kalerkantho


স্বাগত জানাল প্রায় সব দেশ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০



সিঙ্গাপুরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের বৈঠকে শান্তির বার্তা ঘোষিত হওয়ায় একে স্বাগত জানিয়েছে বিভিন্ন দেশ ও সংস্থা। বহুল প্রতীক্ষিত এই বৈঠকের মধ্য দিয়ে দুই দেশের পারস্পরিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে নতুন যুগের সূচনা এবং কোরীয় উপদ্বীপে শান্তির সুবাতাস বইবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জাপান : ট্রাম্প ও উনের যৌথ ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। তিনি উত্তর কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের ক্ষেত্রে এ ঘোষণাকে ‘প্রথম পদক্ষেপ’ বলে মন্তব্য করেছেন। আবে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যকার এই বৈঠকে চেয়ারম্যান কিম জং উন কোরিয়া উপদ্বীপকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের পরিকল্পনায় আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাক্ষর করেছেন। উত্তর কোরিয়ার ইস্যুতে সমন্বিত পদক্ষেপের প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে আমি এটিকে সমর্থন করছি।’

চীন : উত্তর কোরিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র হিসেবে পরিচিত চীন বৈঠককে ঐতিহাসিক উল্লেখ করে বলেছে, কোরিয়া উপদ্বীপে চলমান সংকট নিরসনে ‘পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ’ ছাড়া কোনো উপায় নেই। একই সঙ্গে দেশটি উত্তরের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা শিথিল করার জন্য জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, মূল বিষয়টি হলো ‘দুই নেতা একসঙ্গে বসেছেন। এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো সমতার ভিত্তিতে উভয়ের মধ্যে ইতিবাচক আলোচনা অনুষ্ঠিত হওয়া।’ তিনি আরো জানান, উপদ্বীপটিতে পরমাণু ইস্যুটি নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। তাই যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার উচিত হবে আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি মিটিয়ে নেওয়া। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নিরাপত্তা পরিষদকে আহ্বান জানিয়ে বলেন, তাদের উচিত হবে, কূটনৈতিক এই সংলাপের প্রতি নিজেদের সমর্থন দেওয়া এবং উপদ্বীপটিকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করতে চেষ্টা চালানো।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন : সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত বহুল প্রতীক্ষিত ট্রাম্প ও কিমের আলোচনাকে স্বাগত জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। সংস্থাটির কূটনৈতিকবিষয়ক প্রধান ফেডেরিকা মোঘেরিনি এক বিবৃতিতে বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও উত্তর কোরিয়ার ‘নেতা গুরুত্বপূর্ণ ও প্রয়োজনীয়’ একটি পদক্ষেপ নিয়েছেন। ফলে এটি আমাদের আশা দেখাচ্ছে কোরিয়া উপদ্বীপকে সম্পূর্ণভাবে ‘পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার এবং দুই কোরিয়ার সম্পর্ককে আরো সুদৃঢ় করার।’

রাশিয়া : ট্রাম্প ও কিমের বৈঠককে অনুমোদন দিয়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেন, ‘উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের নেতার বৈঠকটি সফল হয়েছে। এখন আমরা দুই পক্ষের দেওয়া বিভিন্ন বক্তব্যের দিকে নজর রাখছি। তবে তাদের দেওয়া ওই যৌথ ঘোষণায় কী আছে সেটি এখনো দেখা বাকি।’

সূত্র : এএফপি।



মন্তব্য