kalerkantho


নারীর নিরাপত্তার বিষয়টি রাজনৈতিক সামাজিক দুইভাবেই দেখতে হবে

আয়েশা খানম, সভাপতি, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ

৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



নারীর নিরাপত্তার বিষয়টি রাজনৈতিক সামাজিক দুইভাবেই দেখতে হবে

এবার নারী দিবসে বিশ্বব্যাপী স্লোগানের সঙ্গে একটা ভিশন নির্ধারণ করা হয়েছে। তা হলো, ২০৩০ সালের মধ্যে সব ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের অংশগ্রহণ ৫০ শতাংশ করা।

বাংলাদেশ এখন নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ থেকে মধ্য আয়ের দেশের পথে যাত্রা করছে। আমাদের অর্থনৈতিক উন্নয়নে নারীর অগ্রগতি খুবই দৃশ্যমান। বৈদেশিক আয়ের ৮০ শতাংশ যে তৈরি পোশাক খাত থেকে আসে তার প্রায় ৮০ শতাংশই নারীর শ্রম; কৃষি খাতে ২২টি কাজের মধ্যে ১৯টিই নারী করে থাকে। এ ছাড়া গণমাধ্যম, ব্যাংক, বীমা, সরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে চ্যালেঞ্জিং সব পেশায় এখন নারী শুধু অংশগ্রহণই নয়, তার সামর্থ্য, যোগ্যতা, দক্ষতা প্রমাণ করেছে সমান তালে। এখন প্রয়োজন হাউজিং, ট্রান্সপোর্ট, ডে কেয়ার, সিকিউরিটি। এগুলো আমাদের সবাইকে মিলে করতে হবে। নারীর নিরাপত্তার বিষয়টি রাজনৈতিক, সামাজিক দুইভাবেই দেখতে হবে। প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত বিশ্বে নারীকে তাল মিলিয়ে চলার জন্য আমাদের সমন্বিত প্রচেষ্টা দরকার। তাহলেই শুধু টেকসই উন্নয়ন সম্ভব।


মন্তব্য