kalerkantho


চূড়ান্ত গন্তব্যের জন্য অপেক্ষা করতে হবে সৌদি তরুণীকে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



চূড়ান্ত গন্তব্যের জন্য অপেক্ষা করতে হবে সৌদি তরুণীকে

বিশ্বজুড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় সৃষ্টিকারী পরিবার ছেড়ে পালিয়ে আসা সৌদি তরুণীকে মানবিক আশ্রয় দিতে কত দিন সময় লাগতে পারে, তা জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ম্যারিজ পেইনি। তরুণী রাহাফ মোহাম্মদ আল কুনুনকে আশ্রয় দিতে সিডনিতে টপলেস আন্দোলন ছড়িয়ে পড়া এবং সৌদিতে নারীর কঠোর অভিভাবকত্ব আইনে নিয়ে  বিতর্কের মধ্যেই পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, তার পুনর্বাসনের বিষয়ে জাতিসংঘের অনুরোধ বিবেচনায় কী পরিমাণ সময় লাগবে, তা বলা সম্ভব নয়।

সৌদি উত্তরাঞ্চলীয় আল-সুলাইমি প্রদেশের গভর্নরের মেয়ে ১৮ বছর বয়সী রাহাফ আল কুনুন সম্প্রতি পরিবার ত্যাগ করে কুয়েত থেকে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে রওনা দেন। কিন্তু যাত্রাবিরতিকালে ব্যাংককে তিনি আটক হন। থাইল্যান্ডের অভিবাসন কর্তৃপক্ষ তাঁকে কুয়েত ভ্রমণে থাকা তাঁর পরিবারের কাছে ফেরত পাঠাতে চেষ্টা করে। কিন্তু ব্যাংককের সুবর্ণভূমি বিমান্দরের হোটেলকক্ষে ভেতর থেকে দরজায় ব্যারিকেড দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাহাফ বিশ্ববাসীর দৃষ্টি কাড়েন এবং তিনি ইসলাম ত্যাগ করার কারণে তাঁকে ফেরত নিয়ে হত্যা করা হতে পারে বলে তিনি অস্ট্রেলিয়াসহ যেকোনো দেশে মানবিক আশ্রয় প্রার্থনা করেন। এর পরই মানবাধিকার গ্রুপ এবং বিভিন্ন দেশের অনলাইন অ্যাক্টিভিস্টরা তাঁকে রক্ষায় ক্যাম্পেইন শুরু করে। শেষ পর্যন্ত জাতিসংঘ শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা-ইউএনএইচসিআর তাঁকে শরণার্থী স্বীকৃতি দিয়ে নিজেদের জিম্মায় নিয়ে যায়। পরে তরুণীটিকে মানবিক আশ্রয় ও ভিসা দেওয়ার জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রতি অনুরোধ জানায়। সূত্র : এএফপি।

 



মন্তব্য