kalerkantho


কাশ্মীর পুলিশের আত্মীয়দের মুক্তি দিয়েছে হিজবুল মুজাহিদিন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিশ কর্মীদের অপহৃত ১১ জন আত্মীয়কে শুক্রবার রাতে মুক্তি দিয়েছে হিজবুল মুজাহিদিন গোষ্ঠী। বৃহস্পতিবার রাতে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা কয়েকটি দলে ভাগ হয়ে রাজ্যের শোপিয়ান, পুলওয়ামা, কুলগাম ও অনন্তনাগ জেলায় এসব অপহরণের ঘটনা ঘটনায়। তবে তাদের মুক্তি দেওয়ার পাশাপাশি হিজবুল মুজাহিদিন হুমকি দিয়েছে, তাদের দলের সদস্যদের যেসব আত্মীয়-পরিজনকে সেনা-পুলিশ আটকে রেখেছে, তাদের তিন দিনের মধ্যে মুক্তি না দিলে পুলিশ কর্মীদের আত্মীয়-স্বজনকে তারা রেহাই দেবে না।

জম্মু ও কাশ্মীরে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫(এ) ধারার শুনানি নিয়ে উত্তেজনার মধ্যে ওই অপহরণের ঘটনা ঘটে। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত হতে পারে—এমন আশঙ্কায় শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট ৩৫(এ) ধারার শুনানি আগামী জানুয়ারি পর্যন্ত স্থগিত করেন।

ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫(এ) ধারাটি ১৯৫৪ সালে প্রযোজ্য হয়। এটি রাষ্ট্রপতি আইন। এই আইনের ফলে জম্মু-কাশ্মীরের ‘স্থায়ী বাসিন্দা’ ছাড়া আর কেউ উপত্যকায় জমি অধিগ্রহণ করতে পারবে না অথবা জমির মালিক হতে পারবে না।

প্রায় তিন দশক ধরে কাশ্মীরে চলতে থাকা সশস্ত্র আন্দোলনে এর আগে কখনো এত বেশি সংখ্যায় পুলিশ কর্মীদের পরিবার-পরিজন আক্রান্ত হয়নি। শুক্রবার রাতে জারি করা এক অডিও বার্তায় হিজবুল মুজাহিদিন কমান্ডার রিয়াজ নাইকু অপহৃতদের মুক্তি দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে তিনি এই হুমকিও দেন, তাঁর সতীর্থদের যেসব আত্মীয়-স্বজনকে পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনী আটক করে রেখেছে, তাদের তিন দিনের মধ্যে যদি না ছেড়ে দেওয়া হয়, তাহলে পুলিশ কর্মীদের আত্মীয়দের বড় শাস্তি পেতে হবে।

সূত্র : বিবিসি, এনডিটিভি।



মন্তব্য