্রাণী : হাইড্রা (২.১)

 

জ্ঞানমূলক :

মেসোগ্লিয়া, নিডোসাইট, নেমাটোসিস্ট, হিপনোটক্সিন, মুকুলোদগম, মিথোজীবিতা, অন্তঃকোষীয় পরিপাক, কর্ষিকা, সিলেনটেরন, হাইপোস্টোম, ইন্টারস্টিশিয়াল কোষ, ব্লাস্টুলেশন, হাইড্রুলা, গ্লাইডিং, পুনরুত্পত্তি, নেমাটোসিস্ট ব্যাটারি, শ্রমবণ্টন।

অনুধাবনমূলক :

১। হাইড্রার চলনে গ্লুটিন্যান্ট নেমাটোসিস্ট কিভাবে কাজ করে?

২। মিথোজীবিতা বলতে কী বোঝায়?

৩। মেসোগ্লিয়ার গুরুত্ব লেখো।

৪। হাইড্রাকে কেন দ্বিস্তরী প্রাণী বলা হয়?

৫। সিলেন্টেরনকে পরিবহন সংবহন গহ্বর বলা হয় কেন?

৬। শৈবালের সঙ্গে মিথোজীবী হিসেবে হাইড্রা কিভাবে উপকৃত হয়?

৭। হাইড্রা উভয় লিঙ্গ হওয়া সত্ত্বেও স্বনিষেক হয় না কেন?

৮। হাইড্রার দ্রুত চলন প্রক্রিয়া সম্পর্কে লেখো।

৯। হাইড্রার স্বাভাবিক মৃত্যু নেই—ব্যাখ্যা করো।

১০। হাইড্রার বাহ্যিক গঠনের বর্ণনা দাও।

প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক :

১। হাইড্রার এপিডার্মিসের কোষসমূহের নাম ও কাজ লেখো।

২। নিডোসাইট কোষের গঠন বর্ণনা করো।

৩। নেমোটোসিস্টের প্রকারভেদ লেখো।

৪। নেমোটোসিস্টের সূত্রক নিক্ষেপের কৌশল লেখো।

৫। হাইড্রার গ্যাস্ট্রোডার্মিসের কোষসমূহের নাম ও কাজ লেখো।

৬। হাইড্রার বহিঃকোষীয় ও আন্তঃকোষীয় পরিপাকের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

৭। হাইড্রার মুকুলোদগম জনন সম্পর্কে লেখো।

৮। হাইড্রার পরস্ফুিটনের ধাপসমূহ বর্ণনা করো।

৯। হাইড্রার বহিঃত্বক ও অন্তঃত্বকের মধ্যে তুলনা করো।

১০। হাইড্রার চলন সম্পর্কে বর্ণনা দাও।

 

প্রতীক প্রাণী : ঘাসফড়িং (২.২)

 

জ্ঞানমূলক :

হেড ক্যাপসুল, হিমোসিল, হিমোলিম্ফ, ম্যালপিজিয়ান, নালিকা, ওসেলাস, টেগমিনা, টার্গাম, নস্ফি, মোল্টিং, স্টার্নাম, স্পাইরাকল, ওভিপিজিটর, হাইপোগন্যাথাস, ল্যাবিয়াম, স্টোমোডিয়াম, বায়ুথলি, পঙ্গপাল, টিনিডিয়া, ডায়াপোজ, ইমগো, মুখোপাঙ্গ, অ্যান্টেনা, স্পার্মাথিকা, কোলোটারাল গ্রন্থি, অস্টিয়াম, হেমিমেটাবোলাস, রূপান্তর, মান্ডিবল, প্রোনোটাম, ট্রাকিয়ালতন্ত্র, ইন্টিমা, মাইক্রোপাইল, ওমাটিডিয়া, সুপারপরিজশন প্রতিবিম্ব।

অনুধাবনমূলক :

১। পুঞ্জাক্ষি ও সরলচক্ষুর মধ্যে পার্থক্য লেখো।

২। হিমোসিল বলতে কী বোঝো?

৩। উন্মুক্ত রক্ত সংবহনতন্ত্র বলতে কী বোঝো?

৪। ঘাসফড়িংয়ের রক্তকে হিমোলিম্ফ বলা হয় কেন?

৫। Insecta (ইনসেক্টা) শ্রেণির বৈশিষ্ট্য লেখো।

৬। ঘাসফড়িংয়ের শ্রেণিবিন্যাসগত অবস্থান লেখো।

৭। স্ত্রী ও পুরুষ ঘাসফড়িংয়ের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

৮। ঘাসফড়িংয়ের মুখোপাঙ্গকে ম্যান্ডিবুলেট বলে কেন?

