kalerkantho


উত্তর কোরিয়া

সতর্ক জাপান, সংলাপের আহ্বান চীনের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী যত দ্রুত সম্ভব আলোচনায় বসার জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। পিয়ংইয়ং ও সিউল পরমাণু সংকটের ব্যাপারে যুগান্তকারী সম্মেলন আয়োজনে সম্মত হওয়ার পর এ আহ্বান জানানো হলো।

এদিকে জাপানের প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার সতর্ক করে বলেছেন, উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের আলোচনার প্রস্তাব সময়ক্ষেপণ হতে পারে। তিনি এ ক্ষেত্রে পিয়ংইয়ংয়ের সুস্পষ্ট পদক্ষেপ নেওয়ার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। 

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই এক সংবাদ সম্মেলনে গতকাল বলেন, ‘কোরীয় উপদ্বীপ ইস্যুটি অবশেষে সঠিক পথের দিকে পা বাড়াল।’ তিনি বলেন, ওয়াশিংটন ও পিয়ংইয়ংকে ‘যত দ্রুত সম্ভব আলোচনায়’ বসতে হবে।

যদিও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন বুধবার বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে আলোচনার যে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, সে সম্পর্কে আশাবাদী হওয়ার সময় এখনো আসেনি। মুনের একটি বিশেষ প্রতিনিধিদল পিয়ংইয়ংয়ে তাদের ঐতিহাসিক সফর থেকে ফিরে কিম জং উনের এই প্রস্তাবের কথা প্রকাশ করে।

এদিকে পিয়ংইয়ং ও সিউলের মধ্যে কূটনৈতিক অগ্রগতি দৃষ্টিগোচর হওয়ার পর জনসমক্ষে এই প্রথমবারের মতো শিনজো আবে বলেন, শুধু আলোচনার জন্য আলোচনা অর্থহীন। আবে এমপিদের বলেন, ‘আমি আবারও বলছি যে উত্তর কোরিয়াকে সর্বোচ্চ চাপের মুখে রেখে আমরা এমন একটি পরিস্থিতি তৈরি করেছি, যাতে পিয়ংইয়ং ওয়াশিংটনের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায়।’ আবে বলেন, অতীতেও দেখা গেছে, উত্তর কোরিয়া আলোচনার কথা বলে তাদের পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষমতা বাড়াতে সময়ক্ষেপণ করেছে।

নতুন মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সত্ভাই কিম জং-ন্যামকে হত্যায় পিয়ংইয়ং ভিএক্স রাসায়নিক ব্যবহার করেছিল বলে ওয়াশিংটন নিশ্চিত করেছে। একই সঙ্গে তারা উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছে। ‘আর্মস এক্সপোর্ট কন্ট্রোল অ্যাক্ট’-এর আওতায় ওই দেশটির পণ্য বিক্রি এবং জাতীয় নিরাপত্তার জন্য স্পর্শকাতর কোনো জিনিস ও প্রযুক্তি উত্তর কোরিয়ায় রপ্তানি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে এ নিষেধাজ্ঞা কার্যত প্রতীকী। যুক্তরাষ্ট্র শুরু থেকেই ন্যাম হত্যায় উত্তর কোরিয়া জড়িত বলে দাবি করে আসছে। ওদিকে পিয়ংইয়ং বরাবরই এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য