kalerkantho


দুর্ঘটনা নয়, হত্যা

দায়ী চালকদের উপযুক্ত শাস্তি দিন

২২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর হার আশঙ্কাজনক। চালকদের বেপরোয়া আচরণ, আইন না মানা, চলাচলের অনুপযুক্ত গাড়ি রাস্তায় নামানোসহ নানা কারণে সড়ক দুর্ঘটনা নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

কিছু দুর্ঘটনা হয়তো অপ্রতিরোধ্য। কিন্তু পরিবহনকর্মীরাও অনেক সময় ক্রোধে উন্মত্ত হয়ে যাত্রী বা চালকদের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে। কিছুদিন আগে রাজধানীর উত্তরায় ‘তুই সর, নাইলে পিষ্যা ফালামু’ বলেই এক চালক যাত্রীবাহী বাস তুলে দিয়ে একজন অটোরিকশাচালককে খুন করেছে। রবিবার মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় এক যাত্রীবাহী বাসের লোকজন নিজেদের স্থানীয় সহযোগীদের নিয়ে এক যাত্রীকে শুধু মারধরই করেনি, তাকে চলন্ত গাড়ির নিচে ঠেলে দিয়ে হত্যা করেছে। কোনো সমাজে এ ধরনের নৃশংসতা মানা যায় না। নিহত ব্যক্তিটি দাদির জানাজায় অংশ নিতে বাড়ি যাচ্ছিলেন। আন্তজেলা বাস হওয়ার পরও চালক বারবার বাস থামিয়ে দেরি করছেন দেখে তিনি প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। হত্যা করে তাঁর প্রতিবাদী মুখ চিরতরে বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরিহাস হচ্ছে, এই নিহত ব্যক্তিটিও পেশায় গাড়িচালক। দেখা যায়, অনেক চালকের আচরণ নিরাপদ নয়। চালকরা মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে গাড়ি চালান। দুর্ঘটনার ব্যাপারে যাত্রীরা সাবধান করতে গেলে উল্টো হয়রানির শিকার হতে হয়। গত পরশু রাজধানীর এয়ারপোর্ট রোডে দুই বাসের চালকদের বেপরোয়া চালনার শিকার হয়ে একটি প্রাইভেট কারের তিন আরোহী ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান। আসলে কর্তৃপক্ষ এমন কিছু মানুষের হাতে গাড়ি চালনার লাইসেন্স তুলে দিচ্ছে যাদের ‘নরপশু’ বললেও কম বলা হয়। দেশে তুচ্ছ কারণে মানুষ খুন করা, আইনকানুনের তোয়াক্কা না করার প্রবণতা বাড়ছে। এখন গাড়ির চালকরাও যদি নরখুনি হিসেবে আবির্ভূত হয়,  তাহলে সাধারণ মানুষ কোথায় যাবে?

দেশে সড়ক দুর্ঘটনার হার এত বেশি হওয়ার পরও মামলা বা শাস্তির নজির খুব কম। মুন্সীগঞ্জ ও ঢাকার দুর্ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের কেউই ধরা পড়েনি। যেকোনো অপরাধেরই যথোপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করা উচিত। তা না হলে অপরাধপ্রবণতা বাড়ে। কোনো চালক স্বেচ্ছায় কাউকে গাড়িচাপা দিয়ে হত্যা করলে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় অভিযোগ এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। ইচ্ছা-অনিচ্ছায় মানুষ মেরেও যখন চালকরা পার পেয়ে যায়, তখন তারা আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। এ বিষয়ে পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট সবার সততা কাম্য। মানসিকভাবে অযোগ্য ব্যক্তিদের হাতে গাড়ি চালনার সনদও তুলে দেওয়া যাবে না।


মন্তব্য