৯। ঘাসফড়িংয়ের রূপান্তর প্রক্রিয়ায় হরমোনের ভূমিকা লেখো।

প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক :

১। মুখোপাঙ্গের বিভিন্ন অংশের নাম ও কাজ (চিহ্নিত চিত্রসহ) লেখো।

২। ঘাসফড়িংয়ের দেহে ঘাস, শস্যদানা ও লতাপাতার পরিপাক পদ্ধতির বর্ণনা দাও।

৩। ঘাসফড়িংয়ের শ্বসনতন্ত্রের বর্ণনা দাও।

৪। ঘাসফড়িংয়ের প্রধান রেচনতন্ত্রের গঠন ও কাজ লেখো।

৫। ঘাসফড়িংয়ের রূপান্তর প্রক্রিয়ার বর্ণনা দাও।

৬। ঘাসফড়িংয়ের ওমাটিডিয়ামের বিভিন্ন অংশের নাম ও কাজ লেখো।

৭। ঘাসফড়িংয়ের সুপারপজিশন ও অ্যাপোজিশন দর্শন কৌশলের বর্ণনা ও পার্থক্য লেখো।

৮। ঘাসফড়িংয়ের রক্ত সংবহন প্রক্রিয়ার বর্ণনা দাও।

 

প্রতীক প্রাণী : রুই মাছ (২.৩)

 

জ্ঞানমূলক :

স্ট্রিমলাইন্ড, ম্যাক্সিলারি বার্বেল, কানকো, ব্রাঙ্কিওস্টেগাল পর্দা, সাইক্লয়েড আঁইশ, সাইনাস ভেনাস, ভেন্ট্রাল অ্যাওটা, অন্তর্বাহী ব্রঙ্কিয়াল ধমনি, অপথ্যালমিক ধমনি, ডর্সাল অ্যাওটা, কডাল শিরা, হেমিব্রাঙ্ক, পটকা, নিউম্যাটিক নালি, মায়োটোম, স্পনিং, পেকটিনেট ফুলকা, সারকুলাস কার্প ফিশ, বাল্বাস অ্যাওটা, ভেনাসহার্ট, পোর্টাল, শিরাতন্ত্র, ডিমারসাল ডিম, ট্রান্সভার্স এনাস্টোমোসিস।

অনুধাবনমূলক :

১। রুই মাছের হূপণ্ড একমুখী বলতে কী বোঝো?

২। Osteichthyes শ্রেণির বা রুই মাছ যে শ্রেণির অন্তর্ভুক্ত তার বৈশিষ্ট্য লেখো।

৩। অন্তর্বাহী ও বহির্বাহী ব্রঙ্কিয়াল ধমনির প্রধান পার্থক্য লেখো।

৪। রুই মাছের হূিপণ্ড গঠনকারী প্রকোষ্ঠগুলোর নাম লেখো।

৫। ভেনাস হার্ট বলতে কী বোঝো?

৬। ওয়েবেরিয়ান অসিকল কিভাবে রুই মাছের দেহে কাজ করে?

৭। প্রাকৃতিক সংরক্ষণ বলতে কী বোঝো?

৮। মৌসুমি অভয়াশ্রম বলতে কী বোঝো?

৯। রুই মাছের দেহে বিদ্যমান বিভিন্ন ধরনের পাখনার নাম লেখো।

প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক :

১। রুই মাছের ধমনিতন্ত্রের বর্ণনা দাও।

২। রুই মাছের শিরাতন্ত্রের বর্ণনা দাও।

৩। বায়ুথলির গঠন ও কাজ লেখো।

৪। রুই মাছের শ্বসন পদ্ধতির বর্ণনা দাও।

৫। রুই মাছের পরস্ফুিটন প্রক্রিয়ার বর্ণনা দাও।

৬। রুই মাছের প্রাকৃতিক সংরক্ষণের গুরুত্ব লেখো।

 

মানব শারীরতত্ত্ব (পরিপাক ও শোষণ)

 

জ্ঞানস্তরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন

পরিপাক, পৌষ্টিকতন্ত্র, খাদ্যমণ্ড, কাইম, গ্যাস্ট্রিক, সাইনুসয়েড, কোয়াড্রেট, গ্লাইকোজেনেসিস, গ্লুকোনিওজেনেসিস, ডিঅ্যামিনেশন, ট্রান্সঅ্যামিনেশন, কুফার কোষ, উইসাং নালি, গ্যাস্ট্রিক জুস, ইমালসিফিকেশন, কাইলোমাইক্রন, ল্যাকটিয়েল, ভিলাই, স্থূলতা, বেরিয়াট্রিকস, কাইল, অ্যাপেনডিক্স, স্বাদকোরক, অ্যাসিডোসিস, গবলেট কোষ, টায়ালিন, পরিপাকগ্রন্থি, শোষণ, পেরিস্টালসিস, পিত্তরস।

অনুধাবনমূলক :

১। কোন ধরনের খাদ্য পরিপাকের প্রয়োজন হয় না?

