kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শততম জয়ে অভিনন্দন

মাঠের নিরাপত্তা নিয়ে ভাবতে হবে

৩ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



শততম জয়ে অভিনন্দন

আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজে ওয়ানডে ক্রিকেটে শততম জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে কষ্টার্জিত জয়, দ্বিতীয় ম্যাচে হেরে যাওয়ার পর তৃতীয় ম্যাচে সহযোগী একটি দেশের কাছে হেরে যাওয়ার শঙ্কা ছিল।

আগের দুই ম্যাচে অলরাউন্ড পারফরম্যান্স দেখানো আফগানিস্তানকে ছোট করে দেখার কোনো কারণ ছিল না। তামিম-সাব্বির জুটির লড়াকু ইনিংস বাংলাদেশ দলের জন্য যে শক্ত ভিত্তি গড়ে দেয়, তা ভাঙতে পারেনি আফগানিস্তান। দলের শততম জয়ের ম্যাচে শতক উপহার দিয়েছেন তামিম ইকবাল। সাব্বির রহমানও খেলেছেন ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস। বাংলাদেশের এটা টানা ষষ্ঠ সিরিজ জয়। ৭ অক্টোবর শুরু হচ্ছে ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে এই সিরিজ জয় দলের জন্য প্রেরণা হয়ে থাকবে।

ইংল্যান্ড সফরের আগে আফগানিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে সিরিজ অনেকটা ওয়ার্ম আপের কাজ করেছে। কারণ এই সিরিজের আগে দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে ছিল দলটি। প্রথম দুই ম্যাচেই তার প্রতিফলন দেখা গেছে। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং—প্রথম দুই ম্যাচে প্রতিটি ডিপার্টমেন্টে বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের ব্যর্থতা ছিল চোখে পড়ার মতো। সহযোগী একটি দলের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের জয় সহজ ছিল না। দ্বিতীয় ম্যাচেই মুখ থুবড়ে পড়ে দল। ফলে তৃতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানো খুব প্রয়োজন ছিল। ইংল্যান্ড সিরিজ শুরুর আগে এই জয় দলের মনোবল আরো বাড়িয়ে দেবে তাতে সন্দেহ নেই। আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের এই সিরিজ থেকে শিক্ষা নেওয়ার আছে। এই সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেনি বাংলাদেশ। বড় কোনো ইনিংস বা লম্বা জুটি গড়ে তোলা যায়নি। আগের দুই ম্যাচের মতো তৃতীয় ম্যাচেও এসে দেখা গেছে ব্যাটসম্যানদের মধ্যে আড়ষ্টতা কাটেনি। ফিল্ডিং নিয়েও নতুন করে ভাবতে হবে। তৃতীয় ম্যাচে উজ্জীবিত ইনিংস মাত্র এক জুটির। এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে না পারলে আগামী দিনে খুব ভালো ফল আশা করা যায় না। খেলোয়াড়দের সামর্থ্যের ঘাটতি আছে এমন কথা বলা যাবে না। গত তিন ম্যাচে যাঁরা খেলেছেন, এই খেলোয়াড়রাই বিদেশের মাটিতে খেলে এসেছেন। নিজেদের উজাড় করে দিয়েছেন। কিন্তু দেশের মাটিতে তাঁরা নিজেদের মেলে ধরতে পারছেন না কেন?

বাংলাদেশের মানুষ ক্রিকেট দেখে আবেগ দিয়ে। এই আবেগের বহিঃপ্রকাশও আমরা দেখেছি তৃতীয় ম্যাচে। বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফির এক ভক্ত গ্যালারি থেকে মাঠের ভেতরে ছুটে গিয়ে তাঁকে আলিঙ্গন করেছেন। বিদেশের মাটিতে এমন অনেক ঘটনা ঘটলেও বাংলাদেশে এ ধরনের ঘটনা এটাই প্রথম। নিরাপত্তাকর্মীদের চোখ ফাঁকি দিয়ে কোনো একজন দর্শক কী করে মাঠে ঢুকে গেলেন, তা নিয়ে ভাবতে হবে। আমাদের মনে রাখতে হবে, সামনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ। নিরাপত্তার প্রশ্নে ইংল্যান্ড দল বাংলাদেশে আসতেই চায়নি। আর দর্শকদেরও মনে রাখতে হবে, ক্রিকেট অন্য রকম খেলা। এখানে গ্যালারিতেও ইচ্ছামতো আচরণ করা যায় না। আমরা আশা করব, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলাগুলোতে নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্ব দেওয়া হবে। শততম ম্যাচজয়ী বাংলাদেশ দলকে আমাদের অভিনন্দন। শুভকামনা আগামী সিরিজের জন্য। 1


মন্তব্য