kalerkantho


স্বাস্থ্য সংবাদ

অনিদ্রায় হয় অ্যাজমা

৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



নতুন এক গবেষণায় জানা গেছে, প্রাপ্তবয়স্কদের অ্যাজমার পেছনে কেবল পরিবেশদূষণ, ধূমপান ইত্যাদি দায়ী নয়, অনিদ্রাও দায়ী। এমনিতে বিশ্বজুড়ে অ্যাজমা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

আমেরিকান একাডেমি অব অ্যাজমা অ্যান্ড ইমিউনোলজির মতে, প্রতি ১০টি শিশুর একটি এবং প্রাপ্তবয়স্কদের প্রতি ১২ জনের একজন অ্যাজমায় আক্রান্ত। এটি এমন একটি দীর্ঘমেয়াদি রোগ, যাতে ফুসফুসের অভ্যন্তরে বায়ুকুঠুরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অতি ওজন, ভাইরাস ইনফেকশন, অ্যালার্জি, পারিবারিক ইতিহাস, রাসায়নিকের সংস্পর্শ, ধুলাবালিযুক্ত পরিবেশে অ্যাজমার প্রকোপ বাড়ে। কিন্তু কিছুদিন আগে পরিচালিত এক গবেষণার ফলাফলে বলা হয়েছে শুধু এগুলোই কারণ নয়, উদ্বিগ্নতা, বিষণ্নতা ও অনিদ্রাও অ্যাজমার প্রকোপ বাড়ায়। সম্প্রতি এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে ইউরোপিয়ান রেসপিরেটরি জার্নালে। এতে বলা হয়েছে, দীর্ঘদিন অনিদ্রায় ভুগলে যার অ্যাজমা নেই সেও এতে আক্রান্ত হতে পারে।   গবেষণাটি পরিচালনা করেছে নরওয়েজিয়ান ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির পাবলিক হেলথ ডিপার্টমেন্ট। গবেষকদল ২০ থেকে ৬৫ বছর বয়সী ১৭ হাজার ৯২৭ জনের তথ্য সংগ্রহ করে ২০ বছর ধরে। দেখা গেছে, যাদের ঘুমের কোনো অসুবিধা নেই তাদের মধ্যে এই দীর্ঘ সময়ে নতুন করে অ্যাজমায় আক্রান্তের সংখ্যা খুব কম। কিন্তু যাদের অনিদ্রা আছে বা যারা অনিয়ম করে ঘুমায় বা যাদের ঘুমজনিত অসুখ আছে তাদের নতুন করে অ্যাজমা আক্রান্তের হার অনেক বেশি।

 

ডা. শামীমুর রহমান এমএনটি থেকে


মন্তব্য