kalerkantho


ফ্লোরিডায় আছড়ে পড়েছে শতাব্দীর ভয়াবহ মাইকেল

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



ফ্লোরিডায় আছড়ে পড়েছে শতাব্দীর ভয়াবহ মাইকেল

ছবি: ইন্টারনেট

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের উপকূলে গত বুধবার দুপুরে আছড়ে পড়েছে চার মাত্রার ঘূর্ণিঝড় মাইকেল। এর পরই অবশ্য সেটি দুর্বল হতে হতে মৌসুমি ঝড়ে পরিণত হয়। ঝড়ের আঘাতে গতকাল পর্যন্ত দুজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

ঘণ্টায় ১৫৫ মাইল গতিবেগ নিয়ে গত বুধবার দুপুরে ঘূর্ণিঝড় মাইকেল যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে আঘাত করে। ফ্লোরিডা উপকূলের প্যানহ্যান্ডেল এলাকায় প্রবল বেগে আঘাত করা এ ঝড়কে শতাব্দীর সবচেয়ে শক্তিশালী ঝড় অ্যাখ্যা দিচ্ছে কর্তৃপক্ষ।

প্রথম আঘাত করার পর গত বুধবার বিকেল নাগাদ ঘূর্ণিঝড়টি দুর্বল হতে শুরু করে। তার পরও এটি বিপজ্জনক মাত্রায় ফ্লোরিডার ওপর দিয়ে বয়ে যায়। বুধবার দিবাগত মধ্যরাত নাগাদ এ ঝড়ের কারণে সৃষ্ট বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৬০ মাইলে নেমে আসে এবং ভোর নাগাদ তা ঘণ্টায় ৫০ মাইলে পৌঁছায়। এ ঝড় ফ্লোরিডা থেকে জর্জিয়া হয়ে ক্যারোলাইনার দিকে বয়ে যেতে শুরু করে। নর্থ ও সাউথ ক্যারোলাইনা এখনো ঘূর্ণিঝড় ফ্লেরেন্সের গত মাসের আঘাত সামাল দিয়ে উঠতে পারেনি।

দুর্বল হয়ে মৌসুমি ঝড়ে পরিণত হলেও মাইকেলের প্রভাবে গতকাল পর্যন্ত ফ্লোরিডা, জর্জিয়া ও দুই ক্যারোলাইনায় বৃষ্টি অব্যাহত ছিল। এর আগে ফ্লোরিডার উপকূলীয় এলাকায় ঝড়ের আঘাতে ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। প্রবল বৃষ্টি আর জলোচ্ছ্বাসে সৃষ্ট বন্যায় বিধ্বস্ত ঘরবাড়িসহ অন্যান্য ধ্বংসাবশেষ ভেসে যেতে দেখা গেছে। কর্তৃপক্ষের সতর্কতা সত্ত্বেও যারা ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ জায়গায় সরে যায়নি, তাদের করা ভিডিও চিত্রে ও স্থিরচিত্রে এ ভয়াবহ পরিস্থিতি রেকর্ড হয়েছে।

ঝড়ের আঘাতে প্রায় তিন লাখ ৭০ হাজার বাসিন্দার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হওয়া বাসিন্দাদের বেশির ভাগই ফ্লোরিডার। তবে অ্যালাবামা ও জর্জিয়ায়ও অনেকে এ পরিস্থিতির কবলে পড়ে। এরই মধ্যে দুজন নিহতের খবর পাওয়া গেছে, যাদের মধ্যে জর্জিয়ায় এক কিশোরীও আছে বলে জানা গেছে।

ঝড়ের ভয়াবহতা সম্পর্কে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জানিয়েছেন ফেডারেল ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট এজেন্সির (এফইএমএ) প্রধান ব্রক লং। তিনি জানান, ১৮৫১ সাল থেকে ঝড়ের রেকর্ড রাখার শুরু। এর পর থেকে ফ্লোরিডার প্যানহ্যান্ডেলে আছড়ে পড়া মাইকেলই হচ্ছে সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়।

ফ্লোরিডার গভর্নর রিক স্কট বলেন, ‘আমাদের উপকূলজুড়ে লোকজন অকল্পনীয় ধ্বংসের সাক্ষী হতে যাচ্ছে। স্থলভাগের কয়েক মাইল পর্যন্ত পানি চলে আসবে এবং তা অনায়াসে ঘরবাড়ি ডুবিয়ে দিতে পারে।’ না বললেই নয়, ঝড়ের প্রভাবে ৯ থেকে ১৩ ফুট পর্যন্ত উঁচু জলোচ্ছ্বাসের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। ঝড়ের তীব্রতার পূর্বাভাস পেয়ে গর্ভনর স্কট তাঁর অঙ্গরাজ্যের তিন লাখ ৭০ হাজারের বেশি মানুষকে আগেভাগে নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন। তবে বেশির ভাগ লোকই এ সতর্কবার্তায় কান দেয়নি।

মাইকেল যখন ফ্লোরিডায় তাণ্ডব চালাচ্ছিল, সে সময় গত বুধবার রাতে পেনসিলভানিয়ায় এক নির্বাচনী সভায় গিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দুর্যোগকবলিতদের প্রতি সহানুভূতি জানান। তিনি বলেন, ‘শিগগিরই আমি ফ্লোরিডা সফরে যাব। আমি তাদের সবার সর্বোচ্চ মঙ্গল কামনা করছি।’

সাগরে প্রথম মৌসুমি ঝড় হিসেবে পাকিয়ে ওঠে মাইকেল। নর্থ আমেরিকান অ্যারোস্পেস ডিফেন্স কমান্ডের জেনারেল টেরেন্স ও’শগনেসি জানান, এরপর দ্রুতই মাইকেল এক মাত্রার ঝড়ে পরিণত হয়, এরপর দুই মাত্রার। এরপর কিছু বুঝে ওঠার আগেই চার মাত্রার ঝড়ে পরিণত হয় ভয়াবহ মাইকেল। এ ঝড়ের প্রভাবে চলতে থাকা বৃষ্টির কারণে জর্জিয়া, দুই ক্যারোলাইনা ও দক্ষিণ-পূর্ব ভার্জিনিয়ায় আকস্মিক বন্যার আশঙ্কা করছে আবহাওয়া দপ্তর। সূত্র : এএফপি।



মন্তব্য