kalerkantho


হামলার দৃশ্য ‘লাইভ’ করে বন্দুকধারী

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০



হামলার দৃশ্য ‘লাইভ’ করে বন্দুকধারী

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ আল নুরে হামলাকারী তার হেলমেটে বসানো ক্যামেরায় গুলি চালানোর পুরো দৃশ্য সরাসরি সম্প্রচার করেছে বলে খবর দিয়েছে নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড পত্রিকা।

অটোমেটিক রাইফেলধারী ২৮ বছর বয়সী শেতাঙ্গ ওই ব্যক্তি ভিডিওতে নিজের নাম বলেছে ‘ব্রেন্টন ট্যারেন্ট’। তার জন্ম অস্ট্রেলিয়ায়।

বন্দুকধারী ক্রাইস্টচার্চের ডিন্স এভিনিউতে মসজিদ আল নুরের দিকে গাড়ি চালিয়ে যাওয়ার সময় ‘লাইভ’ শুরু হয়। একটি ড্রাইভওয়ের কাছে সে গাড়ি পার্ক করে। গাড়িতে চালকের পাশের আসনে বেশ কয়েকটি আগ্নেয়াস্ত্র এবং প্রচুর গুলি দেখা যায়। সেখানে পেট্রলভর্তি কয়েকটি ক্যানও ছিল।

ওই ব্যক্তি গাড়ি থেকে নেমে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র হাতে মসজিদের দিকে হাঁটতে শুরু করে বলে জানায় বার্তা সংস্থা রয়টার্স। মসজিদে ঢোকার পথেই সে একজনকে গুলি করে। ভেতরে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি করতে শুরু করে।

সে বেশ কয়েকবার তার সেমি-অটোমেটিক আগ্নেয়াস্ত্রটিতে গুলি ভরে (রি-লোড) এবং এলোপাতাড়ি গুলি করে। এভাবে প্রায় তিন মিনিট ধরে গুলি করার পর সে মসজিদের সামনের দরজা দিয়ে বেরিয়ে যায়। রাস্তায় দিকে যাওয়ার সময় সে আশপাশের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে।

পুলিশের পক্ষ থেকে কঠোরভাবে ওই ভিডিও শেয়ার না করার নির্দেশ দিয়ে বলা হয়, ‘ক্রাইস্টচার্চে হামলার ঘটনার চরম বিপর্যয়কর ভিডিওগুলো অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া নিয়ে পুলিশ সচেতনভাব কাজ করছে।’

হামলার এই সম্প্রচার বন্ধ  করতে ফেসবুকের দ্বারস্থ হয় নিউজিল্যান্ড পুলিশ। কারণ ফেসবুক থেকেই চালানো হচ্ছিল এই লাইভ সম্প্রচার। নিউজিল্যান্ড পুলিশের কাছ থেকে এই লাইভ সম্প্রচারের বিষয়টি জানার পরই ব্যবস্থা নেয় ফেসবুক। টুইট করে তারা জানায়, ‘হামলা শুরু হওয়ার পরই আমাদের সতর্ক করে পুলিশ। তার পরই আমরা বন্দুকবাজের ফেসবুক আর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিই। সরিয়ে দেওয়া হয়েছে হামলার ভিডিও।’ সূত্র : রয়টার্স।



মন্তব্য