২। সামগ্রিক ওজনসূচক (ইগও) বলতে কী বোঝায়?

৩। খাদ্য পরিপাকে মিউসিনের ভূমিকা লেখো।

৪। ডি-অ্যামাইনেশের সঙ্গে যকৃতের সম্পর্ক লেখো।

৫। পাকস্থলীতে শর্করাজাতীয় খাদ্য পরিপাক হয় না কেন?

৬। মানুষের মুখগহ্বরে পরিপাক প্রক্রিয়া লেখো।

৭। পিত্তরস কিভাবে ক্ষারীয় পরিবেশ সৃষ্টি করে?

৮। লালার উপাদান ও কাজ লেখো।

৯। গ্যাস্ট্রিক গ্রন্থির কোষসমূহের নাম লেখো।

১০। যকৃতের উত্পাদন সম্পৃক্ত কাজ লেখো।

প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক :

১। মুখগহ্বরের খাদ্যের যান্ত্রিক ও রাসায়নিক পরিপাক সম্পর্কে লেখো।

২। পাকস্থলীতে খাদ্যের যান্ত্রিক ও রাসায়নিক পরিপাক সম্পর্কে লেখো।

৩। যকৃতের সঞ্চয়ী ও বিপাকীয় ভূমিকা সম্পর্কে লেখো।

৪। পরিপাকে স্নায়ুতন্ত্রের ভূমিকা লেখো।

৫। ক্ষুদ্রান্ত্রে আমিষ ও শর্করা পরিপাক সম্পর্কে লেখো।

৬। অগ্ন্যাশয়ের গঠন ও কাজ সম্পর্কে লেখো।

৭। স্থূলতার কারণ ও প্রতিরোধ ব্যবস্থা সম্পর্কে লেখো।

 

মানব শারীরতত্ত্ব (রক্ত ও সঞ্চালন)

 

জ্ঞানমূলক :

রক্ত, প্লাজমা, লসিকা, কাইল, পেরিকার্ডিয়াম, কার্ডিয়াক চক্র, পার্কিনজি তন্তু, ব্যারোরিসিপ্টর, আয়তন রিসিপ্টর, অ্যানজাইনা বা হূদশুল, পেসমেকার, করোনারি বাইপাস, আর্টারিওস্ক্লেরোসিস, এনজিওপ্লাস্টি, সিস্টোল, ডায়াস্টোল, হার্টবিট, লিউকোমিয়া, সিরাম, মাইট্রাল ভালভ, মায়োজেনিক, ইওসিনোফিল, করোনারি ধমনি, পালমোনারি ধমনি, কপাটিকা, লাব-ডাব শব্দ।

অনুধাবনমূলক :

১। রক্তচাপ বলতে কী বোঝো?

২। লসিকা ও রক্তের মধ্যে সম্পর্ক কী?

৩। উচ্চ রক্তচাপের জটিলতাসমূহ লেখো।

৪। করোনারি বাইপাস সার্জারি বলতে কী বোঝায়?

৫। মানবদেহে রক্ত সঞ্চালনে পার্কিনজি আঁশের ভূমিকা লেখো।

৬। করোনারি সংবহন বলতে কী বোঝো?

৭। রক্তের প্লাজমার উপাদানগুলোর নাম লেখো।

৮। রক্তের কণিকাগুলোর নাম লেখো।

৯। রক্তের কাজ লেখো।

১০। রক্ততঞ্চন বলতে কী বোঝো?

প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক :

১। হূিপণ্ডের চিহ্নিত চিত্র অঙ্কন করো।

২। হূিপণ্ডের প্রকোষ্ঠ ও কপাটিকাসমূহের বর্ণনা দাও।

৩। হূত্চক্রের ধাপসমূহের বর্ণনা দাও।

৪। সিস্টেমিক রক্ত সংবহন প্রক্রিয়ার বর্ণনা দাও।

৫। পালমোনারি সংবহন প্রক্রিয়ার বর্ণনা দাও।

৬। রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ আয়তন রিসেপ্টরের ভূমিকা লেখো।

৭। হার্ট অ্যাটাক ও হার্ট ফেইলিওরের লক্ষণ ও করণীয় লেখো।

৮। এনজিওপ্লাস্টির প্রকারভেদ লেখো।

 

মানব শারীরতত্ত্ব (শ্বাস ক্রিয়া ও শ্বসন)

 

জ্ঞানমূলক :

