kalerkantho

সোমবার । ১৬ জানুয়ারি ২০১৭ । ৩ মাঘ ১৪২৩। ১৭ রবিউস সানি ১৪৩৮।


দশম শ্রেণি : আইসিটি

পাঠ প্রস্তুতি

শামীমা আক্তার,সিনিয়র শিক্ষক,বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ পাবলিক কলেজ,পিলখানা, ঢাকা   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



প্রশ্ন : ফাইল রিপ্লেস কমান্ডের কাজ কী? সারণি কী? মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে সারণি যোগ করার নিয়ম লেখো।

উত্তর : ফাইল রিপ্লেস কমান্ডের কাজ হলো ওয়ার্ড প্রসেসরের কোনো ডকুমেন্ট থেকে অল্প সময়ে শব্দ খোঁজা এবং সঠিক শব্দটি প্রতিস্থাপন বা রিপ্লেস করা।

সারণি হলো কলাম ও সারিবিশিষ্ট (রো) ঘর বা ঘরের সমষ্টি, যেখানে বিভিন্ন রকম তথ্য বা উপাত্ত থাকে। এটি ওয়ার্ড প্রসেসরে লেখালেখির সাজসজ্জার অংশ হিসেবেও ব্যবহার হয়।

মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে সারণি (টেবিল) যোগ করার নিয়ম :

১।         ওয়ার্ড ২০০৭-এর ইনসার্ট ট্যাবে ক্লিক করতে হবে।

২।        ওয়ার্ড ২০০৭-এর টেবিল ড্রপডাউনে ক্লিক করে ইনসার্ট টেবিল অপশন ক্লিক করতে হবে। এরপর একটি ডায়ালগ বক্স আসবে।

৩।        ডায়ালগ বক্সের টেবিল সাইজের দুটি অপশন নাম্বার অব কলাম এবং নাম্বার অব রো-এ যথাক্রমে টেবিলের কলাম ও সারির সংখ্যা অনুসারে কলাম ও সারি নিয়ে একটি টেবিল বা সারণি তৈরি হয়ে যাবে।

৪।        এ ছাড়া টেবিল ড্রপ ডাউনের নিচে ইনসার্ট টেবিলের একটি ডায়ালগ বক্স থাকে, যেখানে ১০টি কলাম ও ৮টি রোসংবলিত কিংবা এর চেয়ে কম রো ও কলাম নিয়ে টেবিল তৈরির জন্য বক্স আকারে আইকন দেওয়া থাকে। এসব আইকনে মাউস নাড়িয়ে কাঙ্ক্ষিত টেবিলটি তৈরি করা যায়।

প্রশ্ন : ওয়ার্ড প্রসেসর কী? ওয়ার্ড প্রসেসর ব্যবহারের সুবিধাগুলো লেখো।

উত্তর : তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির বিকাশের ফলে বর্তমানে সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে খুব সহজেই লেখালেখির কাজ করা যায়। লেখালেখির জন্য যে সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয় তাকে ওয়ার্ড প্রসেসর বলে। এসব সফটওয়্যার ডেস্কটপ, ল্যাপটপ, স্মার্টফোন ইত্যাদিতে ব্যবহার করা যায়।

ওয়ার্ড প্রসেসর ব্যবহারের সুবিধাগুলো নিচে দেওয়া হলো :

১.       নির্ভুলভাবে লেখালেখির কাজ করা যায় এবং ভুল হলে সঙ্গে সঙ্গে সংশোধন করা যায়।

২.       ফন্ট স্টাইল ইচ্ছামতো নির্বাচন করা যায় এবং ফন্টের সাইজ ও রং নির্ধারণ করা যায়।

৩.      সম্পাদনার সুযোগ থাকায় লেখার কাজ নান্দনিকভাবে উপস্থাপন করা যায়।

৪.       আগের লেখা না মুছে নতুন করে লেখা যায়।

৫.       ছবি, গ্রাফ, টেবিল, চার্ট ইত্যাদি সংযোজন করা যায়।

৬.       একই সঙ্গে একাধিক ডকুমেন্ট নিয়ে কাজ করা যায়।

৭.       ডকুমেন্টকে সংরক্ষণের পাশাপাশি ইচ্ছামতো যেখানে খুশি সেখানে সরানো যায়।


মন্তব্য