kalerkantho


জইশ-ই-মোহাম্মদের দায় স্বীকার

কাশ্মীরে পুলিশবহরে হামলা, নিহত ৪০

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর উপত্যকায় সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) বহর লক্ষ্য করে বোমা হামলায় কমপক্ষে ৪০ জোয়ানের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। গুরুতর জখম হয়েছে প্রায় ৪০ জন। যার মধ্যে ১৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের শ্রীনগরে সেনা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ হামলার দায় স্বীকার করেছে বলে পুলিশ সূত্র জানিয়েছে।

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার পুলওয়ামা জেলায় শ্রীনগর-অনন্তনাগ হাইওয়ের ওপর দিয়ে জম্মু থেকে শ্রীনগর এগোচ্ছিল সিআরপিএফের বহরটি। পথে গোরিপোরার কাছে আগে থেকে একটি অটোয় আইইডি বেঁধে রেখেছিল জঙ্গিরা। কনভয়টি সেখানে পৌঁছতেই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। নিরাপত্তাবাহিনীকে লক্ষ্য করে জঙ্গিরা গুলিও চালায় বলে দাবি পুলিশের। আত্মঘাতী বিস্ফোরণের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না উপত্যকার পুলিশপ্রধান দিলবাগ সিং।

যে শ্রীনগর-অনন্তনাগ হাইওয়েতে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে, সেটি সর্বদা কড়া নিরাপত্তায় মোড়া থাকে। এদিন বিস্ফোরণের সময়ও রাস্তায় টহল দিচ্ছিল সিআরপিএফ, জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ এবং সেনার একটি বাহিনী। তাদের নজর এড়িয়ে কিভাবে বিস্ফোরণ ঘটাল জঙ্গিরা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গোটা এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আব্দুল্লাহ। নিজের টুইটার হ্যান্ডলে তিনি লেখেন, ‘উপত্যকায় ভয়ংকর হামলা হয়েছে বলে খবর পেলাম। সেখানে আইডি বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে জঙ্গিরা। তাতে বেশ কয়েকজন সিআরপিএফ জোয়ানের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে অনেকে। এই হামলার তীব্র নিন্দা করছি আমি। মৃতদের পরিবারকে সমবেদনা জানাই। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।’ সূত্র : আনন্দবাজার।



মন্তব্য