ভেস্টিবিউল, স্বরযন্ত্র/ল্যারিংক্স, সেরাস ফ্লুইড, অ্যালভিওলাই, প্রশ্বাস, নিঃশ্বাস, ব্রঙ্কিওল, অক্সি-হিমোগ্লোবিন, হিমোগ্লোবিন, সাইনুসাইটিস, ওটিটিস মিডিয়া, প্ল্যুরা, নাসাগলবিল, সারফেকট্যান্ট, কার্বামিনো যৌগ, এপিগ্লটিস, ট্রাকিয়া, অন্তঃশ্বসন, কানপাকা, টিম্পেনোমেট্রি, ব্রঙ্কাইটিস, এমফাইসেমা, মায়োগ্লোবিন, হাঁপানি।

অনুধাবনমূলক :

১। সাইনোসাইটিস রোগীকে কিভাবে শনাক্ত করবে?

২। শ্বসনতন্ত্রের স্বর উত্পন্নকারী অংশটির বর্ণনা করো।

৩। শ্বসনে শ্বাসরঞ্জক বা হিমোগ্লোবিনের ভূমিকা লেখো।

৪। প্রকৃতি থেকে বায়ু ফুসফুসে প্রবেশের প্রক্রিয়া সম্পর্কে লেখো।

৫। শিশুদেহে সাইনোসাইটিসের লক্ষণসমূহ লেখো।

৬। শ্বসনে ডায়াফ্রামের ভূমিকা লেখো।

৭। একিউট সাইনোসাইটিস বলতে কী বোঝো?

৮। প্লুরোসি কিভাবে শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা করে?

৯। বহিঃ ও অন্তঃশ্বসন বলতে কী বোঝো?

১০। খাবার খাওয়ার সময় খাদ্যবস্তু শ্বাসনালিতে প্রবেশ না করার কারণ ব্যাখ্যা করো।

 

প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক :

১। মানুষের শ্বসনতন্ত্রের বিভিন্ন অংশের নাম ও কাজ লেখো (চিহ্নিত চিত্রসহ)।

২। অ্যালভিওলাসের গঠন বর্ণনা করো।

৩। অন্তঃশ্বসনে ঙ২ ও ঈঙ২ পরিবহন প্রক্রিয়ার বর্ণনা দাও।

৪। ওটিটিস মিডিয়ার লক্ষণ ও প্রতিকার লেখো।

৫। ধূমপান ও বায়ুদূষণের কারণে শ্বসনতন্ত্রের, বিশেষ করে ফুসফুসের ক্ষতিসমূহ উল্লেখ করো।

 

ষষ্ঠ অধ্যায় : মানব শারীরতত্ত্ব (বর্জ্য ও নিষ্কাশন)

 

জ্ঞানমূলক :

রেচনতন্ত্র, বৃক্ক, নেফ্রন, অসমোরেগুলেশন, গ্লোমেরুলাস, পোডোসাইট, ম্যালপিজিয়ান বডি, হাইলাম, হেনলির লুপ, বোম্যানস ক্যাপসুল, হিমোডায়ালিসিস, কর্টেক্স, ইউরেটার, ডাইয়ুরেটিক, মূত্র, ডায়ালিসিস, সংগ্রাহী নালিকা, রেনাল ক্যাপসুল, ডি-অ্যামিনেশন।

অনুধাবনমূলক :

১। গ্লোমেরুলার ফিলট্রেট বলতে কী বোঝায়?

২। সব রেচন পদার্থই বর্জ্য পদার্থ, কিন্তু সব বর্জ্য পদার্থ রেচন পদার্থ নয়—কেন?

৩। বোম্যানস ক্যাপসুল বলতে কী বোঝায়?

৪। একটি রেনাল করপাসলের উপাদানসমূহ লেখো।

৫। অসমোরেগুলেশনে হরমোনের ভূমিকা লেখো।

৬। বৃক্কের তাত্ক্ষণিক বিকল হওয়ার কারণ লেখো।

৭। আলট্রাফিলট্রেশন বলতে কী বোঝো?

৮। মালপিজিয়ান বডি বলতে কী বোঝো?

৯। মূত্রের প্রধান উপাদানসমূহের নাম লেখো।

১০। মানুষের রেচনতন্ত্রের অঙ্গগুলোর নাম লেখো।

প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক :

১। চিহ্নিত চিত্রসহ বৃক্কের বাহ্যিক ও অভ্যন্তরীণ গঠন বর্ণনা করো।

২। নেফ্রনের চিত্রসহ গঠন বর্ণনা করো।

৩। মূত্র সৃষ্টির কৌশল বর্ণনা করো।

৪। অসমোরেগুলেশনে বৃক্কের ভূমিকা লেখো/পানির সাম্যতা নিয়ন্ত্রণে বৃক্কের ভূমিকা লেখো।


মন্তব্য