kalerkantho


শাহবাজ শরিফ আরো এক মামলায় গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



শাহবাজ শরিফ আরো এক মামলায় গ্রেপ্তার

পাকিস্তানের দুর্নীতি দমন সংস্থা শনিবার অন্য একটি মামলায় বিরোধীদলীয় এবং পাকিস্তান মুসলিম লীগের (এন) প্রধান শাহবাজ শরিফকে আটক করেছে। একই সঙ্গে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত তাঁর রিমান্ড বর্ধিত করেছে। আশিয়ানা-ই-ইকবাল আবাসন প্রকল্পে এক হাজার ৪০০ কোটি রুপি কেলেঙ্কারির ঘটনায় ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো (এনএবি) শাহবাজ শরিফকে গত ৫ অক্টোবর আটক করে।

গত শনিবার আশিয়ানা-ই-ইকবাল আবাসন প্রকল্পের কেলেঙ্কারির ঘটনায় শুনানির জন্য শাহবাজ শরিফকে লাহোরে অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো আদালতে হাজির করা হয়। এ সময়ে এনএবি শাহবাজ শরিফের আরো ১৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। এনএবি আদালতকে জানায়, রমজান সুগার মিল মামলায়ও তাঁকে আটক করা হয়েছে। শাহবাজ শরিফের আইনজীবী আহমদ পারভেজ তাঁর রিমান্ড আবেদনের বিরোধিতা করেন এবং আদালতকে জানান, এনএবি তাঁকে এক মাসেরও বেশি সময় রিমান্ডে নিয়েছে। কিন্তু তাঁর বিরুদ্ধে কোনো কিছু প্রমাণ করতে পারেনি। অন্যদিকে এনএবি আইনজীবী ওয়ারিস আলী জানজুয়া বলেন, রিমান্ড থাকাকালীন শাহবাজ শরিফ জাতীয় অধিবেশনে যোগ দেওয়ায় তাঁকে ঠিকমতো জিজ্ঞাসাবাদ করা যায়নি। দুই পক্ষের যুক্তিতর্কের পর আদালত শাহবাজ শরিফকে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শাহবাজ শরিফের শুনানির সময় আদালতের বাইরে পাকিস্তান মুসলিম লীগের (এন) বেশ কিছু কর্মী উপস্থিত হয়েছিল। তারা ইমরান খানের সরকার এবং এনএবির বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়।

এদিকে শাহবাজ শরিফের ছেল সালমান শাহবাজ এই দিনের শুনানিতেও উপস্থিত ছিলেন। তিনি গত শুক্রবার লন্ডন গেছেন। এ নিয়ে তিনি বাবার টানা তৃতীয় শুনানিতে অনুপস্থিত ছিলেন। শাহবাজ শরিফের পরিবারের এক স্বজন জানিয়েছেন, তাঁদের আশঙ্কা এনএবি সালমান শাহবাজকে আটক করতে পারে। সে কারণে বাবা এবং ভাই হামজা শাহবাজের বিরুদ্ধে আনা মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত সালমান দেশে থাকুক তাঁরা তা চান না।

এনএবির তথ্যানুসারে, দুই ভাই হামজা ও সালমান শাহবাজ উভয়ই রমজান সুগার মিলের পরিচালক ছিলেন। তাঁরা সুগার মিলের সুবিধার্থে জনগণের অর্থ ব্যবহার করে লাহোর থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে একটি সেতু তৈরি করেছিলেন। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।



মন্তব্য