kalerkantho


নারিকেলগাছ ভেঙে রিকশার ওপর

বইমেলা থেকে বাড়ি ফেরা হলো না মিতুর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



বইমেলা থেকে বাড়ি ফেরা হলো না মিতুর

বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে যাত্রাবাড়ী থেকে বইমেলায় এসেছিলেন মিতু ঘোষ (২৫)। বইমেলায় কেনাকাটা শেষে তাঁর আর বাসায় ফেরা হলো না। মেলা থেকে বেরিয়ে দোয়েল চত্বর থেকে রিকশা নিয়েছিলেন বাড়ি ফেরার জন্য। কিছুদূর এগোতেই একটি নারিকেলগাছ ভেঙে পড়ে রিকশার ওপর। এতে নিহত হন মিতু। নারিকেলগাছের চাপায় পড়ে সিএনজি অটোরিকশায় থাকা একই পরিবারের চারজন আহত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে দুজনের অবস্থা গুরুতর। আহতরা হলেন খোরশেদ আলম (৫৫), তাঁর স্ত্রী সেলিনা আলম (৩৫), মেয়ে সেহরিন আলম (১৮) এবং সাজরিন আলম (১০)। এ ছাড়া রিকশা আরোহী ধনরঞ্জন ঘোষ (৩০), স্বপ্না (৩২), পথচারী মহসিন (২৮) আহত হয়েছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বইমেলা থেকে প্রচুর লোক হেঁটে দোয়েল চত্বর থেকে রিকশা নিয়ে বিভিন্ন গন্তব্যে যাচ্ছিল। রাত সাড়ে ৯টার দিকে  দোয়েল চত্বরের কাছেই রাস্তার পাশে থাকা একটি বড় নারিকেলগাছ ভেঙে রাস্তার ওপর পড়ে। এ সময় নারিকেলগাছের নিচে একটি সিএনজি অটোরিকশা ও একটি রিকশা চাপা পড়ে। আহত হয় পথচারীরাও। রিকশায় ছিলেন মিতু, তাঁর হবু স্বামী ধনঞ্জয় এবং বান্ধবী স্বপ্না। পরে পথচারীরা তাঁদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মিতু ঘোষকে মৃত ঘোষণা করেন। জানা যায়, আহত ধনরঞ্জন ঘোষের সঙ্গে মিতু ঘোষের বিয়ের কথা পাকাপাকি হয়ে আছে। শিগরিই তাঁর বিয়ের পিঁড়িতে বসার কথা ছিল। স্বপ্নার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাঁকে তাঁর পরিবারের সদস্যরা রাতেই ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যায়।

উদ্ধারকারী মোহসিন খান জানান, বইমেলায় ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ নামে তাঁর একটি স্টল আছে। রাত ৯টার দিকে স্টল বন্ধ করে বাসায় ফিরে যাচ্ছিলেন। দোয়েল চত্বরের কাছ দিয়ে যাওয়ার সময় হঠাৎ একটি নারিকেলগাছ ভেঙে পড়ে। এতে তিনি নিজেও আহত হন। আর যে অটোরিকশার ওপর গাছটি পড়ে তাতে একই পরিবারের চারজন ছিলেন। তাঁরা ধরাধরি করে গাছটি সরিয়ে আরোহীদের বাঁচানোর চেষ্টা করেন। তাঁদের বের করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ ঘটনায় এক পাশের রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সেখানে পৌঁছে গাছটি রাস্তা থেকে সরিয়ে নেয়।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান রিগান জানান, ভেঙে পড়া গাছটি কেটে রাস্তার ওপর থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। শাহবাগ থানার সাব-ইন্সপেক্টর সামিউল ইসলাম জানান, নিহত মিতুর বাবার নাম নেপাল ঘোষ। মিতু ইডেন কলেজ থেকে মাস্টার্স করেছেন।



মন্তব্য